CAA এর পর এবার NPR চালুর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের, কী এই এনপিআর?

CAA এর পর এবার NPR চালুর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের, কী এই এনপিআর?

কেন NPR হচ্ছে জানেন কি?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: এনআরসি নিয়ে বিভ্রান্তি ও দেশজোড়া বিক্ষোভের মধ্যেই শুরু হচ্ছে নাগরিকপঞ্জী তৈরির কাজ। ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার (এনপিআর)-এ অনুমোদন দিল কেন্দ্র। বায়োমেট্রিক পদ্ধতি নয়, বাড়ি বাড়ি ঘুরেই এনপিআরের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। একটি অ্যাপের মাধ্যমেও তথ্য সংগ্রহ করা হবে । এজন্য পরিচয় সংক্রান্ত কোনও নথি লাগবে না বলে ঘোষণা কেন্দ্রের। এর জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৮৫০০ কোটি টাকা ৷ জনগণনা ও NPR প্রক্রিয়ায় মিলিতভাবে খরচ হতে চলেছে ১৩,০০০ কোটি টাকা ৷

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনপিআরের তথ্য আপডেট করার কাজ শুরু হচ্ছে নতুন বছরের শুরুতেই । মঙ্গলবার এতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। আরএনসি নিয়ে দেশজোড়া বিক্ষোভের মধ্যেই এনপিআরের তথ্য আপডেট করার কাজ শুরু হচ্ছে। পরিস্থিতি বুঝেই এনপিআর নিয়ে জনসচেতনতার কাজে নামল কেন্দ্র ৷

পশ্চিমবঙ্গ এবং কেরালা আগেই এনপিআর-এর কাজ স্থগিত রাখার ঘোষণা করেছে।  এব্যাপারে রাজ্যগুলোর সঙ্গে আলোচনার বার্তা কেন্দ্রের ৷ যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে দাবি, সংবিধান অনুযায়ী এই বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে কেন্দ্রীয় সরকারের আওতায় পড়ে। ফলে কোনও রাজ্যেরই এই কাজে বাধা সৃষ্টি করার এক্তিয়ার নেই ৷

ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার বা NPR কী?

এনপিআর-এর পুরো কথা হল ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার। এর মাধ্যমে কোন এলাকায় কতজন বাস করেন, শেষ ছ’মাসে কোনও এলাকায় নতুন কত বাসিন্দা এসেছেন তার হিসেব নেওয়া হয়। নাগরিকদের পরিচয় সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয় ৷ কোনও এলাকায় ৬ মাসের বেশি বা তার বেশি থাকলে  বা ৬ মাস থাকার পরিকল্পনা থাকলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ওই অঞ্চলের বাসিন্দা ধরা হয় ৷ এনপিআর আপডেট  হওয়ার পরই জনগণনা ৷ ওই হিসেবের মধ্যে স্ত্রী, পুরুষ, শিশু ভাগের পাশাপাশি ধর্ম অনুসারেও ভাগ করা হয় । জনগণনা যেমন খতিয়ে দেখে লোকসংখ্যা। ঠিক সে ভাবেই নাগরিকদের বিভিন্ন নথি দেখে ওই লোকসংখ্যার চরিত্র বিশ্লেষণ করে এনপিআর।

এই প্রথম কি NPR হচ্ছে?

না৷ এর আগে ২০১১ সালে জনগণনার আগে ২০১০ সালে ইউপিএ আমলে এনপিআর-তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছিল। ২০১৫ সালে ফের তথ্য সংগ্রহের কাজ হয়। সেই তথ্য ডিজিটাইজেশনের কাজও সম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানিয়েছে জনগণনা কমিশন। এবার ফের সেই কাজ শুরু হচ্ছে।

কোন আইনে এনপিআর হবে?

১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইন ও ২০০৩ সালের নাগরিকের নথিভুক্তিকরণ ও জাতীয় আইডেন্টিটি কার্ড বিধি অনুসারে এনপিআর তৈরি হতে চলেছে । ভারতের প্রত্যেক নাগরিকের নাম নথিভুক্তিকরণ বাধ্যতামূলক।

NPR-এর জন্য কোন কোন নথি লাগবে?

NPR অর্থাৎ ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টারের জন্য লাগবে না কোনও নথি ৷ এমনকি দরকার নেই কোনও বায়োমেট্রিক তথ্যেরও ৷ বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবেন সংশ্লিষ্ট কর্মীরা ৷ মৌখিক তথ্যের উপর ভিত্তি করেই তৈরি হবে NPR ৷

NPR-এ নাগরিকদের থেকে যা যা জানতে চাওয়া হতে পারে?

জাতীয় জনগণনা কমিশন থেকে নেওয়া তথ্য অনুযায়ী, NPR এর জন্য নাগরিকদের থেকে জানতে চাওয়া হতে পারে, বাসিন্দার নাম, জন্মতারিখ, বাবার নাম, মায়ের নাম, জন্মস্থান, অবিবাহিত না বিবাহিত? বিবাহিত হলে স্বামী/স্ত্রীর নাম, পরিবারের সদস্য সংখ্যা, পরিবারের সঙ্গে পরিবার প্রধানের সম্পর্ক, বর্তমান ঠিকানা, কতদিন ধরে ওই জায়গায় আছেন, ওই ঠিকানা স্থায়ী না হলে স্থায়ী ঠিকানা কোনটি, জীবিকা, শিক্ষাগত যোগ্যতা।

সরকার এত তথ্য চাইছে কেন?

NPR-এর মাধ্যমে দেশের বাসিন্দাদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থানের তথ্য সহ যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করতে চাইছে সরকার ৷ যাতে কোনও সরকারি নীতি নির্ধারনের সময় দেশের সব ধরনের বাসিন্দার কথা ভেবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় ৷ এই তথ্য জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রেও কাজে লাগবে ৷

NRC ও NPR-এর মধ্যে কী কোনও সম্পর্ক আছে?

কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি এই দুয়ের মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই ৷ NPR নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করে এবং NRC বিদেশি নাগরিক চিহ্নিত করে ৷

NPR-এ কী নাগরিকত্ব হারানোর কোনও ভয় আছে?

NPR-এ শুধুমাত্র বাসিন্দাদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে ৷ কোনও সন্দেহজনক বাসিন্দার তালিকা তৈরি করা হবে না ৷ তাই নাগরিকত্ব হারানোর কোনও ভয় নেই ৷

অসম কেন NPR আওতার বাইরে?

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে অসমে সম্প্রতি NRC বা নাগরিকপঞ্জি তৈরি হয়েছে। তাই সেখানকার নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহে এখনই আলাদা করে NPR হবে না ৷

কিভাবে হবে NPR?

এনপিআরের ক্ষেত্রে কোনও পরিচয়পত্র বা নথি দিতে হবে না ৷ বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য নেবেন সমীক্ষকরা ৷ ওয়েবসাইটে ফর্ম ফিলাপ করেও অংশ নেওয়া যাবে ৷ সেক্ষেত্রে বাড়িতে শুধু তথ্য যাচাই করা হবে ৷

First published: 09:58:14 PM Dec 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर