Home /News /national /
Patna couple: পালিয়ে বিয়ে করার পর আতঙ্কে কাটছে দিন; ভিডিও-র মাধ্যমে পুলিশের কাছে সাহায্যের আর্তি নবদম্পতির!

Patna couple: পালিয়ে বিয়ে করার পর আতঙ্কে কাটছে দিন; ভিডিও-র মাধ্যমে পুলিশের কাছে সাহায্যের আর্তি নবদম্পতির!

বিস্ফোরক অভিযোগ এনে ভিডিও শেয়ার করে পুলিশের কাছে কাতর আবেদন জানালেন নববধূ

বিস্ফোরক অভিযোগ এনে ভিডিও শেয়ার করে পুলিশের কাছে কাতর আবেদন জানালেন নববধূ

Patna couple: ওই তরুণীর অভিযোগ, বিয়ের কথা জানতে পেরেই তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁর স্বামীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

  • Share this:

পটনা: পরিবারের অমতে পালিয়ে বিয়ে করেছিল প্রেমিক যুগল। তার পরেই নিজের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে হুমকি এবং মিথ্যা মামলায় তাঁর স্বামীকে ফাঁসানোর বিস্ফোরক অভিযোগ এনে ভিডিও শেয়ার করে পুলিশের কাছে কাতর আবেদন জানালেন নববধূ!

ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের গোপালগঞ্জে। গুড্ডি কুমারী নামে ওই তরুণীর ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। নিরাপত্তার দাবিতে পুলিশের কাছে কাতর আর্জি জানাতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। ঠিক কী হয়েছিল? ভোরে থানার অন্তর্গত হুস্সেপুরের নওকা টোলার বাসিন্দা শর্মা রামের মেয়ে গুড্ডি। তাঁর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল ভোরের থানার অন্তর্গত রকওয়ার বাসিন্দা রামাশীষ সিংয়ের ছেলে করণ কুমার সিংয়ের। অভিযোগ, তিন বছরের প্রেমের সম্পর্কে বাধ সাধে দু'জনের পরিবার। আর সেই কারণেই পরিবারে অমতে গিয়ে পালিয়ে বিয়ে করে প্রেমিক যুগল। এর পরেই নিজের পরিবারের নামে গুরুতর অভিযোগ তুলে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন গুড্ডি। ওই তরুণীর অভিযোগ, বিয়ের কথা জানতে পেরেই তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁর স্বামীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন। এখানেই শেষ নয়, গুড্ডির আরও অভিযোগ, তাঁর স্বামী এবং স্বামীর পরিবারকেও ক্রমাগত হুমকি দিচ্ছে গুড্ডির পরিবার। আর সেই কারণেই তিনি বিয়ের পর পুলিশের সাহায্য চেয়ে ভিডিও রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

আরও পড়ুন : নিজের কন্যাকে ধর্ষণ ও হুমকি, বাবার অত্যাচারের ভিডিও করে পুলিশের দ্বারস্থ মেয়ে!

ওই ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে গুড্ডি ও তাঁর স্বামীকে। সেখানে গুড্ডিকে বলতে শোনা গিয়েছে যে, “আমি নিজের মতেই পালিয়ে বিয়ে করেছি। আমার বা আমাদের উপর কেউ কোনও রকম জোর-জবরদস্তি করেনি। পুলিশের কাছে আমার আর্জি, আমার স্বামী এবং তাঁর পরিবারের উপর যেন কোনও রকম অত্যাচার না-করা হয়।” এখানেই শেষ নয়, গুড্ডির দাবি, তাঁরা দুজনেই সাবালক। এ প্রসঙ্গে গুড্ডি বলেন যে, “আমার বয়স ১৮ বছর আর আমার স্বামীর বয়স ২১ বছর হয়ে গিয়েছে। ফলে আমরা সাবালক এবং প্রাপ্তবয়স্ক। আমরা তিন বছর ধরে সম্পর্কে ছিলাম। কিন্তু আমাদের পরিবার এই সম্পর্ক মানতে নারাজ ছিল, তাই আমরা বাড়িতেও থাকতে পারছিলাম না। সেই কারণে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

আরও পড়ুন : নিজের কন্যাকে ধর্ষণ ও হুমকি, বাবার অত্যাচারের ভিডিও করে পুলিশের দ্বারস্থ মেয়ে!

এর পর আইনি বিয়ের শংসাপত্র দেখিয়ে ওই তরুণী দাবি করেন যে, চার মাস আগেই তাঁদের আইনি বিয়ে সম্পন্ন হয়েছিল। গুড্ডির বক্তব্য, “আমাদের আইনি বিয়ের কাগজ বৈধ। আর আমার স্বামীর বিরুদ্ধে আমাকে অপহরণের যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা একেবারেই ভিত্তিহীন। আমি সজ্ঞানে নিজের ইচ্ছেতেই এই বিয়ে করেছি।”

আরও পড়ুন : ১৫ বছর ধরে তিন প্রেমিকার সঙ্গে সঙ্গম, সহবাস! রয়েছে সন্তানও ! জানাজানি হতেই যা হল

কিন্তু কী বলছে পুলিশ? এই প্রসঙ্গে পুলিশের বক্তব্য, ওই দম্পতির যদি কোনও সমস্যা হয়ে থাকে, তবে তাঁরা থানায় এসে তা জানাতে পারেন। পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে তাঁদের উপযুক্ত সুরক্ষা প্রদান করা হবে।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Patna

পরবর্তী খবর