দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

অন্য মহিলার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় বাবা, মোবাইলে অনলাইন ক্লাস করতে গিয়ে দেখে ফেলল মেয়ে

অন্য মহিলার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় বাবা, মোবাইলে অনলাইন ক্লাস করতে গিয়ে দেখে ফেলল মেয়ে
প্রতীকী ছবি৷ Photo-File

এমনই কাণ্ড ঘটেছে কর্ণাটকের মান্ডিয়াতে৷ ওই ফোনেই অন্য এক মহিলার সঙ্গে নিজের ঘনিষ্ঠ ভিডিও রেখে দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি৷

  • Share this:

#কর্ণাটক: অনলাইন ক্লাস করার জন্য দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়া মেয়েকে নিজের মোবাইল ফোন দিয়েছিলেন বাবা৷ আর তা করতে গিয়েই নিজের বিপদ ডেকে আনলেন তিনি৷ কারণ ফোনের সূত্রেই বাবার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কথা জেনে ফেলেছে মেয়ে! টাইমস অফ ইন্ডিয়াতে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে এমনই দাবি করা হয়েছে৷

এমনই কাণ্ড ঘটেছে কর্ণাটকের মান্ডিয়াতে৷ ওই ফোনেই অন্য এক মহিলার সঙ্গে নিজের ঘনিষ্ঠ ভিডিও রেখে দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি৷ ফোন ঘেঁটে দেখতে গিয়ে যা তাঁর মেয়ের নজরে পড়ে যায়৷ সঙ্গে সঙ্গে তা নিজের মাকে জানিয়ে দেয় ওই ছাত্রী৷ এখন স্বামীর থেকে বিবাহবিচ্ছেদ চাইছেন ওই ব্যক্তির স্ত্রী৷ পুলিশ এবং স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের তরফে গোটা বিষয়টি মিটমাট করার চেষ্টা চলছে৷

তবে স্ত্রী বিচ্ছেদ চাইলেও সংসার জোড়া লাগাতে মরিয়া ওই ব্যক্তি৷ ওই দম্পতির ১৮ বছরের বিবাহিত জীবন৷ ১৫ এবং ১৭ বছর বয়সি দু'টি মেয়ে রয়েছে তাঁদের৷

পুলিশ জানিয়েছে, গত অক্টোবর মাসে এই ঘটনা ঘটেছে৷ মেয়েকে অনলাইন ক্লাস করতে নিজের ফোন দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি৷ তার মধ্যেই অন্য এক মহিলার সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ভিডিও ছিল৷ সেই মহিলা আবার সম্পর্কে ওই পরিবারের আত্মীয়া হন৷ নিজেদের ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত ফোনে রেকর্ড করে রাখতেন ওই ব্যক্তি৷ বাবাকে অন্য এক মহিলার সঙ্গে দেখামাত্র তা মাকে জানায় ওই ব্যক্তির বড় মেয়ে৷ স্বামীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কথা জানতে পেরেই স্বামীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পুলিশ এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের দ্বারস্থ হন ওই ব্যক্তির স্ত্রী৷

পুলিশ দু' পক্ষকে বোঝানোর চেষ্টা করলেও এখন তারা সফল হয়নি৷ ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অতীতেও পুলিশের খাতায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷ তবে এক্ষেত্রে শুধুমাত্র পরকীয়ার দায়ে তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারবে না পুলিশ৷ তবে তাঁর বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে ব্যবস্থা নিতে পারে পুলিশ৷ সেক্ষেত্রেও দেখতে হবে তিনি ওই মহিলার ইচ্ছের বিরুদ্ধে তাঁর ভিডিও রেকর্ড করে মোবাইলে রেখেছিলেন কি না এবং তা অন্য কাউকে পাঠিয়েছিলেন কি না৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 8, 2020, 5:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर