• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • BIRBHUM HS RESULT 2021 BIRBHUM TOPS PASS PERCENTAGE 5 STUDENTS IN TOP 10 AC

পাশের হারে উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম বীরভূম, প্রকাশিত তালিকায় প্রথম দশে পাঁচ পড়ুয়া

পাশের হারে উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম বীরভূম, প্রকাশিত তালিকায় প্রথম দশে পাঁচ পড়ুয়া

৮৬ জনের একটি তালিকা সামনে এসেছে, যে তালিকাটি হলো প্রথম দশের। এই প্রথম দশ জনের পাঁচ জন বীরভূমের পড়ুয়া।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফ থেকে বৃহস্পতিবার চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। করোনার কারণে বিকল্প পদ্ধতি অনুসরণ করে এই মূল্যায়ন করা হয়েছে। ফলাফল প্রকাশ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দেখা যাচ্ছে রাজ্যের মধ্যে পাশের হারে প্রথম বীরভূম।

    অন্যদিকে চলতি বছর পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়নি শিক্ষা সংসদের তরফ থেকে। মেধা তালিকা প্রকাশিত না হলেও ৮৬ জনের একটি তালিকা সামনে এসেছে, যে তালিকাটি হলো প্রথম দশের। এই প্রথম দশ জনের পাঁচ জন বীরভূমের পড়ুয়া।

    চলতি বছর বীরভূমে মোট উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৮,৩০১ জন। যাদের মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা হল ১২,৬৯০ জন এবং ছাত্রীর সংখ্যা হল ১৫,৬১১ জন। এদের মধ্যে পাশ করেছেন ২৭,৮৯৪ জন। পাশের দিক দিয়ে ছাত্রদের সংখ্যা ১২,৫১২ এবং ছাত্রীদের সংখ্যা ১৫,৩৮২। জেলায় শতকরা পাসের হার ৯৭.৫৬ শতাংশ, যা রাজ্যের অন্যান্য জেলার তুলনায় বেশি।

    প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী বীরভূমের যে পাঁচজন পড়ুয়া প্রথম দশে রয়েছেন তারা হলেন সাবর্ণী চ্যাটার্জী, বঙ্গাব্দ দাস, সৌরভ নন্দী, পুষ্পল হাজরা, সপ্তর্ষি মণ্ডল। সাবর্ণী চ্যাটার্জী রামপুরহাটের ধুলাডাঙ্গা রোডের বাসিন্দা। সে রামপুরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। তার প্রাপ্ত নম্বর হলো ৪৯৮।

    বঙ্গাব্দ দাস রামপুরহাটের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের গান্ধী পার্ক পূর্বের বাসিন্দা। সে রামপুরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। তার প্রাপ্ত নম্বর হলো ৪৯৮।

    সৌরভ নন্দী মুরারই ব্লকের বালিয়া পালসা গ্রাম পঞ্চায়েতের বালিয়া গ্রামের বাসিন্দা। সে মুরারই এ.কে. ইনস্টিটিউটের ছাত্র। তার প্রাপ্ত নম্বর হলো ৪৯৭।

    পুষ্পল হাজরা সিউড়ির পশ্চিম লালকুঠি পাড়ার বাসিন্দা। সে বীরভূম জেলা স্কুলের ছাত্র। তার প্রাপ্ত নম্বর হলো ৪৯২।

    সপ্তর্ষি মণ্ডল দুবরাজপুরের এক নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। সপ্তর্ষি দুবরাজপুর শ্রী শ্রী সারদা বিদ্যাপীঠের ছাত্র। তার প্রাপ্ত নম্বর হলো ৪৯০।

    তবে বীরভূমের এই সকল পড়ুয়ারা এই বিপুল সংখ্যক নম্বর পেলেও তাদের এবং তাদের অভিভাবকরা দাবি করেছেন, \'যদি এই নম্বর পরীক্ষা দিয়ে পাওয়া যেত তাহলে আরও বেশি খুশি হতাম\'।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: