• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Edible Oil| Cooking Oil|| আপনার রোজের রান্নার তেল শুদ্ধ তো? কী মিশছে তাতে? কীভাবে বিচার করবেন? জানুন...

Edible Oil| Cooking Oil|| আপনার রোজের রান্নার তেল শুদ্ধ তো? কী মিশছে তাতে? কীভাবে বিচার করবেন? জানুন...

আপনার রোজের রান্নার তেল। সংগৃহীত ছবি।

আপনার রোজের রান্নার তেল। সংগৃহীত ছবি।

The way Vegetable Oil made And How To Check Its Purity: তেল উৎপাদনের আইন ও বিধি অনুসারে, তাদের গুণমান এবং কার্যকারিতা বিশ্লেষণ করার পরে দুই বা ততোধিক তেল মিশ্রণের অনুমতি দেওয়া হয়।

  • Share this:

#কলকাতা: উদ্ভিজ্জ তেল বা ভোজ্য তেল, যা হিন্দিতে বনস্পতি নামে পরিচিত, সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত রান্নার তেলগুলির মধ্যে একটি। কিন্তু উদ্ভিজ্জ তেল আসলে কী এবং কী ভাবে এটি প্রস্তুত করা হয়? দুগ্ধজাত ঘি বা মাখনের তুলনায় উদ্ভিজ্জ তেল উদ্ভিদের নির্যাস থেকে পাওয়া যায়। কিছু জনপ্রিয় উদ্ভিজ্জ তেল বা উদ্ভিদভিত্তিক তেল হল সয়াবিন তেল, ক্যানোলা তেল, সূর্যমুখী তেল, ভুট্টার তেল, অ্যাভোকাডো তেল, জলপাই তেল ইত্যাদি।

সাধারণ বনস্পতি বা উদ্ভিজ্জ তেল সাধারণত হয় সোয়াবিন তেলের সঙ্গে ভুট্টার তেল মিশিয়ে বা শুধুই সোয়াবিন দিয়ে। তেল উৎপাদনের আইন ও বিধি অনুসারে, তাদের গুণমান এবং কার্যকারিতা বিশ্লেষণ করার পরে দুই বা ততোধিক তেল মিশ্রণের অনুমতি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: কুকুর ছানার পিপাসা মেটাতে দেখুন কি কাণ্ড ঘটাল দুই বছরের শিশু! ভিডিও দেখে চোখে জল নেটিজেনদের

কী ভাবে তৈরি হয় এই তেল?

অন্যান্য তেলের তুলনায় উদ্ভিজ্জ তেলের রঙ কিছুটা হলুদ এবং এটি গন্ধহীন। এই তেলটি শুকনো সয়াবিন গুঁড়ো করে তৈরি করা হয়, তার পর তেলের রঙ, গন্ধ এবং টেক্সচার যাতে প্রভাবিত না হয় তার জন্য পাতন ও পরিশোধন করার আগে উদ্ভিদের মধ্যে উপস্থিত অন্যান্য পদার্থ থেকে তেলকে আলাদা করা হয়।

আরও পড়ুন: শীতে কাবু হয়ে কি মোজা পরে ঘুমাতে যান? জেনে নিন শরীরের কী চরম ক্ষতি করছেন!

কী ভাবে এই তেল ব্যবহার করা যায়?

উদ্ভিজ্জ তেল বিভিন্ন উপায়ে ব্যবহার করা যেতে পারে, যেমন ভাজাভুজি, তরকারি রান্না করা, বেকড খাবার তৈরি করা। এই তেল স্যালাডের ড্রেসিং করতে, সস বা ডিপ তৈরি করতেও ব্যবহার করা যেতে পারে। এই তেলের হালকা হলুদ রঙ, হালকা টেক্সচার এবং নিরপেক্ষ গন্ধ একে রান্নার তেল হিসাবে জনপ্রিয় করে তুলেছে।

উদ্ভিজ্জ তেলে রান্না:

উদ্ভিজ্জ তেলের একটি উচ্চ স্মোক পয়েন্ট রয়েছে, প্রায় ৪৫০ ফারেনহাইট, যার মানে এটি উচ্চ-তাপে রান্নার পদ্ধতি যেমন সতে, ডিপ ফ্রাই এবং হাল্কা ভাজার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। উদ্ভিজ্জ তেলে ডিপ ফ্রাই করার ক্ষমতা প্রায় ৩৭৫ ফারেনহাইট, যা তিক্ততা এবং পোড়া গন্ধ উৎপন্ন না করেই রান্নায় সাহায্য করে।

আরও পড়ুন: পেটে অসহ্য যন্ত্রণা হয় ঋতুস্রাবের সময়ে? কী কী খেলে ব্যথা দূর হবে

এটা কি স্বাস্থ্যের জন্য সুরক্ষিত?

উদ্ভিজ্জ তেল ওমেগা ৬ সমৃদ্ধ, যা ক্যানসার কোষের বৃদ্ধি, রক্ত জমাট বাঁধা এবং শরীরে প্রদাহ বৃদ্ধি করে। আসলে, ওমেগা ৩ এবং ৬ এর ভারসাম্যহীনতা হৃদরোগ, অটোইমিউন রোগ, নিউরোডিজেনারেটিভ রোগ এবং এমনকী ক্যানসারের দিকে পরিচালিত করে। তাই অলিভ অয়েল, ঘি বা ভার্জিন নারকেল তেলের মতো স্বাস্থ্যকর এবং অতিরিক্ত ভার্জিন তেলই ব্যবহার করা ভালো।

Published by:Shubhagata Dey
First published: