নিচু জাত বলে চুল, দাড়ি কাটা বন্ধ! সরকারি সেলুন খুলে দিল কেরলের পঞ্চায়েত

নিচু জাত বলে চুল, দাড়ি কাটা বন্ধ! সরকারি সেলুন খুলে দিল কেরলের পঞ্চায়েত

প্রতীকী ছবি৷

চাক্কিলিয়ান সম্প্রদায়ের মানুষকে স্থানীয় সেলুনগুলিতে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে না বলে এ মাসের শুরুতেই অভিযোগ সামনে এসেছিল৷

  • Share this:

    #কেরল: নিচু জাতের মানুষ, এই যুক্তি দেখিয়েই কেরলের ইদুক্কিতে চাক্কিলিয়ান সম্প্রদায়ের মানুষকে স্থানীয় সেলুনগুলিতে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছিল না৷ এই খবর সামনে আসার পরই অভিনব উদ্যোগ নিল স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত৷ সরকারি উদ্যোগেই খোলা হয়েছে সেলুন৷ সেখানে চুল, দাড়ি কাটার মতো পরিষেবা পারবেন সব সম্প্রদায়ের মানুষ৷

    অভিযোগ, চাক্কিলিয়ান সম্প্রদায়ের মানুষকে স্থানীয় সেলুনগুলিতে কোনও পরিষেবা দেওয়া হচ্ছিল না৷ এই খবর সামনে আসার পরই ভাট্টাভাড়া পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে সবার জন্য সেলুন খোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়৷ দেবিকুলামের বিধায়ক এস রাজেন্দ্র এই সরকারি সেলুনের উদ্বোধন করেন৷ একই সঙ্গে প্রশাসনের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যতদিন পর্যন্ত বাকি সেলুনগুলি সরকারি নির্দেশ মেনে সবাইকে পরিষেবা দিচ্ছে, ততদিন এলাকার অন্যান্য সব সেলুন বন্ধ থাকবে৷

    ভাট্টাভাড়া পঞ্চায়েতের তরফে জানানো হয়েছে, প্রথমদিনই সরকারি ওই সেলুনে ১৩ জন গ্রাহক এসেছেন৷ তাঁদের মধ্যে ৮ জন সাধারণ সম্প্রদায়ের, আর ৫ জন তফশিলি সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি৷ প্রায় দশ লক্ষ টাকা খরচ করে সরকারি এই সেলুনটি তৈরি করা হয়েছে৷

    চাক্কিলিয়ান সম্প্রদায়ের মানুষকে স্থানীয় সেলুনগুলিতে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে না বলে এ মাসের শুরুতেই অভিযোগ সামনে এসেছিল৷ ভাট্টাভাড়া পঞ্চায়েত এলাকায় চাক্কিলিয়ান সম্প্রদায়ের প্রায় ২৭০টি পরিবারের এর পর স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশই সরকারি সেলুন খোলার জন্য দাবি জানিয়ে পঞ্চায়েতের কাছে আবেদন করেছিল৷

    অভিযোগ পাওয়ার পর গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করা হয়৷ জাতপাতের ভিত্তিতে পরিষেবা দেওয়ার অভিযোগে দু'টি সেলুনের লাইসেন্সও বাতিল করা হয়৷ শেষ পর্যন্ত সরকারি সেলুন খোলার সিদ্ধান্ত নেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যরা৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: