• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কি সফল মোদি? কোন দিকে ভোটারদের TRUST? ফার্স্টপোস্ট-নিউজ 18 বাংলার সমীক্ষা

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কি সফল মোদি? কোন দিকে ভোটারদের TRUST? ফার্স্টপোস্ট-নিউজ 18 বাংলার সমীক্ষা

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসে কেমন কাজ করেছেন নরেন্দ্র মোদি? গত পাঁচ বছরে তাঁর জনপ্রিয়তা বেড়েছে নাকি মোদি হাওয়ায় ভাঁটার টান? পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবেই বা কার কথা ভাবছেন দেশের মানুষ? ইঙ্গিত মিলল ফার্স্টপোস্ট ও নিউজ এইটিন বাংলার দ্য ন্যাশনাল ট্রাস্ট সার্ভে ২০১৯-এ।

    পাঁচ বছর আগে, দেশবাসীকে সুদিনের স্বপ্ন দেখিয়ে দিল্লির মসনদে বসেছিলেন নরেন্দ্র মোদি। পাঁচ বছর পর বিরোধীরা বলছেন, সুদিন তো আসেইনি। উলটে আরও গাড্ডায় গিয়েছে দেশ। কালো টাকা ফেরেনি। ভারত স্বচ্ছও হয়নি। বরং নোটবন্দি টেনে নামিয়েছে দেশের অর্থনীতিকে। এসব তো বিরোধীরা বলছেন। কিন্তু দেশের জনতা কী বলছেন? ভোটের মুখে প্রধানমন্ত্রী মোদির কাজের মূল্যায়ন কীভাবে করছেন ভোটাররা?

    - ২১.৭% মানুষ বলছেন খুব ভাল কাজ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ভাল কাজ করেছেন বলে মত ৪৫.৪ শতাংশের। মোটামুটি কাজ করেছেন বলে মত ১৯.৩% মানুষের। খারাপ বলছেন ৯.৬ শতাংশ। ৩.৯ শতাংশ প্রতিক্রিয়া দেননি।

    গত পাঁচ বছরে মোদির জনপ্রিয়তা বেড়েছে নাকি ভোটের মুখে মোদি ম্যাজিকে ভাঁটার টান?

    ২০১৪-র তুলনায় প্রধানমন্ত্রী মোদি আজ আরও জনপ্রিয়?

    - সমীক্ষায় ৬৬% ভোটার বলেছেন মোদির জনপ্রিয়তা বেড়েছে। আর মোদির জনপ্রিয়তা কমেছে বলে মনে করছেন ১৫% ভোটার।

    কোন রাজনৈতিক ব্যক্তির উপর মানুষের সবচেয়ে বেশি TRUST?

    - এবছর জানুয়ারির সমীক্ষা অনুযায়ী নরেন্দ্র মোদির ওপর ট্রাস্ট রেখেছিলেন ৬৭.৫% মানুষ। আর রাহুল গান্ধির ওপর ট্রাস্ট ছিল ৪৯% মানুষের। এপ্রিলের সমীক্ষা অনুযায়ী, মোদির ওপর ট্রাস্ট বেড়ে হয়েছে ৭১.১%। রাহুলের ওপর ট্রাস্ট কমে হয়েছে ৪৩.২%।

    কে হবেন দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী? মানুষের পছন্দ কী?

    - জানুয়ারির সমীক্ষায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ৫২.৮% মানুষের পছন্দ ছিলেন নরেন্দ্র মোদি। এপ্রিলের সমীক্ষায় তা বেড়ে হয়েছে ৬৩.৪%। জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রী পদে রাহুল গান্ধি ভোট পেয়েছিলেন ২৬.৯% মানুষের। এপ্রিলে তা কমে হয়েছে ১৬.১%। জানুয়ারিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পছন্দ ছিল ৪.২% মানুষের। এপ্রিলে তাঁকে প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চান ৩.৪%। জানুয়ারিতে মায়াবতী ভোট পেয়েছিলেন ২.৮ শতাংশ। এপ্রিলে তা কমে হয়েছে ২.২ শতাংশ। প্রিয়ঙ্কা গান্ধি জানুয়ারিতে পেয়েছিলেন ০.৯%। এপ্রিলে তা সামান্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১.৫%।

    নোটবন্দি থেকে জিএসটি, স্বচ্ছ ভারত থেকে কালো টাকা উদ্ধার। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী মোদির উদ্যোগকে কীভাবে দেখছেন ভোটাররা?

    - পাকিস্তানের মোকাবিলায় মোদিকে সফল হিসেবে মানছেন ৭৫ শতাংশ মানুষ। অসফল বলছেন ১৫ শতাংশ। স্বচ্ছ ভারত অভিযানকে সফল বলছেন ৭৯ শতাংশ মানুষ। ১৪ শতাংশের মতে তা অসফল। ৬৯ শতাংশ মানুষ বলছেন কালো টাকা উদ্ধারে সফল মোদি। ২৩ শতাংশ বলছেন কালো টাকা কালোই থেকে গিয়েছে। জনধন যোজনাকে সফল বলছেন ৭৭ শতাংশ। অসফল বলছেন ১৬ শতাংশ। প্রধানমন্ত্রীর উজ্জ্বল যোজনা সফল বলে মত ৮০ শতাংশের। ১৪ শতাংশের মত প্রকল্পটি অসফল। নোটবন্দিকে সফল বলছেন ৭০ শতাংশ মানুষ। তুলনায় অসফল বলছেন ২৩ শতাংশ। GST কার্যকরের ক্ষেত্রে মোদি সফল বলে দাবি ৬৯ শতাংশের। বাইশ শতাংশের মত তা একেবারেই সফল হয়নি।

    First published: