• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • দুই পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক পৌরুষের বহির্প্রকাশ, তা সমকামিতা নয়; বলছেন বিশেষজ্ঞ

দুই পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক পৌরুষের বহির্প্রকাশ, তা সমকামিতা নয়; বলছেন বিশেষজ্ঞ

কোর্ট বলছেন যে পুরুষদের কাছে শারীরিক সঙ্গম বিষয়টা মুহূর্তের তাৎক্ষণিক দাবির উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে। কিন্তু নারীদের ক্ষেত্রে তা হয় না

কোর্ট বলছেন যে পুরুষদের কাছে শারীরিক সঙ্গম বিষয়টা মুহূর্তের তাৎক্ষণিক দাবির উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে। কিন্তু নারীদের ক্ষেত্রে তা হয় না

কোর্ট বলছেন যে পুরুষদের কাছে শারীরিক সঙ্গম বিষয়টা মুহূর্তের তাৎক্ষণিক দাবির উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে। কিন্তু নারীদের ক্ষেত্রে তা হয় না

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: মনে আছে, ২০১৩ সালে দেশে রীতিমতো এক বিতর্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছিল রামদেবের (Ramdev) এক উক্তিতে? সেই সময়ে তিনি বলেছিলেন যে সমকামিতা একটা অসুখ বই আর কিছুই নয়, এটা যোগাসনের নিয়মিত অভ্যাসে সারিয়ে তোলা সম্ভব!

তার পর মাঝের ৮ বছরে সময়ের খাতে গড়িয়ে গিয়েছে অনেক জল। সমকামিতা স্বাভাবিক কি না, সমকামী যুগলের সম্পর্ক এবং বিবাহ আইনসিদ্ধ হওয়া উচিৎ কি না, এই নিয়ে আন্দোলন বিশ্ব জুড়ে কঠিনতর হয়ে উঠেছে। আর তার মাঝেই ইউনাইটেড স্টেটসের এক সমকামী সেক্সোলজিস্টের মন্তব্য তুমুল আলোড়ন ফেলে দিল বিশ্বে। তাঁর নাম ডক্টর জো কোর্ট (Dr. Joe Kort)। তিনি দাবি তুললেন যে দুই পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক আদতে পৌরুষেরই বহির্প্রকাশ, তা সমকামিতা নয়!

কোর্টের এই মন্তব্যকে ঘিরে কেন শোরগোল, তা জানার আগে তাঁর সম্পর্কে দু'-এক কথা না বললেই নয়! মাত্র ১৪ বছর বয়সে নিজের সেক্সুয়াল ওরিয়েন্টেশনের কথা বাড়িতে জানিয়ে দিয়েছিলেন কোর্ট। তার পরে ক্রমাগত তাঁর লড়াই চলেছে সামাজিক ট্যাবু নিয়ে। পাশাপাশি চালিয়েছেন নিজের পড়াশোনা। আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ ক্লিনিকাল সেক্সোলজিস্ট নামের সরকারি সংস্থা থেকে পাশ করে বেরিয়েছেন তিনি, খুলেছেন নিজের ক্লিনিক। বিশ্বদরবারে তাঁর নাম যথেষ্ট পরিচিত, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরাগীর সংখ্যাও নেহাত কম নয়। ফলে, সমকামী এই সেক্সোলজিস্টের মন্তব্য ঘিরে উত্তাপের মুহূর্ত তৈরি হয়েছে।

কোর্ট বলছেন যে পুরুষদের কাছে শারীরিক সঙ্গম বিষয়টা মুহূর্তের তাৎক্ষণিক দাবির উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে। কিন্তু নারীদের ক্ষেত্রে তা হয় না। তাঁর দাবি, পুরুষদের কাছে শারীরিক সঙ্গম বিষয়টা শুধুই অন্যের শরীরে প্রবেশ করার মধ্যে সীমাবদ্ধ। তাই শরীরটি নারী না আরেক পুরুষের, সেটা নিয়ে তেমন চিন্তিত থাকেন না তাঁরা। সেই দিক থেকে দুই পুরুষের শারীরিক সম্পর্ককে সমকামিতার আখ্যা দিতে চান না কোর্ট! তাঁর বক্তব্য, এই দৃষ্টিভঙ্গীর উপরে নির্ভর করে পুরুষদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক বহু যুগ ধরেই চলে আসছে, একে পৌরুষেরই আরেক পিঠ বলে বিবেচনা করা উচিৎ। সেই সঙ্গমে দুই পুরুষের মধ্যে একজন সমকামী হতে পারেন, কিন্তু এর বেশি আর কিছু নয়!

সঙ্গত কারণেই কোর্টের এই মন্তব্য ঘিরে উত্তাল হয়েছে দুনিয়া, এমনকী তাঁর অনেক ফলোয়ারও। অনেকেরই বক্তব্য, এই যদি পরিস্থিতি হয়, তাহলে নারীদের পরস্পরের মধ্যে শারীরিক অন্তরঙ্গতাকেও সমকামিতা বলা যায় না। অনেকে এই বক্তব্যকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিতে চেয়েছেন। অনেকের আবার দাবি- বিষয়টি এতটাও সহজ নয়, এই নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন! যদিও কোর্ট নিজের বক্তব্য থেকে পিছু হটছেন না। তাঁর দাবি- তিনি কোনও পুরুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক না গড়লেও সমকামী-ই থেকে যাবেন, কিন্তু কোনও পুরুষ তাঁর সঙ্গে অন্তরঙ্গ হলেন মানেই ব্যাপারটাকে সমকামিতা বলা যাবে না!

Published by:Ananya Chakraborty
First published: