‘গণতন্ত্রের লজ্জা’ JNU -র ঘটনায় ট্যুইট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, রিপোর্ট চাইলেন অমিত শাহ

‘গণতন্ত্রের লজ্জা’ JNU -র ঘটনায় ট্যুইট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, রিপোর্ট চাইলেন অমিত শাহ

হামলার অভিযোগ ABVP -র দিকে...ঘটনার নিন্দায় মুখর গোটা দেশ

  • Share this:

#নয়াদিল্লি : জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের ওপর হামলার ঘটনায় প্রতিবাদে সরব দেশের সব প্রান্তের মানুষ ৷ রাজনৈতিক নেতা থেকে সংস্কৃতি দুনিয়ার তারকারা সকলেই নিগৃহত পড়ুয়াদের প্রতি সমবেদনা ব্যক্ত করার পাশাপাশি ঘৃণ্য ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন ৷ এই ঘটনার পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইট ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ৷

নিজের ট্যুইটে মমতা লিখেছেন , আমরা কড়াভাবে এই বর্বরোচিত ঘটনার নিন্দা করি ৷ জেএনইউতে শিক্ষক ও ছাত্রদের ওপর যেভাবে হামলা হয়েছে তা নক্কারজনক ৷ গণতন্দ্রের লজ্জা ৷ তৃণমূলের প্রতিনিধি দল দীনেস ত্রিবেদীর নেতৃত্বে দিল্লিতে রওনা হয়েছে ৷

 

মমতা বন্দ্যেপাধ্যায় ছাড়া রাহুল গান্ধি, শশী থারুর, অরবিন্দ কেজরিওয়ালরাও ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন ৷ সকলেই নিজের মত সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন ৷ তালিকায় রয়েছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনও৷

ফ্যাসিস্টদের হাতে শাসনভার এমনটাই দাবি বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের ৷ অন্যদিকে কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থমন্ত্রীর মতে যা ঘটেছে তা নক্কারজনক , শিক্ষাঙ্গনে এ ঘটনা কখনই কাম্য নয় ৷ এদিকে বিজেপির পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্যুইট করে এই ঘটনার নিন্দা করা হয়েছে ৷ একাধিক ব্যক্তি যারা মুখ ঢেকে পড়ুয়া ও শিক্ষকদের ওপর হামলা চালানোর মতো নক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের নিয়ে উত্তাল গোটা দেশ ৷ দিল্লি কমিশনারের কাছে অমিত শাহ এই গোটা ঘটনার রিপোর্ট চেয়েছেন ৷

বিজেপি অবশ্য নিজেদের ট্যুইটে এও দাবি করেছে ছাত্রদের নিজেদের উদ্দেশ্য সাধনের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে ৷ সমস্ত কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের পাশাপাশি রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও এই ঘটনার পর ট্যুইট করেছেন ৷

First published: 11:07:09 PM Jan 05, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर