• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • 23 MEMBERS OF IPAC TEAM WHO WERE UNDER HOUSE ARREST IN TRIPURA TESTED COVID NEGATIVE SMJ

২৩ জনেরই করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ, এবার কি মুক্তি পাবেন ত্রিপুরায় আটক আইপ্যাক সদস্যরা!

তৃণমূলের তরফে বিজেপি এবং ত্রিপুরা পুলিশের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

তৃণমূলের তরফে বিজেপি এবং ত্রিপুরা পুলিশের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

  • Share this:

    #আগরতলা:

    ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের পরই বড়সড় টার্গেট সেট করেছে তৃণমূল। এবার লড়াই সর্বভারতীয় স্তরে। আর সেই লক্ষ্যে এগোতেই ধীরে ধীরে অন্য রাজ্যে পাড়ি জমাচ্ছে তৃণমূল। সেই তালিকায় প্রথমেই রয়েছে ত্রিপুরা। আর সেখানে সমীক্ষা চালাতে গিয়েছিলেন প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আইপ্যাকের ২৩ সদস্য৷ বলাবাহুল্য ত্রিপুরায় বিজেপির ক্ষমতা মাপতেই সেই সমীক্ষা। সেই ২৩ জন সদস্যকে আটক করার অভিযোগ উঠেছে ত্রিপুরা (Tripura) পুলিশের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) তরফে বিজেপি এবং ত্রিপুরা পুলিশের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তোলা হয়েছে। ত্রিপুরা পুলিশ অবশ্য অভিযোগ খারিজ করে জানিয়েছে, করোনার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত ওই ২৩ জনের দলকে একটি হোটেলে থাকতে বলা হয়েছে।

    আইপ্যাক-এর সেই ২৩ জন সদস্যের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। অর্থাত্, কথামতো সেই ২৩ জনের টিমকে এবার মুক্ত করার কথা ত্রিপুরা পুলিশের। এদিকে, আইপ্যাকের প্রতিনিধিদের মুক্ত করতে বুধবারই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক এবং ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের ত্রিপুরায় যাবেন। ২৩ জনের দলটিকে মুক্ত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন তাঁরা। বুধবার সকাল ৯.২০ মিনিটে কলকাতা থেকে বিমান ধরবেন তাঁরা। তৃণমূল কংগ্রেসের ত্রিপুরার সভাপতি আশিস লাল সিং-এর অভিযোগ করেছিলেন, রবিবার রাতে রুটিন তল্লাশির নামে আইপ্যাকের সদস্যদের প্রথমে একদফা হেনস্থা করে ত্রিপুরা পশ্চিম থানার পুলিশ৷ এর পর সোমবারও তাঁদের হোটেল থেকে বেরনোর সময় পুলিশ বাধা দেয় বলে অভিযোগ৷ যদিও বুধবার সকালে ব্রাত্য বসুরা ত্রিপুরায় গিয়ে ওই ২৩ জনকে মুক্ত করার কী ব্যবস্থা করেন সেটাই এখন দেখার।

    Published by:Suman Majumder
    First published: