• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • HEALTH MINISTER HARSH VARDHAN GANGWAR BABUL SUPRIYO RAMESH POKHRIYAL QUIT BEFORE REJIG AKD

Health Ministe quits| মোদি মন্ত্রিসভার রদবদলের দিনে ইস্তফা দিয়ে দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী! পদ খোয়ালেন বহু হেভিওয়েট!

মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন হর্ষবর্ধন, রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক, সন্তোষ গাঙ্গোয়াররা।

Health Ministe quits: এখানেই শেষ নয়, আজই ইস্তফা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল, মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: হাল আমলের সবথেকে বড় রদবদল রাজধানীতে! মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের (Modi Cabinet Reshuffle) দিনেই ইস্তফা দিয়ে দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন (Harsh Vardhan)। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ পুরোটাই তাঁরই দায়িত্বে ছিল। এখানেই শেষ নয়, আজই ইস্তফা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল, মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার। আজ সন্ধ্যা ছটায় মোদির মন্ত্রিসভায় মেগা পরিবর্তন আসতে চলেছে। তার আগে এই হেভিওয়েটারা মন্ত্রিত্ব ছাড়ায় রীতিমতো স্তম্ভিত কারণ কে থাকবে কে যাবে এই নীতি এবার পুরোটাই কার্যকর হয়েছে নরেন্দ্র মোদির তত্ত্বাবধানে। পারফরম্যান্স খুঁটিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এমনকি প্রত্যেক মন্ত্রীর থেকে ভবিষ্যতের রুটম্যাপও জানতে চেয়েছিলেন তিনি। ফলে একটা কথা পরিষ্কার, প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যমন্ত্রী বা আইটি মন্ত্রীদের কাজে খুশি নন। দেবশ্রী চৌধুরীর পারফরম্যান্সও তাঁকে তৃপ্ত করতে পারেনি। এখন নরেন্দ্র মোদী স্বাস্থ্য

    আজ ৭ লোককল্যাণ মার্গে সম্ভাব্য মন্ত্রীদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠকে ডাক পেয়েছিলেন শান্তনু ঠাকুর এবং নিশীথ প্রামাণিক। সেখান থেকেই পরিষ্কার হয়ে যায়  নিশীথ শান্তনু কোনও বড় দায়িত্ব পেতে পারেন। গুরুদায়িত্বের ক্ষেত্রে অবশ্য প্রথম নামই রয়েছে সর্বানন্দ সোনোয়াল, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াদের। লকেট চট্টোপাধ্যায় কোনও দায়িত্ব পান কিনা তাই নিয়ে জল্পনা রয়েছে। সূত্রের খবর, সব মিলিয়ে ১৮ থেকে ২২ জন নতুন মন্ত্রী হতে পারেন। অন্তত ১০ থেকে ১২ জনের নাম বাদ যেতে পারে, সেই আভাস ইতিমধ্যে ফলতেও শুরু করেছে। এ দিকে দীর্ঘদিন দিল্লীতে বসে থাকলেও মন্ত্রিত্বের ডাক না পেয়ে ক্ষুব্ধ সৌমিত্র খাঁ ইতিমধ্যেই দলীয় গুরুত্বপূর্ণ পদ ছেড়ে দিয়েছেন।

    বলা হচ্ছে মোদি সর্বকনিষ্ঠদের নিয়ে এবার নতুন মন্ত্রিসভা গড়ে তুলতে চলেছেন। নিপীড়িত বঞ্চিত আদিবাসী সমাজ থেকে প্রতিনিধি তুলে আনাই তাঁর এবারের লক্ষ্য। আর সেই কারণেই হয়তো জায়গা পাচ্ছেন নিশীথ প্রামাণিক শান্তনু ঠাকুররা।

    Published by:Arka Deb
    First published: