বুধবার ভারত বনধ, বিঘ্ন হতে পারে ব্যাঙ্ক-এটিএম পরিষেবা

বুধবার ভারত বনধ, বিঘ্ন হতে পারে ব্যাঙ্ক-এটিএম পরিষেবা

দেশজুড়ে প্রায় ২৫ কোটি কর্মচারি বুধবারের ধর্মঘটে অংশগ্রহণ করবেন বলে দাবি ট্রেড ইউনিয়ন গুলির ৷

  • Share this:

#কলকাতা: কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকা ধর্মঘটের ইস্যুগুলিকে সমর্থন করলেও রাজ্যে 'বন্‌ধ' চান না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামিকাল, বুধবার রাজ্যে কোনও 'বন্‌ধ' হবে না বলে জানিয়েছেন মমতা। কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ধর্মঘটের মোকাবিলা করতে প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

CAA, NRC র প্রতিবাদে ৮ জানুয়ারি বামেদের ধর্মঘট। পরিষেবা সচল রাখতে কড়া রাজ্য। সরকারি কর্মীদের ছুটি বাতিল। কাজে যোগ না দিলে কাটা যাবে বেতন। বনধ সস্তার রাজনীতি। বাংলায় কোনও ধর্মঘট হবে না। বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ-সহ একাধিক ইস্যুতে ৮ জানুয়ারি দেশজুড়ে ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে সিটু-ইনটাক-সহ কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলি। বাম দলগুলির সঙ্গে রাজ্যে এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে প্রদেশ কংগ্রেস। সিএএ এবং এনআরসি বিরোধী বিভিন্ন সংগঠন এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে। ধর্মঘটের সমর্থনে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রচার চলছে। ইস্যুগুলির বিরোধিতা না-করলেও রাজ্যে ধর্মঘটের পক্ষে নয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার গঙ্গাসাগরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'বাংলায় বন্‌ধ হবে না। আমরা বন্‌ধ সমর্থন করব না। আমরা এই ইস্যুগুলি নিয়ে রোজ আন্দোলন করছি। বন্‌ধ করলে অর্থনীতির ক্ষতি হয়। দেশের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে রয়েছে। বন্‌ধ করলে দেশ আরও ক্ষতিগ্রস্ত হবে।'

শুধু মুখে বলে কাজ শেষ করেননি তিনি নবান্ন থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ৮ তারিখের বনধ হবে না। এমনকী, পরিবহন দফতরের তরফে বাস ট্যাস্কি ইউনিয়ন ও সংগঠন গুলিকে জানানো হয়েছে, বুধবারেও রাস্তায় বাস, ট্যাক্সি, অটো চলবে বাকি দিনগুলির মতোই। এরপরেও যদি বনধ সমর্থকদের হামলায় গাড়ির ক্ষতি হয়, তবে তার জন্য বিমার সুরক্ষা পাবেন, গাড়ির মালিকরা।

দেশজুড়ে প্রায় ২৫ কোটি কর্মচারি বুধবারের ধর্মঘটে অংশগ্রহণ করবেন বলে দাবি ট্রেড ইউনিয়ন গুলির ৷ INTUC, AITUC, HMS, CITU, AIUTUC, TUCC, SEWA, AICCTU, LPF, UTUC-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি বুধবার ধর্মঘটে অংশ নিচ্ছেন ৷ ধর্মঘটের জেরে ব্যাঙ্ক, এটিএম পরিষেবা বিঘ্ন ঘটার সম্ভাবনা ৷

First published: January 7, 2020, 1:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर