One Sided Love: কাউকে একতরফা ভালবাসেন? হতাশ না হয়ে চেষ্টা করুন এই পদ্ধতিগুলো মেনে

হতাশ হলে চলবে না। উল্টোদিকের মানুষটিকে নিজের অনুভূতি বোঝাতে হবে। জেনে নিন পদ্ধতিগুলি।

হতাশ হলে চলবে না। উল্টোদিকের মানুষটিকে নিজের অনুভূতি বোঝাতে হবে। জেনে নিন পদ্ধতিগুলি।

  • Share this:
#কলকাতা: সেই যুগ যুগ ধরে গল্পে কিংবা গীতিকাব্যে একতরফা ভালোবাসার কাহিনী বর্ণনা হয়ে আসছে। বেদনা এবং হৃদয় বিদারক কাহিনী সকলেরই মন ছুঁয়ে যায়। অনেক সময় যখন আপনি কাউকে অত্যন্ত ভালোবাসেন কিন্তু সেই ব্যক্তির আপনার প্র‍তি একইরকম অনুভূতি থাকে না, তখন সেই একতরফা ভালবাসা নিয়ে জীবনে পথচলা সত্যি যথেষ্ট কঠিন হয়ে ওঠে। যদিও কখনও কখনও, আপনাকে নিজের অনুভূতিতে অটল থাকতে দেখে ধীরে ধীরে বিপরীত দিকের ব্যক্তিও প্রেমে পড়ে যেতে পারে। তবে এটি যে সবসময় কার্যকর হবে এমমটাও নয়। এক্ষেত্রে আপনার একতরফা প্রেম কাজ করার কয়েকটি সহজ উপায় দেওয়া হল।
তাদের জানতে দিন যে আপনি তাদের সম্পর্কে ভাবছেন
আপনার উপস্থিতি নিয়মিত তাদের জানান। কোনও বিভ্রান্তির ইঙ্গিত ছাড়াই আপনার অনুভূতি সঠিকভাবে উপস্থাপন করুন। এমন কাজ করুন যাতে তারা আপনার কথা ভাবেন। যেমন ধরুন যদি আপনি বলেন, "এই সিনেমাটি দেখতে দেখতে তোমার কথা মনে পড়ছে," তাদের পক্ষে নিজেকে সংযত করা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।
বন্ধু হোন
কথায় বলে, 'বন্ধু আগে, ভালোবাসা পরে।' তাই ভালোবাসার মানুষের নির্ভরযোগ্য বন্ধু হওয়ার চেয়ে শান্তনার আর কিছু হয় না। তাদের আস্থা অর্জন করতে শিখুন যাতে তারা যেন নিজের ইচ্ছামতো আপনার উপর নির্ভর করে। মনে রাখবেন, একটি গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্কে মোহের চেয়ে বিশ্বাস অনেক বড় বিষয়। তাই নিজের ভালোবাসার মানুষের আগে বিশ্বাসযোগ্য বন্ধু হয়ে উঠুন।
নিজের সবচেয়ে সেরা ব্যক্তিত্ব তাদের দেখান
ভালোবাসার মানুষের কাছাকাছি থাকলে নিজের সবচেয়ে ভালো স্বত্বায় থাকুন। আপনি তাদের সঙ্গে থাকলে কতটা আনন্দে থাকেন তা তাদেরকে দেখানোর চেষ্টা করুন। আপনার উপর তাদের কতটা প্রভাব পড়ে তা জেনে তারা সত্যি খুশী হবেন। অত্যন্ত বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে আপনার সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব প্রদর্শন করুন এবং নিজের একটি ভালো ব্যক্তিত্বের ছাপ রাখুন। আপনি যে তাদের অভাব অনুভব করেন তা তাদের বুঝতে দিন।
তাদেরকে নিয়ে অবসন্ন হবেন না
আপনি তাদের ভালোবাসেন বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব বেশি তাদের অনুসরণ করবেন না। আপনার এই ধরনের প্রবণতা অত্যন্ত ভয়ঙ্কর এবং শুধু তাই নয় যদি তারা আপনার অনুভূতি জানতে পারে তাহলে তারা আপনার সঙ্গে আর কখনো কথাই বলবে না। এটি একটি অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর অভ্যেস কারণ এই ধরনের পরিস্থিতিতে নিজের সীমানা জানা খুব জরুরি। অর্থাৎ কোথায় কতটা এগোনো উচিত সেবিষয়ে আপনাকে সতর্ক থাকবে হবে।
পাশে থাকুন
আপনার অনুভূতিকে গুরুত্ব দিচ্ছে না বলে হয়েতো আপনি হতাশ হয়ে পড়তে পারেন। কিন্তু ভুলেও হতাশার মতো কোনো ভুল করবেন না। বরং যখনই তাদের আপনাকে প্রয়োজন হবে আপনি তাদের পাশে থাকুন৷ আপনার সমর্থন, ভালোবাসা, যত্নই তাদের কাছে অমূল্য হয়ে উঠবে। তবে মনে রাখবেন যে তারা আপনাকে মর্যাদাও নাও দিতে পারে। সমস্ত চেষ্টা সত্ত্বেও, যদি আপনি এইরকম কিছু অনুভব করেন এবং তারা যদি আপনার মতো করে কখনও আপনাকে না ভালোবাসে, তাহলে আপনার একতরফা সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসাই শ্রেয়।
Published by:Suman Majumder
First published: