Home /News /life-style /
Summer Vegetables: গ্রীষ্মকালে এই সবজিগুলো তো পাতে থাকবেই, স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে রান্না করুন এভাবে

Summer Vegetables: গ্রীষ্মকালে এই সবজিগুলো তো পাতে থাকবেই, স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে রান্না করুন এভাবে

গ্রীষ্মকালে এই সবজিগুলো তো পাতে থাকবেই, স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে রান্না করুন এভাবে

গ্রীষ্মকালে এই সবজিগুলো তো পাতে থাকবেই, স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে রান্না করুন এভাবে

Healthy recipes for summer vegetables: গ্রীষ্মকালীন সবজি রান্নার কয়েকটি সহজ রেসিপি থাকল এখানে।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রতিদিন বাজার করা অনেকের কাছেই নেশার মতো। দরদাম করে বেছে-বুছে তাঁরা কেনেন মরশুমি সবজি। এই সব মরশুমি সবজির স্বাস্থ্য উপকারিতা কিন্তু চমকে দেওয়ার মতো। এগুলো জৈবভাবে চাষ হয়, তাই পুষ্টিগুণে ভরপুর। নির্দিষ্ট ঋতুতে প্রচুর পরিমাণে জন্মায়, তাই এর স্বাদও অন্যরকম। এদেশে গ্রীষ্মকালে লাউ, কুমড়ো, পটল, শসা, ঢ্যাঁড়সের মতো সবজি প্রচুর পরিমাণে হয়। গ্রীষ্মকালীন সবজি রান্নার কয়েকটি সহজ রেসিপি থাকল এখানে (Summer Vegetables)।

লাউ: লাউয়ের তরকারি হলেই মুখ ব্যাঁকায় বাচ্চারা। তাদের এটা না-পসন্দ। তবে বেশিরভাগ পরিবারে লাউ রান্না হয় এর প্রচুর স্বাস্থ্য উপকারিতার কারণে। লাউ ওজন কমায়, হজমে সাহায্য করে। ঘুমের ব্যধি নিরাময়েও এর পরিচিতি সর্বজনবিদিত। এমনকী হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতেও লাউ খাবার পরামর্শ দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন-রাহুল সিনহার কথায় আমোদ পেয়েছেন কুণাল ঘোষ, কেন?

বিভিন্ন রকমভাবে লাউ রান্না করা যায়। এটাকে সেদ্ধ করে দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে রায়তার মতো খাওয়া যায়। রাতের রান্নায় আবার লাউয়ের স্যুপ খুবই মুখরোচক। লাউ, পেঁয়াজ, ক্যাপসিকাম এবং টম্যাটো ভালো ভাবে সেদ্ধ করে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। তারপর একটা প্যানে অল্প মাখন এবং জিরে দিয়ে তাতে লাউয়ের পেস্টটা দিয়ে মিনিট খানেক রান্না করতে হবে। নামানোর আগে দিতে হবে নুন এবং কালো মরিচ।

পটল: গ্রীষ্মকালে গৃহস্থ বাড়িতে পটল থাকবে না, এমনটা হতেই পারে না। লাঞ্চ হোক কিংবা ডিনার, এই সময়ে পটলের তরকারি মাস্ট। পটল তারুণ্য ধরে রাখে, সর্দি-কাশি থেকে রক্ষা করে এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে।বেশ কয়েক রকম ভাবে পটলের তরকারি রান্না করা যায়। এর মধ্যে ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এমন পটলের তরকারির রেসিপি সবচেয়ে জনপ্রিয়। প্রথমে কয়েকটা পটল টুকরো করে কেটে শ্যালো ফ্রাই করতে হবে। অন্য ,দিকে একটা প্যান নিয়ে তাতে দিতে হবে জিরে, আদা ও রসুন বাটা। সঙ্গে এলাচ, লবঙ্গ ও অন্যান্য মশলা দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজতে হবে। এবার নুন হলুদ মাখিয়ে তাতে ছেড়ে দিতে হবে ফ্রাই করা পটল। এবার প্যানটা ঢেকে দিতে হবে। কয়েক মিনিটের মধ্যে তৈরি হয়ে যাবে পটলের তরকারি।

আরও পড়ুন-আজ উচ্চ মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ, সবার আগে রেজাল্ট দেখুন News18Bangla.com-এ

ঢ্যাঁড়শ: ঝাল ঝাল ঢ্যাঁড়শের তরকারি কে না পছন্দ করে? গ্রীষ্মকালীন এই সবজি প্রায় সকলেরই প্রিয়। ঢ্যাঁড়শ ফাইবারের সমৃদ্ধ উৎস। ১০০ গ্রাম ঢ্যাঁড়শে ৩.২ গ্রাম ডায়েটারি ফাইবার থাকে। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ঢ্যাঁড়শ খুব উপকারী।

যে কেউ তৈরি করতে পারেন এই সহজ এবং সুস্বাদু ঢ্যাঁড়শের রেসিপি। প্রথমে ঢ্যাঁড়শ টুকরো করে কেটে নিতে হবে। তারপর প্যানে দিয়ে তাতে জিরে, আদার পেস্ট, কাঁচা মরিচ, গরম মশলা দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। ব্যস, ঢ্যাঁড়শের তরকারি তৈরি। পরিবেশনের সময় উপরে কয়েকটা ধনে পাতা ছড়িয়ে দিতে হবে।

শসা: শসা এমনই একটি গ্রীষ্মকালীন সবজি যাতে জলের পরিমাণ সর্বাধিক। এই কারণেই গরমকালে খাবারের সঙ্গে ব্যাপকভাবে শসা খাওয়া হয়। তাপকে বাগে আনতে চিকিৎসকরাও এই সময় শসা খাওয়ার পরামর্শ দেন। শসার স্বাস্থ্য উপকারিতা গুণে শেষ করা যাবে না। ওজন কমাতেও এর জুড়ি নেই। শসা টুকরো টুকরো করে কেটে স্যালাডে বা দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে ধনে পাতা দিয়ে রায়তার মতো খাওয়া যায়।

বেগুন: আজকাল সারা বছরই বেগুন পাওয়া যায়, কিন্তু আদতে এটা গ্রীষ্মকালীন সবজি। এর গ্লাইসেমিক সূচক ১৫, তাই ডায়াবেটিসের রোগীদের বেগুন খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। ক্যালোরি কম থাকায় এটা ওজন কমাতেও সাহায্য করে।

তরকারির জন্য একটি বেগুন, একটি টম্যাটো, আদা-রসুন পেস্ট, একটি পেঁয়াজ, কয়েকটি কাটা রসুন, কাঁচা মরিচ, নুন এবং হলুদ লাগবে। একটি প্যানে কিছু তেল, জিরে, আদা রসুনের পেস্ট দিয়ে ভালোভাবে কষে নিতে হবে। এবার তাতে দিতে হবে টম্যাটো, পেঁয়াজ, নুন এবং হলুদ। টম্যাটো সেদ্ধ হয়ে গেলে তাতে কাটা বেগুন দিতে হবে। এবার একটা ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে প্যান। বেগুন সেদ্ধ হয়ে গেলেই তরকারি প্রস্তুত।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Summer Vegetables

পরবর্তী খবর