এখনও অধরা গৌরী লঙ্কেশের খুনিরা, তদন্তে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

এখনও অধরা গৌরী লঙ্কেশের খুনিরা, তদন্তে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য
Gauri Lankesh

জট কাটেনি গৌরী লঙ্কেশ খুনের। ৪৮ ঘণ্টারও বেশি সময় পার, খুনীরা এখনও নাগালের বাইরে।

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: জট কাটেনি গৌরী লঙ্কেশ খুনের। ৪৮ ঘণ্টারও বেশি সময় পার, খুনীরা এখনও নাগালের বাইরে। এমনকি খুনের মোটিভ নিয়েও নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। এরকম একটা পরিস্থিতিতে খুনের তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে দেওয়ার দাবি জোরাল হচ্ছে। বৃহস্পতিবার নিহত সাংবাদিকের বাড়ি থেকে কিছু প্রিন্টআউট ও দুটি ডায়েরি সংগ্রহ করেছেন গোয়েন্দারা। খুনীদের ধরতে সিসিটিভির ফুটেজের উপরই ভরসা করছে পুলিশ।

সূত্র খুঁজছেন গোয়েন্দারা। মিসিং লিংকগুলো মেলাতে চাইছেন। আর তাই গৌরী লঙ্কেশের বেঙ্গালুরুর ফ্ল্যাটে দীর্ঘক্ষণ তদন্ত চালালেন সিটের সদস্যরা। নিহত সাংবাদিকের বেশ কিছু প্রিন্ট আউট ও দুটি ডায়েরি সংগ্রহ করেন তদন্তকারীরা। প্রতিদিন ডায়েরি লেখার অভ্যাস ছিল গৌরী লঙ্কেশের। ডায়েরির পাতা থেকেই খুনির ব্যাপারে তথ্য মিলতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ।

কেউ বা কারা তাঁকে দিনরাত চোখে চোখে রাখছে, ফলো করছে। কয়েকদিন আগে মায়ের কাছে এরকম আশঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন গৌরী। কিন্তু পুলিশে কোনও অভিযোগ জানাননি। গত দু-দিনের তদন্তে উঠে এসেছে বেশ কয়েকটি তথ্য

বাসবনাগুড়ি থেকে রাজারাজেশ্বরী নগরে নিজের বাড়িতে ফিরতেন গৌরি লঙ্কেশ

এই রাস্তায় সব সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে

Loading...

আততায়ীরা ভুল করে বাড়ির পিছনে চলে যায়

গৌরীর গাড়ি আসতে দেখে সামনে চলে আসে

সোর্স নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়েও রহস্যভেদের করতে চাইছে পুলিশ।

গৌরি লঙ্কেশ খুনের ছক কষা হয়েছিল বেশ কিছুদিন ধরে।

লঙ্কেশ খুনে সুপারি কিলারদের কাজে লাগানো হয় সন্দেহ পুলিশের

খুনের আগে ৭ থেকে ৮ দিন ধরে ফলো করা হয়েছিল

হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিও এর পিছনে থাকতে পারে বলে সন্দেহ

সূত্রের খবর, গৌরি লঙ্কেশের মৃত্যুর পর থেকেই তার ভাই-বোনের মধ্যে মতবিরোধ চরমে।

যদি ভাইয়ের দাবি অনেকটাই আলাদা। ইন্দ্রজিত লঙ্কেশ জানিয়েছেন, মাওবাদীরাই গৌরীকে খুন করেছে। ওদের ব্যাপারে মাথা না গলাতে হুমকি দিত। এমনকি খুনের হুমকিও দিয়েছিল।

খুনের তদন্ত সিবিআইয়ের হাতে দেওয়ার দাবি তুলেছে পরিবার। মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়ার আশ্বাস, খুব তাড়াতাড়ি ধরা পড়বে গৌরী লঙ্কেশের খুনীরা।

First published: 09:35:09 AM Sep 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर