‘মন্দা চললে কোট প্যান্ট জুটতো না, সবাই ধুতি ফতুয়া পরত’, অর্থনীতি নিয়ে মন্তব্য বিজেপি সাংসদের

‘মন্দা চললে কোট প্যান্ট জুটতো না, সবাই ধুতি ফতুয়া পরত’, অর্থনীতি নিয়ে মন্তব্য বিজেপি সাংসদের
BJP MP Virendra Singh ‘Mast’ speaks in the Lok Sabha.

জামাকাপড় দেখেই বালিয়ার বিজেপি সাংসদ বীরেন্দ্র সিং মস্ত বুঝে গেলেন, দেশে অর্থনৈতিক সংকট তো নেই-ই, এমনকি কোনও আর্থিক মন্দাও চলছে না৷

  • Share this:

#বালিয়া: জামাকাপড় দেখে সিএএ বিরোধী প্রতিবাদীদের চিনেছিলেন মোদি৷ এবার জামাকাপড় দেখেই বালিয়ার বিজেপি সাংসদ বীরেন্দ্র সিং মস্ত বুঝে গেলেন, দেশে অর্থনৈতিক সংকট তো নেই-ই, এমনকি কোনও আর্থিক মন্দাও চলছে না৷ কারণ, সত্যি যদি দেশে অর্থনৈতিক মন্দা চলত, তাহলে লোকে কোট প্যান্ট পরে ঘুরে বেড়াত না৷ সবাইকে ধুতি আর ফতুয়া পরতে হত৷ তিনি বললেন, ‘মন্দা চললে তো আমাদের জামা, প্যান্ট বা পাজামা কেনারই ক্ষমতা থাকত না৷ ধুতি ফতুয়া পরে আমরা ঘুরতাম৷ ভারত শুধু চারটি মেট্রো শহরের অর্থনীতির ওপর নির্ভরশীল নয়৷ ভারতের অর্থনীতি দাঁড়িয়ে আছে গ্রামের ওপর৷ গ্রাম্য কৃষি ব্যবস্থার সঙ্গেই ভারতের অর্থনীতি সবচেয়ে বেশি জড়িত৷ ব্যাঙ্কের হিসাব দেখলেও বোঝা যাবে গ্রামের মানুষ শহরের মানুষদের চেয়ে অনেক বেশি টাকা আমানত করে থাকেন৷ আর ভারতের কৃষি অর্থনীতি এখনও যথেষ্ট শক্তিশালী৷ আর সেটার ওপর নির্ভর করে বলাই যায়, ভারত মন্দার মুখে পড়েনি৷ ভারতের স্বাধীনতার পিছনেও গ্রাম ভারতের ভূমিকার কথা তিনি মনে করিয়ে দেন৷ বলেন, ভারতের গ্রামের মানুষরা যদি রুখে না দাঁড়াতেন, তাহলে ভারত এখনও হয় মুঘলদের বা বৃটিশদের দাসত্ব করে কাটিয়ে দিত৷ অর্থনীতির খারাপ অবস্থা নিয়ে একের পর এক অযৌক্তিক কথা এর আগেও অনেক বিজেপির শীর্ষ নেতা বলেছেন৷ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ বলেছিলেন, পেয়াঁজ খান না বলে তিনি পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না৷ সেই ধারাই যে বিজেপি নেতারা বজায় রাখছেন তার প্রমাণ বিজেপির সাংসদও৷

First published: February 10, 2020, 5:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर