Home /News /national /
Work From Home| এ বার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদেরও 'ওয়ার্ক ফ্রম হোম', তৈরি খসড়া প্রস্তাব

Work From Home| এ বার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদেরও 'ওয়ার্ক ফ্রম হোম', তৈরি খসড়া প্রস্তাব

আমফানের তাণ্ডবে গাছ পড়ে, তার ছিড়ে বিপর্যস্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ। চলছে না ইন্টারনেট। কাজ করতে না পারলে চাকরি থাকবে? আশঙ্কায় লকডাউনে ওয়ার্ক ফ্রম হোমে থাকা চাকরিজীবীরা।

আমফানের তাণ্ডবে গাছ পড়ে, তার ছিড়ে বিপর্যস্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ। চলছে না ইন্টারনেট। কাজ করতে না পারলে চাকরি থাকবে? আশঙ্কায় লকডাউনে ওয়ার্ক ফ্রম হোমে থাকা চাকরিজীবীরা।

করোনা-পরবর্তী সময়ের এই বিরাট পরিবর্তনের শরিক কেন্দ্রীয় সরকারও৷ তাই অদূর ভবিষ্যতেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের Work From Home বা বাড়ি থেকে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্র৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা ভাইরাসের জেরে গোটা বিশ্বের সমাজ থেকে অর্থনীতি, সবই আমূল পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে৷ বিশেষ করে Work From Home বা বাড়ি থেকে কাজের উপরে বেশির ভাগ সংস্থাই জোর দিচ্ছে৷ তাতে যেমন অফিস স্পেসের খরচ কমবে, পাশাপাশি সোশ্যাল ডিস্টেন্সিংও বজায় রাখা যাবে৷ করোনা-পরবর্তী সময়ের এই বিরাট পরিবর্তনের শরিক কেন্দ্রীয় সরকারও৷ তাই অদূর ভবিষ্যতেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের Work From Home বা বাড়ি থেকে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্র৷

    ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালুর একটি খসড়া প্রস্তাব তৈরি করেছে কর্মীবর্গ মন্ত্রক বা মিনিস্ট্রি অফ পার্সোনেল৷ সেই খসড়া প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা বছরে অন্তত ১৫ দিন ওয়ার্ক ফ্রম করবে৷ খসড়া প্রস্তাবে লেখা, কাজের জায়গায় সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং বজায় রাখতে অদূর ভবিষ্যতে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের অফিসে উপস্থিত থাকার পরিমাণ কমাতে হবে৷

    এর জন্য প্রতিটি ডিপার্টমেন্টে ই-অফিস চালু করতে চলেছে কর্মীবর্গ মন্ত্রক৷ ৭৫টি মন্ত্রক ইতিমধ্যেই এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে কাজ শুরু করেছে৷ ৫৭টি মন্ত্রক তাদের ৮০ শতাংশ কাজ করছে ই-অফিসে৷ প্রস্তাবে বলা হয়েছে, একটি স্তরের অফিসারদের ভিপিএন দেওয়া হোক, যাতে তাঁরা কোনও সুরক্ষিত নেটওয়ার্কে ইলেক্ট্রনিক ফাইলগুলি দেখতে পারেন৷ এখনও পর্যন্ত ভিপিএন-এর সুবিধা সহ-সচিব ও উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের রয়েছে৷

    এ ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টিও চিন্তার৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের গাইডলাইনে বলা আছে, ক্লাসিফায়েড ফাইলের ইন্টারনেটে কোনও ভাবেই দেখা যাবে না৷ তাই কর্মীবর্গ মন্ত্রকের বক্তব্য, ক্লাসিফায়েড ফাইল নিয়ে যাঁদের কাজ করতে হয়, তাঁরা অফিসেই কাজ করবেন৷ বাড়িতে নয়৷

    Published by:Arindam Gupta
    First published:

    Tags: Central Government Employee, Work From Home

    পরবর্তী খবর