• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • RELATIONSHIP RELATIONSHIP TIPS ZODIAC COUPLES WHO HAVE THE MOST COMPLICATED RELATIONSHIPS AC

রাজযোটক দূর অস্ত, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রক্ষাও কঠিন! জানুন কোন রাশির জাতক-জাতিকার সঙ্গে সম্পর্ক সুখের হবে না

দেখে নেওয়া যাক কোন দুই রাশির জাতক-জাতিকার সম্পর্ক সুখের হয় না!

দেখে নেওয়া যাক কোন দুই রাশির জাতক-জাতিকার সম্পর্ক সুখের হয় না!

  • Share this:

বিয়ের পর এক ছাদের নিচে মনোমালিন্য ও অশান্তি হতেই পারে, এতে অস্বাভাবিকতার কিছু নেই। আসলে দু'টো আলাদা আলাদা মানুষের চিন্তাভাবনা ভিন্ন রকমের হয়। তাঁদের মধ্যে দু'জনকে এক সিদ্ধান্তে আসতে হলে একটু ঝামেলা হতেই পারে। তবে এমন কিছু রাশি রয়েছে যাদের মধ্যে বিবাহের সম্পর্ক হলে সংসারে অশান্তি লেগেই থাকে।

সেই জুটির কথায় আসার আগে জন্মদিন মিলিয়ে দেখে নিন আপনি কোন রাশির অধীনে পড়েন!

মেষ (Aries): মার্চ ২১ থেকে এপ্রিল ১৯।

বৃষ (Taurus): এপ্রিল ২০ থেকে মে ২০।

মিথুন (Gemini): মে ২১ থেকে জুন ২০।

কর্কট (Cancer): জুন ২১ থেকে জুলাই ২২।

সিংহ (Leo): জুলাই ২৩ থেকে অগস্ট ২২।

কন্যা (Virgo): অগস্ট ২৩ থেকে সেপ্টেম্বর ২২।

তুলা (Libra): সেপ্টেম্বর ২৩ থেকে অক্টোবর ২২।

বৃশ্চিক (Scorpio): অক্টোবর ২৩ থেকে নভেম্বর ২১।

ধনু (Sagittarius): নভেম্বর ২২ থেকে ডিসেম্বর ২১।

মকর (Capricorn): ডিসেম্বর ২২ থেকে জানুয়ারি ১৯।

কুম্ভ (Aquarius): জানুয়ারি ২০ থেকে ফেব্রুয়ারি ১৮।

মীন (Pisces): ফেব্রুয়ারি ১৯ থেকে মার্চ ২০।

এবার দেখে নেওয়া যাক কোন দুই রাশির জাতক-জাতিকার সম্পর্ক সুখের হয় না!

কুম্ভ এবং ধনু

এই দুই রাশির জাতক-জাতিকাদের মধ্যে একটা অদ্ভুত মিল রয়েছে। দু'টি রাশির জাতক-জাতিকাই ঘুরতে ভালোবাসে। নতুন মানুষদের সঙ্গে মিশতে ভালোবাসে। কিন্তু এদের অমিলটা হল, ধনু রাশির জাতক-জাতিকারা নিজের বিষয়ে বেশি চিন্তা করে, অন্য দিকে কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকারা নিঃস্বার্থ ভাবে অন্যের সাহায্য করে। কুম্ভ এবং ধনু রাশির জাতক-জাতিকাদের সম্পর্ক হলে অশান্তি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

মেষ এবং কন্যা

মেষ রাশির জাতক-জাতিকাদের মধ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করার প্রবণতা থাকে, যা কন্যা রাশির জাতক-জাতিকাদের মধ্যে চিন্তা বাড়িয়ে তোলে। দুই রাশির জাতক-জাতিকা একে অপরকে কোনও দিনই বুঝতে পারে না। ফলে এই জুটির কলহ লেগে থাকার সম্ভাবনা থেকে যায়।

কর্কট এবং মীন

দুই রাশির জাতক-জাতিকাই সৃজনশীল, যত্নশীল এবং সংবেদনশীল হয়। এই রাশির দম্পতিদের মধ্যে অশান্তি হওয়া মূল কারণ কর্কট রাশির জাতক। এরা সব সময়ে মনে করে মীন রাশি জাতক-জাতিকা অগের ভুল মনে রাখতে পারে না, ফলে তারা কিছু শিখতে পারে না।

মকর এবং কর্কট

মকর রাশির জাতক-জাতিকারা কর্কট রাশির জাতক-জাতিকাদের থেকে কম সংবেদনশীল হয়। ফলে সম্পর্কে তাড়াতাড়ি চিড় ধরতে দেখা যায়।

মিথুন এবং কুম্ভ

মিথুন এবং কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকারা উভয়ই খোলামেলা স্বভাবের এবং অত্যন্ত বুদ্ধিমান হয়। মানুষকে ভালোবাসার ক্ষেত্রে এদের জুড়ি মেলা ভার। তবে এই রাশি জাতক-জাতিকার মধ্যে বিয়ে হলে অল্প দিনেই অশান্তি শুরুর সম্ভাবনা থাকে। কেন না, মিথুন যে কোনও কারণেই সামাজিকতা পছন্দ করে, অন্য দিকে উদ্দেশ্য ছাড়া সামাজিকতা কুম্ভের পছন্দ নয়।

সিংহ এবং ধনু

এই রাশির জাতক-জাতিকারা জানে কীভাবে ভালো সময় কাটাতে হয়। এদের মধ্যে সিংহ রাশির জাতকেরা চায়তাঁদের সঙ্গী তাকে উন্নতির পথে সাহায্য করুক, কিন্তু ধনু রাশির জাতকেরা তেমনটা হতে পারে না।

তুলা এবং মীন

তুলা এবং মীন রাশির মানুষেরা একে অপরের সঙ্গে সময় কাটাতে ভালোবাসে, একে অপরের খেয়াল রাখতে পারে। তবে একে অপরের প্রতি তাঁদের ভালোবাসাই এক সময় কাল হয়ে দাঁড়ায় দাম্পত্যে।

মীন এবং মকর

মীন রাশির জাতক-জাতিকারা মকর রাশির জাতক-জাতিকাদের থেকে অনেক বেশি বিশ্বাসযোগ্য হয়। ফলে এমন দম্পতিদের মধ্যে জটিলতা তৈরি হয়।

ধনু এবং তুলা

ধনু রাশির জাতক-জাতিকারা স্বতন্ত্র থাকতে পছন্দ করে, অন্য দিকে তুলা রাশির মানুষেরা একা থাকতে পছন্দ করে না। যা নিয়ে ঝামেলা লেগেই থাকে।

বৃশ্চিক এবং সিংহ

বৃশ্চিক রাশির মানুষেরা সৎ এবং আবেগপূর্ণ হয়। অন্য দিকে সিংহ রাশির জাতক-জাতিকাদের মধ্যে এই সব লক্ষণ কম থাকে। এরা একে অপরের ওপর প্রভাব ফেলতে চায়, তাই জটিলতা তৈরি হয়।

বৃষ এবং বৃশ্চিক

এই দুই রাশির মানুষেরা বিশ্বাসযোগ্যতার প্রতি বিশেষ যত্নবান। তবে এরা একে অপরের প্রতি ঈর্ষান্বিত হতে পারে। এই কারণেই দাম্পত্যে সমস্যা দেখা দেয়।

কন্যা এবং কুম্ভ

এই দুই রাশির কাপলদের মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হল কন্যা রাশির জাতক-জাতিকারা অন্যরা কী ভাবছে সেটা নিয়ে চিন্তা করে, কিন্তু কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকারা তা করে না। কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকারা ভীষণ বেপরোয়া হয়, যার ফলে কন্যা রাশির মানুষেরা হতাশ হয়ে পড়ে!

Published by:Ananya Chakraborty
First published: