Perfume: মহার্ঘ্য সুগন্ধির সুবাসও ক্ষণস্থায়ী? কী করে পারফিউমের গন্ধ ধরে রাখবেন, জানুন

ফাইল ছবি

আমাদের শরীরের এমন কিছু জায়গা রয়েছে যেখানে পারফিউম (Perfume) লাগালে অনেক সময় ধরে সুগন্ধ বজায় থাকবে আর নিজেকে ফ্রেশ মনে হবে। তাহলে আসুন শরীরের এই চারটি জায়গা এবং কী ভাবে পারফিউম লাগাব জেনে নিই!

  • Share this:

শরীরে সুগন্ধি লাগাতে কে না পছন্দ করে ? কিন্তু সে সুগন্ধের আয়ু বড়জোর কয়েক ঘন্টা। তার ওপর এই প্যাচপ্যাচে গরম, ধুলোবালি, ঘাম- সব কিছু মিলিয়ে দুপুর গড়াতে না গড়াতেই আমাদের ফ্রেশনেস কেটে যায়। সুগন্ধ ধরে রাখার জন্য অনেকেই অনেক চেষ্টা করে দেখেছেন। ভালো ও দামী ব্যান্ডের পারফিউমের পেছনে অনেক খরচও করা হয়েছে। আবার কেউ কেউ নানান ধরনের টিপস্‌ যেমন বডি লোশনের সাথে পারফিউম মিশিয়ে লাগানো, ভেজা শরীরে পারফিউম লাগানো কোনও কিছুই বাদ দেননি, অথচ কাজের কাজ কিছু হয়নি। আসলে আমাদের শরীরে সুগন্ধি কতক্ষণ টিকবে তা নির্ভর করে পারফিউম শরীরের কোথায় লাগানো হচ্ছে তার ওপর। অবাক হবেন না, আপনি ঠিকই পড়ছেন। আমাদের শরীরের এমন কিছু জায়গা রয়েছে যেখানে পারফিউম (Perfume) লাগালে অনেক সময় ধরে সুগন্ধ বজায় থাকবে আর নিজেকে ফ্রেশ মনে হবে। তাহলে আসুন শরীরের এই চারটি জায়গা এবং কী ভাবে পারফিউম লাগাব জেনে নিই!

কনুইয়ের ভাঁজে

সুগন্ধি লাগাতে গিয়ে আমাদের রিস্টে বা হাতের উল্টোদিকের কথাই সাধারণত মাথায় আসে। কিন্তু এক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো জায়গা হতে পারে কনুই। কনুইয়ের ভাঁজে তৈরি হওয়া তাপ অনেক সময় ধরে পারফিউমের গন্ধ ধরে রাখতে পারে।

কানের পিছনে

আমাদের কানের পিছনের অংশ সাধারণত তৈলাক্ত প্রকৃতির হয়। এই তৈলাক্ত অংশই সুগন্ধ ধরে রাখতে সক্ষম। কানের পিছনে কিছুটা ওপরের দিকে সামান্য একটু পারফিউম স্প্রে করলেই সারা দিন সুগন্ধ উপভোগ করা যায়।

নাভির সামনের অংশে

আমাদের শরীরের এই নাভির সামনের অংশেই বেশি ঘাম তৈরি হয়। কিন্তু জানেন কি পারফিউমের মিষ্টি গন্ধ এখানেই সবচেয়ে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়? সুতরাং এর পর থেকে পারফিউম লাগাতে হলে এই জায়গার কথা ভুলে গেলে চলবে না।

হাঁটুর ভাঁজে

ঠিক যেমন ভাবে আমাদের কনুইয়ের পেছনে ঘাম জমে, হাঁটুর ক্ষেত্রেও একই ব্যাপার ঘটে। তাই কনুইয়ের পাশাপাশি হাঁটুর ভাঁজেও পারফিউম লাগাতে হবে। শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় এটি বেশি অয়েলি হয় বলে অনেকক্ষণ সুগন্ধ ধরে রাখতে সক্ষম!

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: