দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কাল অনশনে কৃষকদের সঙ্গী কেজরিওয়াল, সব সমর্থকদের অনুরোধ করলেন শামিল হতে

কাল অনশনে কৃষকদের সঙ্গী কেজরিওয়াল, সব সমর্থকদের অনুরোধ করলেন শামিল হতে
অনশনে বসছেন কেজরীওয়ালও।

আন্দোলনরত কৃষকদের হয়ে সুর সপ্তমে চড়ালেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জানিয়ে দিলেন, আগামিকাল ১৪ ডিসেম্বর অনশনরত কৃষকদের পাশে তাদেরই একজন হয়ে থাকবেন তিনি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আগাগোড়া সমর্থন করে এসেছেন তাঁর চৌহদ্দিতেই বেড়ে চলা কৃষক আন্দোলনকে। বনধের দিনে তাঁকে গৃহবন্দি রাখার অভিযোগও উঠেছে। এবার আরও একবার আন্দোলনরত কৃষকদের হয়ে সুর সপ্তমে চড়ালেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জানিয়ে দিলেন, আগামিকাল ১৪ ডিসেম্বর অনশনরত কৃষকদের পাশে তাদেরই একজন হয়ে থাকবেন তিনি।

কেজরিওয়াল এদিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, "আমি কৃষকদের সমর্থনে কাল অনশন করব। আমি চাই আম আদমি পার্টির স্বেচ্ছাসেবকরা এতে যোগ দিন। কেন্দ্রকে শীঘ্রই কৃষকদের সব দাবিদাওয়া মেনে নিতে হবে। ন্যূনতম সহায়ক মূল্য সুনিশ্চিত হয় এমন বিল আনতে হবে।"

ক্ষোভ প্রকাশ করে কেজরিবাল আরও বলেন, "হাজার হাজার মানুষ কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করেন। আমি সকলক অনুরোধ করব এই অনশনে যোগ দিতে। এই আইন দেশের দশের জন্য ক্ষতিকর। এই আইনে মাল অনৈতিক ভাবে গুদামজাত করার ছাড়পত্র দেওয়া আছে, ফলে পণ্যের মূল্য বাড়বে।"

প্রসঙ্গত,সোমবার সকাল ৮ টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত অনশনের পরিকল্পনা রয়েছে কৃষক সংগঠনগুলির। পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন অংশে ৩২টি কৃষি সংগঠন আলাদা ভাবে পথে নামতে চলেছে।

এখনও পর্যন্ত কেন্দ্র ও কৃষকদের পাঁচটি বৈঠক হলেও সবই নিস্ফলা হয়েছে। কৃষকর তিনটি আইন প্রত্যাহার ব্যতীত অন্য কোনও কথাই শুনতে চান না। গত ২৭ সেপ্টেম্বর কেন্দ্র তিনটি কৃষিবিলকে আইনে পরিণত করে। এর মধ্যে রয়েছে অত্যাবশ্যক পণ্য আইন, যেখানে যুদ্ধ পরিস্থিতি বাদ দিয়ে ব্যবসায়ীরা সব সময়েই যত ইচ্ছে মজুত করতে পারবে আলু, ডাল বা অন্যান্য দানাশস্য। রয়েছে খামার চুক্তি পরিষেবা আইন, সেখানে চুক্তি-চাষকে মান্যতা দেওয়া বলেও চাষি কী ভাবে ন্যয্য মূল্য পাবেন তা বলা নেই। এছাড়া রয়েছে ব্যবসায়ীর কাছে কৃষকরের ফসল বিক্রির আইন। মাণ্ডি থেকে ফসল কিনতে হলে যে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য দেওয়া হত, তার কথা বলা নেই এই আইনে।

Published by: Arka Deb
First published: December 13, 2020, 5:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर