• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Bengal News| দেশের প্রথম ২০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় জায়গা পেল বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়

Bengal News| দেশের প্রথম ২০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় জায়গা পেল বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়

photo source local 18

photo source local 18

Bengal News| ষষ্ঠ স্থানে আছে আইআইটি খড়্গপুর। প্রথম দশে রাজ্যের আর কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জায়গা পায়নি।

  • Share this:

    #পশ্চিম মেদিনীপুর:  দেশের সমস্ত সেরা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির সর্বভারতীয় র‍্যাঙ্ক (Rank) প্রকাশ করল NIRF (National Institutional Ranking Framework) বা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউশনাল র‍্যাঙ্কিং ফ্রেমওয়ার্ক। জাতীয় স্তরে র‍্যাঙ্কিং প্রদানকারী এই এনআইআরএফ- ২০২১ (NIRF- 2021) অনুযায়ী দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় স্থান পেয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। যথাক্রমে চতুর্থ ও অষ্টম স্থানে আছে কলকাতা ও যাদবপুর। এই দুই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

    বিশেষত, যাদবপুরকে ছাপিয়ে গিয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই উত্তরণে গর্বিত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সহ সংশ্লিষ্ট সব মহলই। তবে, এই দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া প্রথম ১০০ তে রাজ্য থেকে আছে মাত্র ২ টি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্বভারতী (৬৪) এবং বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় (৮৫)। তালিকায়, ১০১ থেকে ১৫০ (১০০'র পর থেকে আর ইন্ডিভিজুয়াল বা একক র‍্যাঙ্কিং দেওয়া হয়নি) এর মধ্যে স্থান পেয়েছে, কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়। অপরদিকে, মফস্বল মেদিনীপুর তথা জঙ্গলমহল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান এই তালিকার ১৫১ থেকে ২০০'র মধ্যে। বিদ্যাসাগরের সঙ্গে এই একই র‍্যাঙ্কিংয়ের মধ্যে আছে, নদীয়ার মৌলানা আবুল কালাম আজাদ বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিলিগুড়ির নর্থ বেঙ্গল বিশ্ববিদ্যালয়। সারা দেশের এখ হাজারেরও বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মফস্বল তথা জঙ্গলমহলের এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ২০০ - তে জায়গা করে নেওয়ার খবর নিঃসন্দেহে গর্বের!

    রাজ্যের প্রথম ৯ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকাতেও বিদ্যাসাগর স্থান পাওয়ায় কর্তৃপক্ষ খুশি। এদিকে, চলতি মাসে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ন্যাক (NAAC) এর পরিদর্শন আছে, তার প্রাক্কালে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, "সমস্ত দিক দিয়েই মানের আরো উন্নয়ন ঘটানোই আমাদের লক্ষ্য।" অন্যদিকে, দেশের সেরা তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় হল যথাক্রমে- ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স (বেঙ্গালুরু), জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় (নিউ দিল্লি) এবং বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় (বারানসি)।

    অপরদিকে, এই NIRF- 2021 র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী দেশের সেরা কলেজগুলির তালিকায় আছে কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ এবং হাওড়ার রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যামন্দির। দেশের মধ্যে যথাক্রমে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছে এই ২ টি কলেজ। দেশের প্রথম তিনটি কলেজ হল যথাক্রমে- মিরান্দা হাউস (দিল্লি), লেডি শ্রীরাম কলেজ ফর ওমেন (নিউ দিল্লি) এবং লয়োলা কলেজ (চেন্নাই)। অপরদিকে, রাজ্যের কলেজগুলোর মধ্যে প্রথম ১০০'তে জায়গা পাওয়া অন্য কলেজগুলি হল যথাক্রমে- রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ সেন্টেনারি কলেজ (রহড়া); রামকৃষ্ণ মিশন রেসিডেন্সিয়াল কলেজ (কলকাতা) এবং বেথুন কলেজ। র‍্যাঙ্ক যথাক্রমে- ১৫, ২১ ও ৭৭।

    অন্যদিকে, প্রথম ১০১ থেকে ১৫০ এর মধ্যে যে ৩ টি কলেজ রাজ্য থেকে স্থান পেয়েছে, সেগুলি হল- জঙ্গলমহল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার রাজা নরেন্দ্র লাল খান মহিলা মহাবিদ্যালয়,  (স্বশাসিত); লেডি ব্রেবোর্ন কলেজ (কলকাতা) এবং লরেটো কলেজ (কলকাতা)। অন্যদিকে, ১৫১ থেকে ২০০'র মধ্যে জায়গা পেয়েছে রাজ্যের একটিমাত্র কলেজ, সেটি হল- মেদিনীপুর কলেজ (স্বশাসিত)। দেশের কয়েক হাজার এবং রাজ্যের কয়েকশো কলেজের মধ্যে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তথা মেদিনীপুর শহরের এই দু'টি কলেজের উল্লেখযোগ্য স্থান পাওয়া সারা মেদনীপুর বাসীকেই গর্বিত করেছে! রাজ্যের প্রথম ৯ টি কলেজের মধ্যে রাজা নরেন্দ্রলাল খান মহিলা মহাবিদ্যালয় (গোপ কলেজ হিসেবে পরিচিত) এবং মেদিনীপুর কলেজ জায়গা করে নেওয়ায় উচ্ছ্বসিত এই দুই কলেজ কর্তৃপক্ষ। তবে, মেদিনীপুর কলেজ-কেও টপকে গিয়ে গোপ কলেজের এই উত্তরণে গর্ব অনুভব করেছেন কলেজের অধ্যক্ষা, অধ্যাপক-অধ্যাপিকা থেকে শুরু করে ছাত্রীরা! এদিকে, সার্বিক বিচারে যে সর্বভারতীয় র‍্যাঙ্ক প্রকাশিত হয়েছে তাতে রাজ্য থেকে সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে খড়্গপুর আইআইটি (IIT Kharagpur)।

    ষষ্ঠ স্থানে আছে আইআইটি খড়্গপুর। প্রথম দশে রাজ্যের আর কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জায়গা পায়নি। ১১ তম স্থানে আছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। দেশের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে সার্বিক বিচারে প্রথম স্থানে আছে মাদ্রাজ আইআইটি। দ্বিতীয় স্থানে আছে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স বেঙ্গালুরু, তৃতীয় স্থানে আছে বোম্বে আইআইটি, চতুর্থ স্থানে আছে দিল্লি আইআইটি এবং পঞ্চম স্থানে আছে কানপুর আইআইটি। গত তিন বছর পঞ্চম স্থানে থাকলেও, এবার ষষ্ঠ স্থানে চলে গেছে খড়্গপুর আইআইটি (IIT Kharagpur)। যদিও, কিছুদিন আগে প্রকাশিত আন্তর্জাতিক কিউএস র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি করেছিল খড়্গপুর আইআইটি (৩১৪ থেকে উঠে গিয়েছিল ২৮০-তে)। এ নিয়ে আইআইটি খড়্গপুরের রেজিস্ট্রার তমাল নাথ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, "বিভিন্ন মানদণ্ডের নিরিখে এই র‍্যাঙ্কিং হয়। তবে, মানের আরও উন্নয়ন ঘটানোই আমাদের লক্ষ্য।"

    Partha Mukherjee

    Published by:Piya Banerjee
    First published: