Home /News /national /
Nirmala Sitharaman Exclusive: কেন বাজেটে অপরিবর্তিত করের হার? ব্যাখ্যা করলেন নির্মলা সীতারমণ

Nirmala Sitharaman Exclusive: কেন বাজেটে অপরিবর্তিত করের হার? ব্যাখ্যা করলেন নির্মলা সীতারমণ

বাজেট পেশ করছেন নির্মলা৷ Photo-ANI

বাজেট পেশ করছেন নির্মলা৷ Photo-ANI

নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman Exclusive) জানান, ভারতকে $৫ ট্রিলিয়ন অর্থনীতিতে পরিণত করার দিকে যে গতি এসেছিল তা করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে কিছুটা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার বাজেট পেশ করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। ২০২২-২৩ অর্থবর্ষের কেন্দ্রীয় বাজেট (Union Budget 2022) বেতনভুক্ত শ্রেণিকে হতাশ করেছে বলেই মত অর্থনীতিবিদদের একাংশের কারণ এই বাজেটে করের হার অপরিবর্তিত রয়েছে। নেটওয়ার্ক ১৮-এর প্রধান সম্পাদক রাহুল যোশির সঙ্গে একটি একান্ত সাক্ষাত্কারে (Nirmala Sitharaman Exclusive) নির্মলা সীতারমণ এই পদক্ষেপের পিছনে নিজের যুক্তি দেখিয়ে জানিয়েছেন, এই সময়ে করের স্থিতিশীলতা বজায় রাখা এবং পূর্বাভাস মেলাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

    আরও পড়ুন- কী কী পরিবর্তন আনা হল ট্যাক্স রিটার্নের ক্ষেত্রে ?

    “করের স্থিতিশীলতা এবং ভবিষ্যতে কী হতে পারে এটা অন্তত নিশ্চিত করছে যে জনগণের অর্থনৈতিক পরিকল্পনাগুলো প্রভাবিত হচ্ছে না,” বলেন অর্থমন্ত্রী। নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman Exclusive) আরও জানান, চাহিদা তৈরির বেশ কিছু উপায় রয়েছে।

    “ভারতে করদাতাদের সংখ্যা এবং শ্রেণি দেখলে আপনি বুঝতে পারেন যে ট্যাক্স ব্যবস্থায় স্থিতিশীলতা এবং বিশ্বাসযোগ্যতা প্রদান করা সম্ভব। অনিশ্চয়তার বিষয় কেউই আনতে চায় না। কারও বোঝা না বাড়িয়ে, আমরা তাদের আরও ভালো পরিকল্পনা করার দিশা দেখাতে পারি। তাই আমরা স্থিতিশীলতার বিষয়টিকে এত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেছি,” বলেন তিনি।

    আরও পড়ুন- ডিজিটাল কারেন্সিকে স্বীকৃতি দেবে রিসার্ভ ব্যাঙ্ক

    নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman Exclusive) জানান, ভারতকে $৫ ট্রিলিয়ন অর্থনীতিতে পরিণত করার দিকে যে গতি এসেছিল তা করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে কিছুটা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে এবং সরকারের বিশ্বাস এই বাজেটে করের নীতি $৫ ট্রিলিয়ন লক্ষ্যে পৌঁছতে সহায়তা করবে।

    “তবে আমাদের নিশ্চিত করতে হবে যে আমরা করের হার, নীতি এসবে খুব বেশি ব্যাঘাত যাতে না দিই, তাহলেই একমাত্র আমরা $৫ ট্রিলিয়ন লক্ষ্যে পৌঁছতে পারব,” বলেন নির্মলা।

    বর্তমানে, যাদের বার্ষিক করযোগ্য আয় ২.৫ লাখ টাকা পর্যন্ত তাদের আয়কর দিতে হবে না। ৫ লাখ টাকার নিচে যারা, তারা সম্পূর্ণ ছাড় পাবেন। ২.৫ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকার মধ্যে যাদের আয় তাদের ১০ শতাংশ, ৫-১০ লক্ষ টাকা আয়ের ব্যক্তিদের ২০ শতাংশ এবং ১০ লক্ষ টাকার উপরে আয় যাদের তাদের ৩০ শতাংশ কর দিতে হবে। কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করার সময় প্রত্যক্ষ কর এবং আয়কর স্ল্যাবের বিষয়ে মহাভারতের শান্তি পর্বের একটি শ্লোক পাঠ করেন নির্মলা।

    শান্তিপর্বের এই শ্লোকটির রচয়িতা মহর্ষি শ্রীকৃষ্ণদ্বৈপায়নবেদব্যাস। পর্বটিতে হস্তিনাপুরে যুধিষ্ঠিরের রাজ্যাভিষেক ও প্রজাপালনের কাহিনী বর্ণিত রয়েছে।

    ১১ তম শ্লোকে বলা হয়েছে, “দাপয়িত্বাকারণধর্ম্যণ্ত্রাণিত্যতাবিধি | আশেশঙ্কল্পেদ্রাযযোগক্ষেমানাতন্দ্রিতঃ ||”

    সংস্কৃত শ্লোকটির বাংলায় অর্থ হয়, “রাজাকে সর্বদাই যে কোনও লঘু নিয়ম ত্যাগ করতে হবে। ধর্মের শাসন প্রবর্তন করে সামঞ্জস্যপূর্ণ কর সংগ্রহের মাধ্যমে জনগণের কল্যাণের ব্যবস্থা করতে হবে।” শ্লোক পাঠ করার পরে অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, “আমাদের প্রাচীন গ্রন্থগুলি থেকে আমরা জ্ঞান অর্জন করি এবং অগ্রগতির পথে এগোতে থাকি। এই বাজেটের প্রস্তাবগুলি, স্থিতিশীল এবং কর ব্যবস্থা আমাদের ঘোষিত নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। আমরা সংস্কারের পথেই হাঁটতে চলেছি। এটি কর ব্যবস্থাকে আরও সহজ করবে।"

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: FM Nirmala Sitaraman, Union Budget 2022

    পরবর্তী খবর