নামেই যা নদীমাতৃক! মায়ের দশা কতটা করুণ তুলে ধরল আইআইটি মাদ্রাজের রিভার্স অফ ইন্ডিয়া!

নামেই যা নদীমাতৃক! মায়ের দশা কতটা করুণ তুলে ধরল আইআইটি মাদ্রাজের রিভার্স অফ ইন্ডিয়া!

নামেই যা নদীমাতৃক! মায়ের দশা কতটা করুণ তুলে ধরল আইআইটি মাদ্রাজের রিভার্স অফ ইন্ডিয়া!

জয়শ্রী আর কৌশিকী তাঁদের পরবর্তী প্রজন্মকে নিয়ে ধরা দিয়েছেন মিউজিক ভিডিওয়, তাঁদের গলায় উঠে এসেছে দেশের ৫১টি নদীর দুর্দশার কথা!

  • Share this:

#চেন্নাই: জলেহস্মিন সন্নিধিং কুরু!

হিন্দুধর্মের যাবতীয় শুভ কাজে নদীদের আহ্বান করার একটি রীতি আছে। একেকটি নদীর নামোচ্চারণ করে অর্ঘ্য দিতে হয়, আমন্ত্রণ জানাতে হয় তাঁদের। কেন না, তাঁরা সাক্ষাৎ জননীতুল্যা! কিন্তু মা যদি ধূলিজর্জরিত বেশে, মলিন পোশাকে কোনও অনুষ্ঠানে অংশ নেন, তা কি আমাদের দেখতে ভালো লাগবে? না কি এই নদীরাই যদি প্রার্থনা মঞ্জুর করে কলুষিত জলধারা নিয়ে উপস্থিত হয় অনুষ্ঠান ভূমিতে, তা খুব একটা কাম্য হবে?

কিছু দিন আগেই সারা বিশ্বের পাশাপাশি এই দেশও বেশ আড়ম্বর করে উদযাপন করেছে আন্তর্জাতিক জল দিবস। কিন্তু দেশের মুখ্য নদীগুলোর জলধারার প্রতি বিন্দুতে মিশে রয়েছে কী পরিমাণ দূষণের বীজ, কত নদী তার স্রোত হারিয়ে স্তব্ধ হয়ে মিশে গিয়েছে রুক্ষ মাটির বুকে, সেই সত্যটি নতুন করে সামনে নিয়ে এল ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি মাদ্রাজের দ্বারা ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লিন ওয়াটার। এই উপলক্ষ্যে তারা প্রকাশ করল একটি মিউজিক ভিডিও- রিভার্স অফ ইন্ডিয়া (Rivers of India)।

জানা গিয়েছে যে ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি মাদ্রাজের এক প্রাক্তনীর কলমে রূপ পেয়েছে এই গানের কথা। সেই কথায় সুর সংযোগও করেছেন তিনি। আর তা গাওয়ার দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছিল দেশের দুই খ্যাতনামা ধ্রুপদী সঙ্গীতশিল্পী বম্বে জয়শ্রী (Bombay Jayshri) এবং কৌশিকী চক্রবর্তীকে (Kaushiki Chakraborty)। যেমন করে প্রজন্মের পর প্রজন্ম জুড়ে প্রবাহিত হতে থাকে নদীর জলধারা, ঠিক তেমন করেই জয়শ্রী আর কৌশিকী তাঁদের পরবর্তী প্রজন্মকে নিয়ে ধরা দিয়েছেন মিউজিক ভিডিওয়, তাঁদের গলায় উঠে এসেছে দেশের ৫১টি নদীর দুর্দশার কথা!

আশ্চর্য হওয়ার মতো বিষয় হল এই যে দেশের জলসঙ্কটের বিষয়টি কিন্তু খুব নতুন কিছু নয়। ২০১৮ সালে জলশক্তি মন্ত্রক এবং দেশের নীতি আয়োগের হাত ধরে তৈরি হয়েছিল কম্পোজিট ওয়াটার ম্যানেজমেন্ট ইনডেক্স, লক্ষ্য ছিল দেশের মানুষকে জলসংরক্ষণ সম্পর্কে অবহিত করানো। কাজের কাজ কিছুই হয়নি, আপাতত প্রতি বছর দেশের ২ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে জলের অভাবে, বলছে নীতি আয়োগেরই পরিসংখ্যান! এবার যদি রিভার্স অফ ইন্ডিয়া সচেতনতা গড়ে তুলতে পারে, তার চেয়ে ভালো আর কিছু হয় না!

Published by:Simli Raha
First published: