• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • গুজব ছড়াচ্ছে বিরোধীরা, কৃষকদের বোঝানোর জন্য বিজেপি কর্মীদের কাছে আবেদন মোদির

গুজব ছড়াচ্ছে বিরোধীরা, কৃষকদের বোঝানোর জন্য বিজেপি কর্মীদের কাছে আবেদন মোদির

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

শুধু কৃষি বিল নয়, শ্রম আইনে নতুন সংশোধনের ফলে অসংগঠিত ক্ষেত্রের সব শ্রমিকরাই ন্যূনতম মজুরির অধিকার পাবেন বলেও দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কৃষি বিল নিয়ে ফের একবার বিরোধীদের বিরুদ্ধে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ তুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ এ দিনই নতুন তিনটি কৃষি বিলের প্রতিবাদে ভারত বনধের ডাক দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলি৷ প্রধানমন্ত্রীর অবশ্য দাবি, নয়া কৃষি বিলে কৃষকদের আয় বাড়বে, তাঁদের অধিকারও সুরক্ষিত হবে৷ পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায়ের জন্মদিনে বিজেপি-র দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ দিন এই দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ দলীয় কর্মীদের কাছে তাঁর আবেদন, কৃষি বিল নিয়ে কৃষকদের কাছে গিয়ে তাঁদের বিভ্রান্তি দূর করতে হবে৷

    বিরোধীদের আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'এর আগে যাঁরা সরকারে ক্ষমতায় ছিল, তাঁরা এমন জটিল আইন ও প্রতিশ্রুতির জাল বিছোত যে অধিকাংশ কৃষকই তা বুঝতে পারতেন না৷ কিন্তু বিজেপি-র নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার ক্রমাগত এই পরিস্থিতি বদলে দিয়ে কৃষকদের উন্নয়নের চেষ্টা করেছে৷'

    প্রধানমন্ত্রী আরও দাবি করেন, গত কয়েক বছরে এনডিএ সরকার কৃষকদের সরাসরি ব্যাঙ্কের সঙ্গে যুক্ত করেছে৷ প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি প্রকল্পে ১০ কোটি কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১ লক্ষ কোটি টাকা পাঠানো হয়েছে৷ কৃষকরা যাতে ঋণ পান তার জন্য যত বেশি সম্ভব কৃষককে কিষাণ ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷

    নরেন্দ্র মোদী বলেন, নতুন কৃষি বিলগুলি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্য প্রচার চালাচ্ছে বিরোধীরা৷ তার মোকাবিলায় সহজ ভাষায় নতুন কৃষি বিলগুলি কীভাবে তাঁদের অধিকার সুরক্ষিত করবে, কৃষকদের কাছে গিয়ে তা বোঝানোর জন্য বিজেপি কর্মীদের অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷

    শুধু কৃষি বিল নয়, শ্রম আইনে নতুন সংশোধনের ফলে অসংগঠিত ক্ষেত্রের সব শ্রমিকরাই ন্যূনতম মজুরির অধিকার পাবেন বলেও দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ তিনি আরও জানিয়েছেন, এতদিন বিভিন্ন ক্ষেত্রে ন্যূনতম বেতনের ১০ হাজারটি স্তর ছিল৷ সংশোধিত আইনে তা কমিয়ে ২০০-তে নিয়ে আসা হয়েছে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: