পুরনো মামলাতেই জ্যোতিরাদিত্যকে প্যাঁচে ফেলার চেষ্টা, তৎপর কমল নাথ সরকার

পুরনো মামলাতেই জ্যোতিরাদিত্যকে প্যাঁচে ফেলার চেষ্টা, তৎপর কমল নাথ সরকার
জ্যোতিরাদিত্যর বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা শুরু। PHOTO- PTI

কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পরই বৃহস্পতিবার পুরনো এই মামলাটিতে ফের তদন্তে নেমেছে মধ্যপ্রদেশের আর্থিক অপরাধ দমন শাখা।

  • Share this:
 

#ভোপাল: এ যেন চেনা চিত্রনাট্য। বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই জ্য়োতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার বিরুদ্ধে সক্রিয় হলো সেরাজ্যের কংগ্রেস সরকার। প্রাক্তন কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে জমি দখল করে নেওয়ার অভিযোগে পুরনো একটি মামলার ফের নতুন করে তদন্ত শুরু করেছে মধ্যপ্রদেশের আর্থিক অপরাধ শাখা। ২০১৪ সালে এই মামলাটি দায়ের হয়েছিল তৎকালীন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্যর বিরুদ্ধে। যদিও ২০১৪ সালে এই মামলাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পরই বৃহস্পতিবার পুরনো এই মামলাটিতে ফের তদন্তে নেমেছে মধ্যপ্রদেশের আর্থিক অপরাধ দমন শাখা। সুরেন্দ্র শ্রীবাস্তব নামে এক ব্যক্তির দায়ের করা সেই অভিযোগের সত্যতা যাচাই করে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের আর্থিক অপরাধ দমন শাখার আধিকারিকরা। অভিযোগ অনুযায়ী, কাগজপত্র জাল করে একটি জমি বিক্রি কের দিয়েছিলেন জ্য়োতিরাদিত্য। আর্থিক অপরাধ দমন শাখার এক আধিকারিক সংবাদস্থা পিটিআই-কে জানিয়েছেন, 'সুরেন্দ্র শ্রীবাস্তবের দায়ের করা অভিযোগের সত্যতা পুনরায় যাচাই করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।'

ওই আধিকারিকের আরও দাবি, বৃহস্পতিবারই অভিযোগকারী সুরেন্দ্র শ্রীবাস্তব ফের একবার তাঁর অভিযোগ খতিয়ে দেখার আর্জি জানিয়ে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এর পরই ফের অভিযোগের সত্যতা পুনরায় খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সিন্ধিয়ার ঘনিষ্ঠ নেতা পঙ্কজ চতুর্বেদীর অবশ্য দাবি, গোটাটাই রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে করছেন কমল নাথ সরকার। তিনি বলেন, 'প্রমাণের অভাবে এই মামলাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে সেই মামলাই ফের খোলা হচ্ছে। সংবিধান এবং আইনের উপরে আমাদের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমরা ন্যায় পাবই এবং কমল নাথ সরকারকে এর যোগ্য জবাব দেব।'

 
First published: March 13, 2020, 5:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर