• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • দিল্লির সীমান্তে ২৫০০টি ট্রাক্টর নিয়ে মিছিলের জন্য প্রস্তুত কৃষকরা

দিল্লির সীমান্তে ২৫০০টি ট্রাক্টর নিয়ে মিছিলের জন্য প্রস্তুত কৃষকরা

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন পঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরাখণ্ড, কেরল ও মধ্যপ্রদেশের কৃষকরা। দিনের পর দিন দিল্লির সিংঘু, টিকরি, গাজিপুর সহ অন্যান্য সীমান্তে তাঁরা এই দাবিতে অনড় থেকে আন্দোলন চালাচ্ছেন।

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন পঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরাখণ্ড, কেরল ও মধ্যপ্রদেশের কৃষকরা। দিনের পর দিন দিল্লির সিংঘু, টিকরি, গাজিপুর সহ অন্যান্য সীমান্তে তাঁরা এই দাবিতে অনড় থেকে আন্দোলন চালাচ্ছেন।

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন পঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরাখণ্ড, কেরল ও মধ্যপ্রদেশের কৃষকরা। দিনের পর দিন দিল্লির সিংঘু, টিকরি, গাজিপুর সহ অন্যান্য সীমান্তে তাঁরা এই দাবিতে অনড় থেকে আন্দোলন চালাচ্ছেন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সোমবারের বৈঠকে কোনও রফাসূত্র না মিললে বড় পদক্ষেপ করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন আন্দোলনরত কৃষকরা। আর সেই কথা মতোই ৭ জানুয়ারি ট্রাক্টর নিয়ে মিছিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাঁরা। এদিনের এই মিছিলকে ২৬ জানুয়ারির জন্য মহড়া হিসেবেও দাবি করছেন কৃষকরা।

    দিল্লি লাগোয়া সিংঘু, টিকরি, গাজিপুর, পালওয়াল এই চার সীমান্ত থেকে মোটা ২৫০০ ট্রাক্টর নিয়ে মিছিল হবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। ৭ জানুয়ারি সকাল ১১টা থেকে এই প্রতিবাদ মিছিল শুরু।

    কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন পঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরাখণ্ড, কেরল ও মধ্যপ্রদেশের কৃষকরা। দিনের পর দিন দিল্লির সিংঘু, টিকরি, গাজিপুর সহ অন্যান্য সীমান্তে তাঁরা এই দাবিতে অনড় থেকে আন্দোলন চালাচ্ছেন।

    কৃষক সংগঠনের নেতা দর্শন পাল সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, ২৬ জানুয়ারি তাঁরা ট্রাক্টর মিছিল করতে চান রাজধানীতে। তার মহড়াও হবে কাল। তাঁর কথায়, আমরা অনুমতি নিইনি। তবে রাজ্য পুলিশকে জানিয়েছি ৭ জানুয়ারির মিছিলের ব্যাপারে। আমরা কোনও সমস্যা চাই না। আশা করছি পুলিশ আমাদের বাধা দেবে না। কারণ আমরা যে যার গন্তব্যস্থলে সন্ধের মধ্যেই ফিরে যাব।

    এখনও পর্যন্ত কৃষকদের সঙ্গে কোনও সমাধানে আসতে পারেনি সরকার। তবুও কৃষকরা আশাবাদী যে সরকার তাঁদের কথা শুনবেন। ৮ জানুয়ারি আবার সরকারের সঙ্গে কৃষকদের একটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

    তবে এরই মধ্যে কেন্দ্র ও কৃষকদের এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবড়ের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে যে আগামী ১১ জানুয়ারি কৃষক ও সরকার দুপক্ষের কথাই তারা শুনবে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: