• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • এবার মাহিন্দ্রা দিচ্ছে বিনামূল্যে ১ লক্ষ টাকার করোনা-বিমা, কী কিনলে, জেনে নিন

এবার মাহিন্দ্রা দিচ্ছে বিনামূল্যে ১ লক্ষ টাকার করোনা-বিমা, কী কিনলে, জেনে নিন

বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের গ্রাহক বা ক্রেতারাই পাবেন এই বিমার সুবিধা

বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের গ্রাহক বা ক্রেতারাই পাবেন এই বিমার সুবিধা

বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের গ্রাহক বা ক্রেতারাই পাবেন এই বিমার সুবিধা

  • Share this:

গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির মধ্যে পিক-আপ সেগমেন্টে দেশের অন্যতম সেরা সংস্থা হল মাহিন্দ্রা। এ বার গ্রাহকদের কথা ভেবে এক নতুন পদক্ষেপ করল এই সংস্থা। ক্রমবর্ধমান করোনা সংক্রমণ ও দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে চালু করা হল করোনা ইনসিওরেন্স বা করোনা বিমা। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছ, বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের গ্রাহক বা ক্রেতারাই পাবেন এই বিমার সুবিধা। এ ক্ষেত্রে গ্রাহক ও তাঁর পরিবারকে প্রায় ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য বিমার পরিষেবা প্রদান করা হবে। নতুন গাড়ি কেনার পর সাড়ে নয় মাস পর্যন্ত বৈধ থাকবে এই বিমা।

এই করোনা ইনসিওরেন্স দেওয়ার জন্য সম্প্রতি ওরিয়েন্টাল ইনসিওরেন্স কোম্পানির সঙ্গে গাটছড়া বেঁধেছে মাহিন্দ্রা। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, শুধুমাত্র বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের ক্ষেত্রেই এই বিমার সুবিধা পাওয়া যাবে। এ ক্ষেত্রে ১ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বোলেরো পিক-আপ রেঞ্জের বোলেরো পিক-আপ, বোলেরো ম্যাক্সি ট্রাক, বোলেরো সিটি পিক-আপ, বোলেরো ক্যাম্পার গাড়িগুলিতে বিমা পাবেন গ্রাহকরা।

মাহিন্দ্রার ৭৫ বছরে এই সংস্থার গ্রাহক, কর্মী, অংশীদার থেকে শুরু করে পুরো কমিউনিটির ক্ষেত্রে এই বিমা একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ। এমনই জানাচ্ছেন মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা লিমিটেডের অটোমোটিভ ডিভিশনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট সতিন্দর সিং বাজওয়া। তাঁর কথায়, পিক-আপ রেঞ্জের কাস্টমার বা গ্রাহকরা সর্বদা নানা কাজে ব্যস্ত থাকেন। জরুরি পরিষেবার সূত্রে নানা প্রান্তে ছুটে যেতে হয় তাঁদের। পণ্য পরিবহনসহ একাধিক কাজে বহু এলাকার মানুষজনের সঙ্গে কথা বলতে হয়। ফলে ভিড় এড়ানো তাঁদের পক্ষে প্রায় অসম্ভব। যা কোথাও না কোথাও সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়। তাই পিক-আপ সেগমেন্টের বাজারে অন্যতম নেতৃত্ব হিসেবে এই মানুষজনের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে মাহিন্দ্রা। এই কঠিন পরিস্থিতিতে এই ধরনের বিমা চালক তথা গ্রাহকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি মানসিক শান্তির বিষয়টিও সুনিশ্চিত করবে বলেই আশা সংস্থার।

কিন্তু কী ভাবে পাওয়া যাবে এই করোনা ইনসিওরেন্স বা বীমা? এ ক্ষেত্রে গ্রাহক ও তাঁর পরিবারকে নাম, জন্মের তারিখ ও ঠিকানাসংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য দিয়ে নাম নথিভুক্ত করতে হবে। প্রসঙ্গত, চালক বা তাঁর পরিবারের কোনও সদস্য করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর যদি হোম কোয়ারান্টিনে থাকেন বা হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়, তা হলেই বিমার সুবিধা পাওয়া যাবে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: