সোনা আছে,স্পনসর নেই- হাল ছাড়ছেন না দুই তাসুরে বুড়ো

সোনা আছে,স্পনসর নেই-  হাল ছাড়ছেন না দুই তাসুরে বুড়ো
  • Share this:

Eeron Ray Barman 

#কলকাতা: সোনা আছে, কিন্তু স্পনসর নেই। ফলে সেই নিজেদের উদ্যোগে শুরু হয়েছে প্রস্তুতি। ফের জুটি বেঁধে এশিয়ান গেমসে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন এশিয়াডে ব্রিজ প্রতিযোগিতায় সোনা জয়ী দুই বাঙালি প্রণব বর্ধন ও শিবনাথ দে সরকার। জাতীয় ব্রিজ  প্রতিযোগিতার আসর হয়ে গেলো কলকাতায়। সেখানেই জুটি বেঁধে খেললেন এই দুই জন।

টুর্নামেন্টের রানার্স হলেন প্রণব বর্ধন ও শিবনাথ দে সরকার। এশিয়ান গেমস এর পর গত এক বছরে মাত্র দুটি টুর্নামেন্টই একসঙ্গে নামতে পেরেছিলেন এই দুজন। সাফল্য এসেছিল। তবে ব্যস্ততা বাড়ায় সেভাবে সব জায়গায় একসঙ্গে নামা হচ্ছে না। তবে সুযোগ পেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে আসরের নামলেন সবচেয়ে বেশি বয়সে এশিয়ান গেমসের সোনাজয়ী প্রণব বর্ধন ও শিবনাথ দে সরকার। জাকার্তা এশিয়াডে সোনা জয়ের পর মিলেছিল দেদার সম্মান। জায়গায় জায়গায় সংবর্ধনা। পুজো উদ্বোধনের প্রস্তাব। সরকারি সাহায্যের আশ্বাস। প্রচারের আলো দেখেছিল ব্রিজ খেলা। তাস খেলা আগে সেভাবে বাড়ির লোকেরা পছন্দ না করলেও প্রণব, শিবনাথের কীর্তির পর বেশিরভাগ পরিবারই তাদের সন্তানদের ব্রিজ খেলায় উৎসাহ দিতে শুরু করেন। ফলে ব্রিজ প্রতিযোগিতায় যে একমাত্র বেশি বয়সে অবসরে খেলা এমনটা নয়। প্রণব,শিবনাথদের দেখে অনেক স্কুল-কলেজের পড়ুয়ারাও ব্রিজ খেলতে উৎসাহী হন। বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ব্রিজ শেখানোর জন্য ডাক পান হাওড়ার শিবনাথ দে সরকার।

BRIDGE 03

বাংলাদেশে গিয়ে কাজ করার সুযোগ আসে প্রণব বর্ধন ও শিবনাথ দে সরকারের কাছে। কিন্তু ব্রিজ খেলা প্রচারের মুখ দেখলেও স্পনসরের মুখ দেখেনি এখনো। সরকারের প্রতিশ্রুতি থাকলেও সেভাবে আর্থিক সাহায্য মেলেনি বলে দাবি করেন বাংলার প্রতিভাবান ব্রিজ খেলোয়াড়রা। পরবর্তী এশিয়ান গেমসে যাওয়ার জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি প্রয়োজন। 61 তম জাতীয় গেমসে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স দুই দলই সুযোগ পাবেন জাতীয় ক্যাম্পের জন্য। সেখান থেকে প্রস্তুতির জন্য প্রয়োজন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ। কিরে সেখানেই সমস্যা পড়েছেন প্রণব বর্ধন, শিবনাথ দে সরকার। ব্যক্তিগত উদ্যোগে কিছু স্পনসর যোগাড় হলেও সেভাবে বড় স্পনসর এখনো মেলেনি।

BRIDGE 02

এই নিয়ে প্রণব বর্ধন জানান, ‘শিবনাথ এর সঙ্গে দীর্ঘদিনের জুটির আমার। আমরা এশিয়ান গেমসের পর সেভাবে একসঙ্গে খেলার সুযোগ না পেলেও সময় পেলেই আমি নিজেদের জুটি নিয়ে আলোচনা করেছি। জাতীয় গেমসে একসঙ্গে জুটি বাধলাম পরবর্তী এশিয়াডের কথা মাথায় রেখে। দীর্ঘদিনের পার্টনার হওয়ায় শিবনাথ আর আমার মধ্যে বোঝাপড়াটা অনেক ভালো। তবে প্রস্তুতির জন্য বিদেশ সফরে যে টাকার প্রয়োজন সেটা জোগাড় করতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে।’ প্রণব বর্ধনের পার্টনার শিবনাথ দে সরকারের মতে, ‘এটা ঠিকই এশিয়ান গেমসের পর তাসের ব্রিজ খেলা প্রচার হয়েছে ঠিকই। কিন্তু স্পনসর করার মত কেউ সেভাবে এগিয়ে আসেন নি। ফলের নিজেরা শিখিয়ে যে টাকা অর্জন করতে হয় সেই টাকাগুলো দিয়েই আমাদের সফরে খরচ করতে হয়। চীনসহ বিভিন্ন দেশে প্রতিনিধিদের সঙ্গে টেক্কা দিতে ভালো প্রস্তুতির প্রয়োজন। সেটা এখন থেকেই শুরু করা উচিত।’

আরও পড়ুন - Ind vs WI: মুখ থুবড়ে গেল টিম ইন্ডিয়ার জয়রথ, প্রথম একদিনের ম্যাচে ওয়েস্টইন্ডিজ জিতল ৮ উইকেটে

জাকার্তা এশিয়াডে এই সোনা দুই বাঙালি স্বপ্ন ভবিষ্যতে ব্রিজ খেলা শেখানোর জন্য একটি একাকাডেমী গড়বেন। সে ক্ষেত্রে তাদের আরজি একটি বড় কনফারেন্স রুমের মত জায়গা পেলেও তারা সেই কাজটা সম্পন্ন করতে পারেন। এখন দেখার প্রণব,শিবনাথদের আবেদন শুনে কেউ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন কিনা। নাকি সেই চেনা ছবি ধরা পড়ে দেশের ছোট খেলা গুলোর ক্ষেত্রে এই ক্ষেত্রেও। তুবও এখনই হল ছাড়ছেন না দুই তাসুরে বুড়ো। হেডলাইন - সোনা আছে, স্পনসর নেই। হাল ছাড়ছেন না দুই তাসুরে বুড়ো।।

First published: 10:37:34 PM Dec 15, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर