বাথরুমের আয়নার পিছনে আস্ত একটা অ্যাপার্টমেন্ট! রহস্যভেদ করলেন মার্কিন মহিলা

বাথরুমের আয়নার পিছনে আস্ত একটা অ্যাপার্টমেন্ট! রহস্যভেদ করলেন মার্কিন মহিলা

বাথরুমের আয়নার পিছনে আস্ত একটা অ্যাপার্টমেন্ট! রহস্যভেদ করলেন মার্কিন মহিলা!

বাথরুমের আয়নার পিছনের এই রহস্য উদঘাটন নিয়ে TikTok-এ একটি চার পর্বের ভিডিও সিরিজ বানান সামান্থা হার্টসো।

  • Share this:

#নিউ ইয়র্ক: যেন কোনও থ্রিলার বা হরর মুভি। বাথরুমে মাঝে মাঝেই একটা ঠাণ্ডা বাতাস ছুঁয়ে যেত মহিলাকে। বাতাসে চুল পর্যন্ত উড়ত। কিন্তু ঘরে বাতাস ঢোকার কোনও জায়গা ছিল না। তাহলে কী করে হচ্ছে এসব? কৌতূহলের সিঁড়ি বেয়ে শেষমেশ এক রহস্য উদঘাটন করলেন নিউইয়র্কের সামান্থা হার্টসো (Samantha Hartsoe)। বাথরুমের আয়নার পিছন থেকে খুঁজে পেলেন একটা আস্ত অ্যাপার্টমেন্ট।

নিউ ইয়র্কে নিজের অ্যাপার্টমেন্টের বাথরুমের আয়নার পিছনের এই রহস্য উদঘাটন নিয়ে TikTok-এ একটি চার পর্বের ভিডিও সিরিজ বানান সামান্থা হার্টসো। প্রথম পর্ব থেকেই ব্যাপক মাত্রায় ভাইরাল হতে শুরু করে ভিডিওটি। প্রথম পর্বে ভিউজের সংখ্যা ছিল ৭.৪ মিলিয়ন। আর শেষ পর্যন্ত সেই টানটান উত্তেজনা দেখা যায়। সবাই যেন অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন। প্রথম পর্বে তিনি জানান, নানা ধরনের ঘটনায় রীতিমতো চমকে গিয়েছিলেন। কোনও জানালা বা ছিদ্র ছিল না তাঁর বাথরুমের মধ্যে। কিন্তু একটা বাতাস প্রায়শই ছুঁয়ে যেত তাঁকে। বাতাসে মাথার চুল পর্যন্ত উড়েছে। সেই থেকে সন্দেহ বাড়তে থাকে। কোথাও কি তাহলে কোনও ছিদ্র আছে? এই ছিদ্রের সন্ধানেই বাথরুমের আয়নার পিছনের গুপ্ত রহস্যের হদিশ পান তিনি।

বলা বাহুল্য, কৌতূহলের তেষ্টা থেকে রেহাই পাননি হার্টসো। তাই শেষমেশ বন্ধু-বান্ধব ও রুমমেটদের সাহায্য নিয়ে রহস্য উদঘাটনে নেমে পড়েন। ফেস মাস্ক, টর্চ, কোদাল, হাতুড়ি নিয়ে আয়নার পিছনের সুড়ঙ্গ ধরে ওই গুপ্ত ঘরের সন্ধানে এগিয়ে যান। হার্টসোর কথায়, বাথরুমের ওপারে কী রয়েছে, তা দেখার জন্য বেশ কয়েকদিন ধরেই একটা অজানা কৌতূহল তাড়া করে বেড়াচ্ছিল। পরিত্যক্ত অন্ধকার রুমের মধ্য দিয়ে যাওয়ার পর শেষমেশ একটি থ্রি-বেডরুম অ্যাপার্টমেন্ট খুঁজে পাই। রীতিমতো চমকে গিয়েছিলাম। টর্চ মেরে এদিক-ওদিক দেখি, মেঝেতে কয়েকটি ছেঁড়া ব্যাগ ও জলের বোতল রয়েছে। শেষমেশ ওই রহস্যজনক অ্যাপার্টমেন্টের সামনের দরজা বন্ধ করে নিজের রুমে ফিরে আসি। আর আয়নাটি যথাস্থানে লাগিয়ে দিই।

TikTok ভিডিওর পর নিজের Instagram অ্যাকাউন্টে এ নিয়ে আরও একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন ওই মহিলা।

https://www.instagram.com/p/CMBmmD5nIPi/?utm_source=ig_embed

আয়নার ওপারের জগৎ খুঁজে বের করার এই পুরো সিরিজ ঘিরে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত দর্শকরা। ভিডিওটি দেখার পর থেকেই প্রবল কৌতূহলের পাশাপাশি রীতিমতো ভয়ও পেয়েছেন অনেকে। তাঁদের কথায়, প্রতিটি পার্টের পর এক নতুন উত্তেজনা কাজ করছিল। কৌতূহল ছিল। তবে ভয়ও লাগছিল। ওই রকম সুড়ঙ্গের মধ্যে ঢোকার পর হার্টসোর প্রাণহানি পর্যন্ত হতে পারত। অনেকক্ষণ পর্যন্ত ভিতরে ছিলেন তিনি। তাই এই অভিযানও অত্যন্ত ভয়ঙ্কর ছিল।

Sovan Chanda

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: