• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ‌Delhi Pollution: 'গ্যাস চেম্বার‌'-এ পরিণত‌‌ দিল্লি! দূষণ নিয়ন্ত্রণে ফের লকডাউনের পরামর্শ শীর্ষ আদালতের

‌Delhi Pollution: 'গ্যাস চেম্বার‌'-এ পরিণত‌‌ দিল্লি! দূষণ নিয়ন্ত্রণে ফের লকডাউনের পরামর্শ শীর্ষ আদালতের

'গ্যাস চেম্বার‌'-এ পরিণত‌‌ দিল্লি! দূষণ নিয়ন্ত্রণে ফের লকডাউনের পরামর্শ শীর্ষ আদালতের

'গ্যাস চেম্বার‌'-এ পরিণত‌‌ দিল্লি! দূষণ নিয়ন্ত্রণে ফের লকডাউনের পরামর্শ শীর্ষ আদালতের

Delhi Pollution: দিল্লি ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের মাত্রাতিরিক্ত বায়ু দূষণ নিয়ে উদ্বিগ্ন সুপ্রিম কোর্ট (Supreme court)।

  • Share this:

#‌নয়াদিল্লি :‌ এমনিতেই দীপাবলির পর রাজধানী দিল্লির বায়ু দূষণ মাত্রা ছাড়িয়েছে। তার উপর গত কয়েকদিন ধরে বিষাক্ত রাসায়নিক ফেনায় ভরে গিয়েছে যমুনা নদী। প্রভাব পড়েছে দিল্লির পানীয় জল পরিষেবায়। পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে বায়ু দূষণ ক্রমশ বেড়ে চলায়। দিল্লি ও বর্ধিত রাজধানী অঞ্চলের এ হেন বায়ুদূষণ নিয়ে বেজায় চিন্তিত দেশের সর্বোচ্চ আদালত। শনিবার দূষণ নিয়ে বিশেষ শুনানিতে প্রধান বিচারপতি এনভি রমণ, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি সূর্য কান্তের বিশেষ বেঞ্চ কার্যত তুলোধোনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকারকে।

প্রধান বিচারপতি বললেন, পরিস্থিতি এতটাই ভয়ঙ্কর যে বাড়ির ভিতরেও মাস্ক পরে থাকতে হচ্ছে। এটা চলতে পারে না। দিল্লিতে দূষণের স্তর জরুরি অবস্থা তৈরি করেছে। সব সরকারকে আদালতের এ‌টাই পরামর্শ যে, রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে কাজ করুন। পঞ্জাব ও হরিয়ানা রাজ্যের সঙ্গে কথা বলে ফসলের অবশিষ্ট অংশ পোড়ানো বন্ধ করুক কেন্দ্র। আগামী দু-তিন দিনের মধ্যেই ব্যবস্থা নিক কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতি বলেন, দিল্লিতে দূষণের প্রধান কারণ বাজি, গাড়ি, ধুলো, ধোঁয়া, ইত্যাদি। আংশিক কারণ আশেপাশের রাজ্যে ফসলের অবশিষ্ট অংশ পোড়ানো। এই দূষণ যেভাবেই হোক নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। প্রয়োজনে দু-দিনের জন্য লকডাউনের কথা ভাবুন।

আরও পড়ুন- প্রধানমন্ত্রীকে বিশেষ উপহারে মুগ্ধ করলেন বাংলার তাঁতশিল্পী বীরেন কুমার বসাক

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে আইনজীবী ছিলেন সলিসিটর জেনরেল তু্ষার মেহতা। আদালতের প্রশ্নবাণে কার্যত বিদ্ধ হতে হয়েছে তাঁকে। দূষণ পরিস্থিতি মারাত্মক আকার নেওয়ায় প্রয়োজনে দু-‌দিনের লকডাউন-‌সহ একগুচ্ছ পরামর্শ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। আগামী দু-‌তিন দিনের মধ্যে দূষণ সমস্যা সমাধানে উপযুক্ত পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ জন্য দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা ও পাঞ্জাব সরকারের সঙ্গে জরুরি ভিত্তিতে বৈঠক করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকে।

আরও পড়ুন- মাস্ক না পরলেই ধরছে 'নকল' পুলিশ! খাস কলকাতায় চলছে নতুন কায়দায় জোচ্চুরি

শুধু তাই নয়, দিল্লিতে স্কুল খুলেছে। শিশুরা স্কুলে যেতে বাধ্য হচ্ছে। এ নিয়েও দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছে আদালত। বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করতে বলা হয়েছে অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারকে। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলিকে নিয়ে আপৎকালীন বৈঠক করার নির্দেশ দেওয়া হল। পরবর্তী শুনানি সোমবার।

RAJIB CHAKRABORTY

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: