হাজার অজুহাত দিয়েও জিততে পারলেন না এপি সিং! ‌দেশের মেয়েদের হয়ে লড়ে জিতলেন সীমা‌

হাজার অজুহাত দিয়েও জিততে পারলেন না এপি সিং! ‌দেশের মেয়েদের হয়ে লড়ে জিতলেন সীমা‌

দেশের শীর্ষ আদালতের এই মধ্যবয়ষ্ক আইনজীবী দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করছেন নির্ভয়ার হয়ে

  • Share this:

#‌নয়া দিল্লি: গোটা দেশ একসঙ্গে হয়ে গিয়েছিল, নির্ভয়ার জন্য। আর আদালতে নির্ভয়ার হয়ে লড়ছিলেন সীমা কুশওয়া। দেশের শীর্ষ আদালতের এই মধ্যবয়ষ্ক আইনজীবী দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করছেন নির্ভয়ার হয়ে। বারবার তিনি নির্ভয়ার ধর্ষকদের চরম শাস্তির দাবি করে এসেছেন। কিন্তু মাঝের লড়াইয়ে বারবার অজুহাত খাড়া করছিলেন অপরাধীদের আইনজীবী এপি সিং। শীর্ষ আদালত বারবার ফাঁসির সাজা শোনালেও এপি সিং একের পর এক পথ খুঁজে বার করছিলেন। সীমা একাধিক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, এভাবে ন্যায়বিচারের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে অপরাধীরা। ইচ্ছা করে দেরি করছে। কিন্তু ভারতের ন্যায়বিচার এসবের সুযোগ দেয়। শেষ পর্যন্ত সেই সমস্ত সুযোগ পেয়েছে অপরাধীরা। কিন্তু ন্যায়বিচারে কাছে হেরে গিয়েছে।

এপি সিং বিখ্যাত তাঁর বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য। শুনানি চলাকালীন তিনি বলেছিলেন যে যদি তাঁর মেয়ে নির্ভয়ার মতো রাতে একা বাইরে থাকত, তাহলে তিনি তাঁকে পুড়িয়ে মারতেন। এত ঘৃণ্য মন্তব্যের পরেও লড়াইয়ে দাঁতে দাঁত চেপে পড়েছিলেন সীমা। একজন মহিলা হয়ে তিনি লড়েছিলেন আরেক মহিলার জন্য। দিনের পর দিন, শুনানির তারিখের পর তারিখ এসেছে, তিনি লড়াইয়ের ময়দান ছাড়েননি। বারবার তিনি বলেছিলেন, অপরাধীরা যদি চায়, তাহলে তারা আগেই ক্ষমা প্রার্থনা করতে পারত। এতদিন কেন সময় নিল তারা?‌ কিন্তু এই পথেও আসলে বিচারকে পিছিয়ে দিতে চেয়েছিলেন এপি সিং। সেটা বুঝতে পেরেও কিছু করার ছিল না সীমার।

ফাঁসির দিন সকালে নির্ভয়ার মা আশা দেবীর সঙ্গে এসেছিলেন সীমা কুশওয়াও। তিনি বেরিয়ে এসে বলেছেন, আজ দেশের মেয়েরা ন্যায়বিচার পেয়েছে। এতদিন ধরে আমরা যে লড়াই লড়েছি, আজ তাঁর বৃত্ত আজ সম্পূর্ণ হল।

First published: March 20, 2020, 7:17 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर