• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • দখল করা আবাসনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করল ডিপিএল, বিক্ষোভ আবাসিকদের

দখল করা আবাসনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করল ডিপিএল, বিক্ষোভ আবাসিকদের

জমায়েত করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন আবাসনের বাসিন্দারা।

জমায়েত করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন আবাসনের বাসিন্দারা।

অভিযোগ উঠছে, আবাসনগুলি অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়ার পেছনে বড় অসাধু চক্র কাজ করছে।

  • Share this:

    #দুর্গাপুর:  রাজ্য সরকার দুর্গাপুর প্রজেক্ট লিমিটেডকে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য বেশ কয়েকটি উদ্যোগ নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছে, কারখানার অধীনে থাকা ফাঁকা জমিগুলি বিক্রি করে তা কারখানার উন্নয়নের কাজে লাগানো হবে। পাশাপাশি অবৈধভাবে যে আবাসনগুলি দখল হয়ে আছে, সেগুলিও ফাঁকা করে দেওয়া হবে। ডিপিএল এই পদক্ষেপ ঘোষণা করার পরেই চিন্তা বাড়ে ডিপিএল টাউনশিপে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের। এরপর ডিপিএল কড়া পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করতেই, সেই সমস্ত মানুষজন বিক্ষোভে নামছেন।

    ডিপিএল কারখানার অধীনে থাকা আবাসনগুলির মধ্যে অন্যতম পুরনো, ওল্ডজিটি আবাসন এলাকা। দামোদর সংলগ্ন এই আবাসনগুলির বেশিরভাগই অবৈধভাবে দখল হয়ে গিয়েছে। তাই কারখানা কর্তৃপক্ষ দিন আটেক আগে, সেই সমস্ত আবাসনগুলির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। আট দিন ধরে বিদ্যুৎ না পাওয়ার পরে, বিক্ষোভে নেমেছেন আবাসনের বাসিন্দারা।

    জানা গিয়েছে, ওল্ড জিটিতে প্রায় একশ কুড়িটি মত ঘর রয়েছে। যার সিংহভাগ আবাসনেই মানুষের বসবাস রয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ১০০ টি পরিবার কারখানার অনুমতি ছাড়াই সেখানে দখল করে বসবাস করছেন। সেই কারণে গত সপ্তাহে, সেই সমস্ত আবাসনগুলির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে।

    আবাসনের বাসিন্দাদের অভিযোগ, কোনওরকম সময় না দিয়ে, তাদের বাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। কোনও আবাসিককে ঘর ছেড়ে দিতে হলে, তাকে অন্তত দু মাসের সময় দেওয়া হয়। কিন্তু ওল্ড জিটির বাসিন্দাদের ক্ষেত্রে সে সময় দেওয়া হয়নি। আটদিন ধরে তারা বিদ্যুৎহীন অবস্থায়, চরম দুর্দশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তাই আবাসিকদের দাবি, অবিলম্বে তাদের বাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে হবে। যদি কারখানা কর্তৃপক্ষ বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় দিতে অস্বীকার করে, তাহলে বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আবাসিকরা।

    অভিযোগ উঠছে, আবাসনগুলি অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়ার পেছনে বড় অসাধু চক্র কাজ করছে। তাই ডিপিএল কর্তৃপক্ষ, কড়া পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করতেই এই রকম বিক্ষোভ দেখা যাচ্ছে। কিছুদিন আগে ডিপিএল তাদের অধীনে থাকা ফাঁকা জমিগুলিতে দখলদার উচ্ছেদ করার প্রক্রিয়া শুরু করেছিল। তখনও এইরকম বিক্ষোভ দেখা গিয়েছিল। তারপর ফের নতুন করে ওল্ডজিটি নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ডিপিএল কর্তৃপক্ষকে।

    যদিও অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, এই অসাধু চক্র বা বেআইনি দখলদারির ক্ষেত্রে আগে কেন পদক্ষেপ করেনি কারখানা কর্তৃপক্ষ? যদি এই দখলদারির বিরুদ্ধে আগেই পদক্ষেপ করা হত, তাহলে কারখানার ক্ষতির পরিমাণ কিছুটা হলেও কম হত। কিন্তু এসবের ঊর্ধ্বে গিয়ে, এখন দখলদারদের উচ্ছেদ করা, বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে দুর্গাপুর প্রজেক্ট লিমিটেডের কাছে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: