‘রাহুল জামিনে মুক্ত হয়েও নির্বাচনে প্রার্থী, তাহলে সাধ্বী প্রজ্ঞা কেন নয়?’, সাধ্বীর সমর্থনে মোদি

মালেগাঁও বিস্ফোরণের প্রধান চক্রান্তকারী হিসেবে অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং-কে প্রার্থী করায় প্রথমদিন থেকেই উঠেছে বিতর্কের ঝড় ৷

মালেগাঁও বিস্ফোরণের প্রধান চক্রান্তকারী হিসেবে অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং-কে প্রার্থী করায় প্রথমদিন থেকেই উঠেছে বিতর্কের ঝড় ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: মালেগাঁও বিস্ফোরণের প্রধান চক্রান্তকারী হিসেবে অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং-কে প্রার্থী করায় প্রথমদিন থেকেই উঠেছে বিতর্কের ঝড় ৷ উপরন্তু সাধ্বী প্রজ্ঞার বেফাঁস মন্তব্যের পর ড্যামেজ কন্ট্রোলে মাঠে নেমেছে বিজেপি ৷ এবার সাধ্বী প্রজ্ঞার সমর্থনে মুখ খুললেন স্বয়ং নরেন্দ্র মোদি ৷ সরাসরি রাহুল প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে তুলনা টেনে বলেন, জামিনে মুক্ত রাহুল গান্ধি যদি লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারেন তাহলে সাধ্বী প্রজ্ঞা কেন নয়?

    মধ্যপ্রদেশের ভোপালের বিজেপি প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর । তাঁর সমর্থনে এবার মাঠে নামলেন স্বয়ং নরেন্দ্র মোদি ৷ শুক্রবার একটি বেসরকারি চ্যানেলকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় মোদি সাধ্বী প্রজ্ঞার সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা ও রাহুল গান্ধীর তুলনা টানেন ৷ বলেন, ‘সাধ্বী প্রজ্ঞাকে ভোটের টিকিট দেওয়া নিয়ে যারা কথা বলছে তারা নিজেরা দোষী হিসেবে সাজা পাওয়া লোকের গলা জড়িয়ে ধরেন, জেলে দেখা করতে যান ৷ জামিনে মুক্ত অভিযুক্তকে কেন টিকিট দেওয়া হয়েছে এ প্রশ্নটা অমেঠি এবং রায়বেরলির জামিনে মুক্ত কংগ্রেস প্রার্থীকেও করা উচিত নয় কী? কেন সমালোচনার আঙুল শুধু সাধ্বীর দিকে উঠবে?’

    সাধ্বী প্রজ্ঞার সমর্থনে নরেন্দ্র মোদি আরও বলেন, ‘জেলে সাধ্বীর উপর যখন অকথ্যা অত্যাচার চলছিল তখন কেন সবাই চুপ করেছিল? বাস্তব ঘটনাকে ফিল্মের অবাস্তব স্ক্রিপ্টের মতো ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে পরিবেশন করে কংগ্রেস ৷’

    শুক্রবার দিনভর সংবাদ শিরোনামে ছিলেন সাধ্বী প্রজ্ঞা ৷ তাঁর বেফাঁস মন্তব্যে রীতি মতো অস্বস্তিতে বিজেপি ৷ গতকাল যিনি দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন, অশোক চক্র পাওয়া সেই মুম্বই এটিএসের প্রধানকে দেশদ্রোহী বলে চিহ্নিত করেন সাধ্বী প্রজ্ঞা ৷ মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত সাধ্বীর দাবি করেন, তাঁর অভিশাপেই নাকি মৃত্যু হয় হেমন্ত করকরের। এই মন্তব্যের জেরেই দেশ জুড়ে ওঠে সমালোচনার ঝড়। পরে চাপে পড়ে নিজের মন্তব্য ফিরিয়ে নিয়ে সাধ্বী ক্ষমা চান ৷

    মহারাষ্ট্রের মালেগাঁওয়ে একটি মসজিদের সামনে ২০০৮-এর ২৯ সেপ্টেম্বর পর পর কয়েকটি বোমা বিস্ফোরণে ৬ জন মারা যান। হামলার প্রধান অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা লোকসভা ভোটে ভোপালে কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিংয়ের বিরুদ্ধে লড়ছেন ৷

    First published: