'কায়েমি স্বার্থ চরিতার্থ করেতেই বিক্ষোভ, দেশ ভাগ হতে দেব না', কড়া বার্তা প্রধানমন্ত্রীর

'কায়েমি স্বার্থ চরিতার্থ করেতেই বিক্ষোভ, দেশ ভাগ হতে দেব না', কড়া বার্তা প্রধানমন্ত্রীর
দেশবাসীর উদ্দেশ্যে শান্তি রক্ষার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে শান্তি রক্ষার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। এধরণের হিংসাত্মক প্রতিবাদ ভারতের ঐতিহ্য নয় বলে মন্তব্য মোদির।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে দেশজুড়ে প্রতিবাদ। বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়েছে রাজধানী দিল্লিতেও। দেশবাসীর উদ্দেশ্যে শান্তি রক্ষার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। এধরণের হিংসাত্মক প্রতিবাদ ভারতের ঐতিহ্য নয় বলে মন্তব্য মোদির। নাগরিকত্ব আইন পাশের পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ। সপ্তাহ ঘোরার পর এ নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী। নাগরিকত্ব আইনে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে কোনও ভারতীয়র প্রতি অবিচার হবে না বলে ফের আশ্বাস মোদির। সোমবার এই নিয়ে পরপর কয়েকটি ট্যুইট করেন প্রধানমন্ত্রী। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, 'আমি আমার সহ নাগরিকদের আশ্বস্ত করছি, কোনও নাগরিকের অধিকার খর্ব হবে না। এই আইন নিয়ে কোনও ভারতীয়র ভয় পাওয়ার কিছু নেই। এই আইন তাঁদের জন্য, যাঁরা বিদেশে অসুবিধায় আছেন এবং ভারত ছাড়া অন্য কোথাও তাঁদের যাওয়ার নেই।

এই আইন সংসদে অধিকাংশ সদস্যের সমর্থন নিয়েই পাস হয়েছে বলেও মনে করিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী। ট্যুইটে তিনি লিখেন,'নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সংসদে পাস হয়েছে। সংসদের অধিকাংশ সদস্য তা সমর্থন করেছেন।' পাশাপাশি শান্তি রক্ষার বার্তাও দেন প্রধানমন্ত্রী। 'নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে হিংসাত্মক আন্দোলন দুর্ভাগ্যজনক ও কষ্টদায়ক। আলোচনা, বিতর্ক, প্রতিবাদ গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। কিন্তু, হিংসা, সরকারি সম্পত্তি নষ্ট ও সাধারণ জনজীবন ব্যাহত করা আমাদের ঐতিহ্য হতে পারে না। এখন সকলকে দেশের উন্নয়নের জন্য একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আমরা কোনও গোষ্ঠীকে বিভাজন ছড়াতে দিতে পারি না,' ট্যুইট করেন তিনি। অসম, বাংলার পর নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের আঁচ ছড়িয়েছে রাজধানী দিল্লিতেও। প্রতিবাদে সরব হয়েছে বিরোধীরা। তারপরই দেশবাসীর উদ্দেশে শান্তি রক্ষার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

First published: December 17, 2019, 12:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर