'কাশ্মীরে ইন্টারনেট তো ব্যবহার হত নোংরা সিনেমা দেখার জন্য,' নীতি আয়োগ সদস্যের বিতর্কিত মন্তব্য

'কাশ্মীরে ইন্টারনেট তো ব্যবহার হত নোংরা সিনেমা দেখার জন্য,' নীতি আয়োগ সদস্যের বিতর্কিত মন্তব্য
কাশ্মীরে বন্ধ ইন্টারনেট

তাঁর আরও দাবি, 'কাশ্মীরে ইন্টারনেট বন্ধ রয়েছে৷ কই গুজরাতে তো বন্ধ নেই? কাশ্মীরে ইন্টারনেট বন্ধ থাকার একটা ভিন্ন কারণ রয়েছে৷ কাশ্নীরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখাটা খুব জরুরি৷'

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ৫ মাস পর জম্মু-কাশ্মীরে খুব কম জায়গায় আংশিক ভাবে চালু হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা৷ কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছিল, ৩৭০ ধারা বাতিল ও জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার পর কাশ্মীরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতেই ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে৷ ইন্টারনেট বন্ধ থাকার জেরে কাশ্মীরের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে কতটা প্রভাব পড়েছে, এ ক্ষেত্রে নীতি আয়োগের সদস্যের বক্তব্য, নোংরা সিনেমা দেখার জন্যই কাশ্মীরে ইন্টারনেট ব্যবহৃত হত৷ উপত্যকার অর্থনীতির উপর তার খুব একটা প্রভাব পড়েনি৷

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে নীতি আয়োগের সদস্য ভি কে সারস্বত বলেন, 'যত রাজনীতিবিদ কাশ্মীরে যেতে চাইছেন, কী কারণে চাইছেন? দিল্লির রাস্তায় যেমন আন্দোলন চলছে, ওরকম কাশ্মীরেও করতে চাইছেন৷ সোশ্যাল মিডিয়াকে আগুন হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছেন৷ কাশ্মীরে ইন্টারনেট না থাকাই কী এসে যায়? তা ছাড়া কাশ্মীরের লোকেরা ইন্টারনেটে কী দেখে? নোংরা সিনেমা দেখা ছাড়া কিছু করে না ওরা৷'

এরপরেই সারস্মত বুঝতে পারেন, বিতর্কিত মন্তব্য করে ফেলেছেন৷ নিজেকে সামলে নিয়ে এ বার তাঁর সাফাই, 'আমি বলতে চাইছ, কাশ্মীরে ইন্টারনেট না-থাকলেও কোনও সমস্যা নেই৷ তার প্রভাব উপত্যকার অর্থনীতির উপর খুব গুরুতর কিছু প্রভাব ফেলেনি৷'

তাঁর আরও দাবি, 'কাশ্মীরে ইন্টারনেট বন্ধ রয়েছে৷ কই গুজরাতে তো বন্ধ নেই? কাশ্মীরে ইন্টারনেট বন্ধ থাকার একটা ভিন্ন কারণ রয়েছে৷ কাশ্নীরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখাটা খুব জরুরি৷'

শনিবারই কাশ্মীরে প্রিপেড মোবাইল পরিষেবা চালু করেছে প্রশাসন৷ পোস্টপেড কানেকশনে ২জি পরিষেবা চালু করা হয়েছে৷ শুধুমাত্র সরকারি কিছু ওয়েবসাইট-সহ কয়েকটি ওয়েবসাইটটি সেই পরিষেবায় দেখা যাচ্ছে৷ গত ৫ অগাস্ট থেকেই জম্মু-কাশ্মীরে বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা৷ মোবাইল ইন্টারনেট ছাড়া প্রিপেড ও পোস্টপেড পরিষেবা চালু করা হয়েছে৷

First published: January 19, 2020, 11:25 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर