• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • GUJARAT MAN THREATENS TO SELF IMMOLATE IF INDIA ENGLAND T20 SERIES IS NOT CANCELLED DUE TO COVID TC RM

করোনাকালে ভারত-ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজ বন্ধ না হলে আত্মহত্যার হুমকি গুজরাতের হাসিন্দার

করোনাকালে ভারত-ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজ বন্ধ না হলে আত্মহত্যার হুমকি গুজরাতের হাসিন্দার

করোনাকালে ভারত-ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজ বন্ধ না হলে আত্মহত্যার হুমকি গুজরাতের হাসিন্দার!

করোনাভাইরাসের (Coronavirus) আবহে আহমেদাবাদে চলতে থাকা ভারত বনাম ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি সিরিজ অবিলম্বে বাতিল ঘোষণা না করা হলে আত্মহত্যা করবেন বলে হুমকি দিলেন এক ব্যক্তি

  • Share this:

#আহমেদাবাদ: করোনাভাইরাসের (Coronavirus) আবহে আহমেদাবাদে চলতে থাকা ভারত বনাম ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি সিরিজ অবিলম্বে বাতিল ঘোষণা না করা হলে আত্মহত্যা করবেন বলে হুমকি দিলেন এক ব্যক্তি। গুজরাতের গান্ধীনগরের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি নিজেকে আগুনে পুড়িয়ে শেষ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে!

প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে পঙ্কজ পটেল (Pankaj Patel) নামের ওই ব্যক্তি গুজরাত পুলিশের সিনিয়র ইন্সপেক্টর কেভি পটেলকে (KV Patel) ফোন করেছিলেন। সেই ফোন কলেই ওই ব্যক্তি আত্মহত্যার হুমকি দেন। করোনা আবহে আহমেদাবাদে চলতে থাকা ভারত-ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজ বাতিল করার দাবি তুলছেন পঙ্কজ। তা না হলে তিনি নিজেকে শেষ করে দেবেন বলে জানিয়েছেন।

উক্ত ফোন কলের প্রেক্ষিতে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আহমেদাবাদের চাঁদখেড়া পুলিশ স্টেশনে এফআইআর দায়ের হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৫(২), ৫০৭ ও ৫০৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে পঙ্কজ পটেলের সঙ্গে ওই পুলিশকর্মীর কথোপকথনের রেকর্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যেখানে আত্মহত্যার হুমকি দেওয়া ওই ব্যক্তিকে বলতে শোনা যাচ্ছে যে, করোনাভাইরাসের আবহে প্রতি দিন ৭৫ হাজার দর্শক আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে বসে ভারত বনাম ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দেখেছেন। এতে কোভিড ১৯ সংক্রমণ বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পঙ্কজ। তাই তিনি অবিলম্বে এই সিরিজ বন্ধের জন্য পুলিশের কাছে আবেদন জানিয়েছেন।

আহমদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামেই দর্শক সমাগমে ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে দু'টি টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ৫০ শতাংশ দর্শকের উপস্থিতিতে দুই দলের প্রথম দু'টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচও একই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ইতিমধ্যে দেশে করোনাভাইরাসের প্রভাব ফের বাড়তে থাকায় ক্রিকেট মাঠে বিপুল জনসমাগম নিয়ে আশঙ্কিত হয়েছে খোদ গুজরাত সরকারই। ফল প্রশাসনের নির্দেশেই সিরিজের বাকি তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দর্শকশূন্য মাঠে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে গুজরাত ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন।

ইতিমধ্যে আহমেদাবাদে ভারত-ইংল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি সিরিজ বাতিলের দাবিত পঙ্কজ পটেলের ফোন আসতেই দুই ঘটনাকে একসঙ্গে মিলিয়ে দিয়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। কারও মতে ওই ব্যক্তির আত্মহত্যার হুমকি পেয়েই ভারত ও ইংল্যান্ডের অবশিষ্ট টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলি চলাকালীন মাঠে দর্শকের প্রবশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যদিও সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছেন গুজরাত প্রশাসনেরই এক কর্তা। জানিয়েছন, এই সিদ্ধান্ত সরকার ও গুজরাত ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সম্পূর্ণ নিজস্ব।

উল্লেখ্য আহমেদাবাদের এই স্টেডিয়াম এক সময় সর্দার বল্লভ পটেলের নামে পরিচিত ছিল। ১৯৮২ সালে তৈরি হওয়া এই স্টেডিয়ামে ৪৯ হাজার দর্শক একসঙ্গে বসে খেলা দেখতে পারত। সেই স্টেডিয়ামটি নতুন করে তৈরি করা হয়। ২০২১ সালে উদ্বোধন হওয়া এই মাঠ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) নামে নামাঙ্কিত করা হয়। বর্তমানে স্টেডিয়ামে  একসঙ্গে ১ লক্ষ ১০ হাজার মানুষ বসে খেলা দেখতে পারেন। এত বড় ক্রিকেট মাঠ বিশ্বের অন্য কোনও প্রান্তে নেই।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: