Home /News /local-18 /

প্রতিশ্রুতি ছিল খেলার মাঠের, হয়েছে আবর্জনা ফেলার ভ্যাট, ক্ষোভ নলহাটির বাসিন্দাদের

প্রতিশ্রুতি ছিল খেলার মাঠের, হয়েছে আবর্জনা ফেলার ভ্যাট, ক্ষোভ নলহাটির বাসিন্দাদের

প্রতিশ্রুতি ছিল খেলার মাঠের, হয়েছে আবর্জনা ফেলার ভ্যাট, ক্ষোভ নলহাটির বাসিন্দাদের

প্রতিশ্রুতি ছিল খেলার মাঠের, হয়েছে আবর্জনা ফেলার ভ্যাট, ক্ষোভ নলহাটির বাসিন্দাদের

ওই ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর অশোক ঘোষ জানিয়েছেন, প্রতিশ্রুতি মতোই কাজ হবে। এ বিষয়ে পৌরসভা দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

  • Share this:
    মাধব দাস, বীরভূম : বীরভূমের নলহাটি পৌরসভার তরফ থেকে একসময় একটি খেলার মাঠ তৈরি করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে লক্ষ্য করা যায় যে জায়গায় খেলার মাঠটি তৈরি করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল সেই জায়গায় অস্থায়ী ভ্যাট তৈরি করে আবর্জনা ফেলার কাজ চালানো হচ্ছে। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষোভ তৈরি হচ্ছে এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে। যদিও ওই ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর অশোক ঘোষ জানিয়েছেন, প্রতিশ্রুতি মতোই কাজ হবে। এ বিষয়ে পৌরসভা দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। ঘটনাটি বীরভূমের নলহাটির এক নম্বর ব্লকের নলহাটি পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের জগধারি ব্রিজের পাশে। যে জায়গায় নলহাটি পৌরসভার তরফ থেকে অস্থায়ী ভ্যাট তৈরি করে এমন নোংরা ফেলার কাজ করা হচ্ছে সেই জায়গার পাশেই রয়েছে মন্দির এবং শ্মশান। যে কারণে ক্ষোভ আরও বেশি প্রশমিত হচ্ছে। ইতিমধ্যেই এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে একদিন এলাকার বাসিন্দারা পৌরসভার নোংরা ফেলার গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা স্বপন দাস জানিয়েছেন, \"এই যে জায়গাটি দেখতে পাচ্ছেন, যেখানে এখন পৌরসভার নোংরা ফেলে ভরিয়ে দেওয়া হয়েছে সেখানেই পৌরসভার তরফ থেকে একটি ফুটবল খেলার মাঠ তৈরি করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি অথৈ জলে। বরং এখানে দিনের পর দিন নোংরা আবর্জনা ফেলার ফলে জায়গাটির দূষণ বেড়েই চলেছে। এমনকি নোংরা আবর্জনা কারণে যে সকল গাছপালা রয়েছে সেগুলিও ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমাদের দাবি অবিলম্বে পৌরসভাকে এখানে নোংরা ফেলা বন্ধ করতে হবে এবং প্রতিশ্রুতি মত ফুটবল খেলার মাঠ তৈরি করে দিতে হবে।\" ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নলহাটি পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা নলহাটি এক নম্বর ব্লকের তৃণমূল ব্লক সভাপতি স্বপন ঘোষ জানিয়েছেন, \"ইতিমধ্যেই পৌরসভার তরফ থেকে অন্যত্র একটি ছয় বিঘা জায়গা দেখা হয়েছে। সেই জায়গা কেনার জন্য বায়নাও হয়ে গিয়েছে। অতি মারির কারণে কাজ বাকি রয়েছে। তবে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে সবুজ সঙ্কেত মিললেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। তারপর এখানে আর নোংরা আবর্জনা ফেলা হবে না এবং প্রতিশ্রুতি মত মাটি ভরাট করে ফুটবল খেলার মাঠ তৈরি করে দেওয়া হবে।\"
    Published by:Pooja Basu
    First published:

    Tags: Municipality, Nalhati

    পরবর্তী খবর