Home /News /nadia /
Nadia: শিবনিবাস মন্দিরের ভিড় সামলাতে তৎপর হল প্রশাসন

Nadia: শিবনিবাস মন্দিরের ভিড় সামলাতে তৎপর হল প্রশাসন

title=

এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শিবলিঙ্গ নদিয়ার মাজদিয়া এলাকার শিবনিবাস মন্দিরে শ্রাবণ মাসে থাকে অসংখ্য ভক্তের ভিড়। গত দু'বছর করোনা মহামারির কারণে সেভাবে ভক্তরা আসতে পারেনি শিব নিবাস মন্দিরে পুজো দিতে।

  • Share this:

    #নদিয়া : এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শিবলিঙ্গ নদিয়ার মাজদিয়া এলাকার শিবনিবাস মন্দিরে শ্রাবণ মাসে থাকে অসংখ্য ভক্তের ভিড়। গত দু'বছর করোনা মহামারির কারণে সেভাবে ভক্তরা আসতে পারেনি শিব নিবাস মন্দিরে পুজো দিতে। সেই কারণে এবার পুনরায় আগের মতই শিবনিবাস মন্দিরে ভক্তদের জল ঢালার জন্য ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে।  মূলত শ্রাবণ মাসের প্রথম সোমবার এবং শেষ সোমবারই ভিড় হয় চোখে পড়ার মত। এই ভিড় সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয় প্রশাসনকেও। জেলা ও জেলার বাইরে থেকে অগণিত ভক্তের ঢল আসে এই সময় পুজো দিতে। ভিড়ের কারণে কোন অঘটন যাতে না ঘটে সেই দিকে অতি তৎপরতার সঙ্গে লক্ষ্য রাখছে কৃষ্ণগঞ্জের প্রশাসন। বেশ কয়েক জায়গায় শ্রাবণ মাসে পুজো দিতে গিয়ে ভক্তদের দুর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণ হারাতে হয়েছে এমন ঘটনাও উঠে এসেছে সামনে।

    সেই কারণে আগামী ১৪ আগস্ট শ্রাবণ মাসের শেষ সোমবারে অগণিত ভক্তদের ভিড় সামাল দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই তৎপর হয়েছে প্রশাসন। এবং সেই কারণেই কৃষ্ণনগর জেলা পুলিশ আধিকারিক সৌরভ রায় জানালেন আগামী ৬ আগস্ট কৃষ্ণগঞ্জ পঞ্চায়েত আধিকারিক, কৃষ্ণগঞ্জ বিডিও ও কৃষ্ণগঞ্জ পুলিশ প্রশাসন এবং মন্দিরের আধিকারিকদের সঙ্গে নিয়ে একটি বিশেষ মিটিংয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

    আরও পড়ুনঃ নতুন জেলা হিসেবে ঘোষণা হতেই উৎসবে মাতলেন রানাঘাটবাসি

    এই মিটিং য়ে আগামী ১৪ আগস্ট শিবনিবাস মন্দিরে ভক্তদের সুরক্ষার বিষয় নিয়েই বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হবে বলে জানালেন তিনি। যেমন মন্দিরে থাকবে ওয়ান ওয়ে রাস্তা ভক্তরা এক দিক দিয়ে প্রবেশ করবেন ও একদিক দিয়ে প্রস্থান করবেন। থাকবে সমস্ত রকম জরুরি কালীন পরিষেবা।

    আরও পড়ুনঃ ২০টি ফলন্ত গাছ কেটে ফেলা হল পর পর! নির্বিকার বন দফতর

    এছাড়াও জানা যায় ঐদিন ডিজে মাইক বাজানো নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আগামী ১৪ তারিখ নির্বিঘ্নে ভক্তরা যাতে পুজো দিতে পারেন তারই জন্য প্রশাসনের এই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাকে যথেষ্টই প্রশংসা করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

    Mainak Debnath
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Nadia

    পরবর্তী খবর