Home /News /national /
Karnataka Tension: কর্ণাটকে খুন বজরং দলের কর্মী, হিজাব বিতর্কের সঙ্গে সম্পর্ক নেই, দাবি মন্ত্রীর

Karnataka Tension: কর্ণাটকে খুন বজরং দলের কর্মী, হিজাব বিতর্কের সঙ্গে সম্পর্ক নেই, দাবি মন্ত্রীর

কর্ণাটকে নতুন করে উত্তেজনা৷ Photo-ANI

কর্ণাটকে নতুন করে উত্তেজনা৷ Photo-ANI

জানা গিয়েছে, দুষ্কৃতীরা একটি গাড়িতে করে এসে তাড়া করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বজরং দলের ওই কর্মীকে হত্যা করে পালিয়ে যায় (Bajrang Dal Worker Murdered in Karnataka)৷

  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: হিজাব বিতর্কের (Hijab Controversy) মধ্যেই এবার বজরং দলের এক কর্মীকে খুনের ঘটনায় নতুন করে উত্তেজনা ছড়ালো কর্ণাটকে (Karnataka)৷ রবিবার কর্ণাটকের শিবমোগ্গায় বজরং দলের তেইশ বছর বয়সি এক কর্মী খুন হন৷ সাম্প্রদায়িক অশান্তিকে কেন্দ্র করে এমনিতেই উত্তপ্ত হয়ে ছিল শিবমোগ্গা৷ বজরং দলের কর্মীর হত্যার পর (Bajrang Dal Worker Murdered in Karnataka) নতুন কড়া বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে৷ সোমবার বন্ধ রাখা হয়েছে সব স্কুল, কলেজ৷

    এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর শিবমোগ্গা জেলাকে কার্যত দুর্গে পরিণত করা হয়েছে৷ মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক পুলিশ৷ জানা গিয়েছে, বজরং দলের মৃত ওই কর্মীর নাম হর্ষ৷ রবিবার রাতে এলাকার একটি রাস্তার উপরেই তাঁকে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়৷ পুলিশের অবশ্য দাবি, পুরনো শত্রুতার জেরেই এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে৷

    আরও পড়ুন: বিজেপি-র আমলেই দেশ নিরাপদ, কোথায় এগিয়ে আদিত্যনাথ, বড় দাবি অমিত শাহের

    হর্ষ নামে ওই যুবক পেশায় দর্জি ছিলেন৷ জেলায় বজরং দলের সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করতেন তিনি৷

    জানা গিয়েছে, দুষ্কৃতীরা একটি গাড়িতে করে এসে তাড়া করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বজরং দলের ওই কর্মীকে হত্যা করে পালিয়ে যায়৷ গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও মৃত্যু হয় তাঁর৷ বজরং দল এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদের অত্যন্ত সক্রিয় কর্মী ছিলেন হর্ষ৷ গণেশ পুজো এবং বিসর্জনের অনুষ্ঠানেও সামনের সারিতে থাকতেন তিনি৷ এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পরই নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়৷

    আরও পড়ুন: বুলডোজার সারাই হচ্ছে, ১০ মার্চের পর কাজে লাগবে: নির্বাচনের মুখে মন্তব্য যোগী আদিত্যনাথের

    এই ঘটনায় অবশ্য পুলিশ ইতিমধ্যেই একজনকে গ্রেফতার করেছে৷ বাকি অভিযুক্তদেরও খোঁজ চলছে৷

    হর্ষ নামে বজরং দলের সদস্যের বিরুদ্ধে অন্য ধর্মকে আঘাত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অভিযোগও ছিল৷ এ নিয়ে বজরং দলের ওই কর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগও দায়ের হয়৷ তাঁকে ফোনে হুমকিও দেওয়া হচ্ছিল বলে জানা যাচ্ছে৷

    ঘটনার পরই জেলা জুড়ে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়৷ পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটও ছোড়া হয়৷ পরে বিশাল সংখ্যক পুলিশবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে৷ রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আরাগা জ্ঞানেন্দ্র নিজে গিয়ে নিহতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে যথাযথ তদন্তের আশ্বাস দেন৷ যদিও তাঁর দাবি, হিজাব নিয়ে বিতর্কের সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডের কোনও সম্পর্ক নেই৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Bajrang Dal, Karnataka

    পরবর্তী খবর