হোম /খবর /দেশ /
পর পর দু'রাউন্ড গুলি, বুকে হাত দিয়ে লুটিয়ে পড়লেন মন্ত্রী, প্রকাশ্যে ভিডিও

Odisha Health MInister:পর পর দু'রাউন্ড গুলি, বুকে হাত দিয়ে গাড়িতে লুটিয়ে পড়লেন মন্ত্রী, প্রকাশ্যে ভিডিও

মন্ত্রীকে মালা পরানোর নামে খুব থেকে নিজের সার্ভিস রিভলভার থেকেই পর পর ২টো গুলি করেন অভিযুক্ত পুলিশকর্মী। তাঁকে গ্রেফতার করে জি়জ্ঞাসাবাদ চলছে। মন্ত্রীর অবস্থা সঙ্কটজনক।

  • Share this:

ওড়িশা: রবিবার ঝাড়সুগুড়ায় বিজেডি-র একটি দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করতে যাচ্ছিলেন ওড়িশার স্বাস্থ্যমন্ত্রী নবকিশোর দাস। বেলা সাড়ে ১২ টা নাগাদ মন্ত্রীর কনভয়ের একের পর এক গাড়ি এসে থামছিল গান্ধি ছকো এলাকায়। মন্ত্রীর গাড়িও একসময় এসে পৌঁছয় সেখানে। গাড়ি থেকে নামতে যান মন্ত্রী। আশাপাশ তখন স্লোগানে স্লোগানে মুখর। মন্ত্রীকে মালা পরানোর জন্য এগিয়ে আসেন একজন। আর তারপর, মন্ত্রীর বুক লক্ষ্য করে পর পর ২টো গুলি। বুকে হাত দিয়ে রক্তাক্ত অবস্থাতেই গাড়ির ভিতরে লুটিয়ে পড়েন ওড়িশার স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

রবিবার পুলিশের হাতেই গুলিবিদ্ধ হন ওড়িশার নবীন পট্টনায়েক সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নবকিশোর দাস। ঝাড়সুগুড়া জেলার একটি অনুষ্ঠানে পৌঁছনো মাত্রই তাঁকে গুলি করেন এক এএসআই। সম্প্রতি সামনে এসেছে ঘটনার একটি ভিডিও।

ওড়িশার ব্রজরাজনগরের এসডিপিও গুপ্তেশ্বর ভয় জানিয়েছেন, সে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঝাড়সুগুড়ায় একটি অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। তখনই তাঁকে লক্ষ্য করে হঠাৎ গুলি চালান অ্যাসিসট্যান্ট সাব ইনস্পেক্টর পদমর্যাদার পুলিশকর্মী গোপাল দাস।

ঘটনার পরে সঙ্গে সঙ্গেই আহত মন্ত্রীকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁকে এয়ারলিফট করে নিয়ে যাওয়া হয় ভুবনেশ্বরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে। নবকিশোরের অবস্থা সঙ্কটজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

নবকিশোরকে দেখতে এদিন হাসপাতালে পৌঁছন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক। ঘটনার আকস্মিকতায় স্তম্ভিত মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে শোনা যায়, "আমি শোকাহত। স্তম্ভিত। ঘটনার তীব্র নিন্দা করি। প্রার্থনা করি যাতে উনি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন।" এদিন হাসপাতালে গিয়ে নবকিশোরের আত্মীয়দেরও সান্ত্বনা দিতে দেখা যায় তাঁকে।

[playlist type="video" ids="980144"]

আরও পড়ুন: ওড়িশার স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে খুব কাছ থেকে গুলি, পাকড়াও পুলিশকর্মী, এলাকায় উত্তেজনা

ঘটনার পরেই তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। গুলির ঘটনার প্রতিবাদে এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন বিজেডি কর্মী সমর্থকেরা।

প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, গোটা ঘটনাটাই পূর্ব পরিকল্পিত। ওইদিন মন্ত্রীর নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীদের মধ্যে অভিযুক্ত এএসআই গোপাল দাসের নাম ছিল না। তা সত্ত্বেও তিনি সেখানে গিয়েছিলেন এবং নিজের সার্ভিস রিভলভার থেকেই পর পর ২ রাউন্ড গুলি করেন মন্ত্রীকে। এরপরে গোপাল দাস আরও একজনকে গুলি করতে যাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। কিন্তু তার আগেই তাঁকে ধরে ফেলেন উপস্থিত বাকি পুলিশকর্মীরা। তাঁকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ডিউটি না থাকা সত্ত্বেও গোপাল কেন ঝাড়সুগুড়া গিয়েছিলেন? তিনি নিজে এই কাজ করেছেন, না কেউ তাঁকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছে, এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: এবার কি মোঘলাই পরোটার নামও বদলে দেবে বিজেপি? নামবদলের রাজনীতি নিয়ে কটাক্ষ তৃণমূলের

গত কয়েকদিন ধরেই খবরের শিরোনামে ছিলেন প্রবীণ এই বিজেডি নেতা নবকিশোর দাস। সম্প্রতি, মহারাষ্ট্রের একটি মন্দিরে ১ কোটিরও বেশি টাকা খরচ করে ১.৭ কেজির একটি সোনার কলস এবং ৫ কেজি রূপো দান করেছিলেন এই মন্ত্রী।

চব্বিশের নির্বাচনের আগে সে রাজ্যের মন্ত্রীর উপরে এভাবে গুলি চালনার ঘটনা যথেষ্ট উদ্বেগজনক বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। কারণ, নির্বাচনের আগে ওড়িশায় হিংসার ইতিহাস বহু পুরনো।

Published by:Satabdi Adhikary
First published:

Tags: Odhisha, Odisha