• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • ভূত চতুর্দশীতে চোদ্দ শাক ভাজা না খেলেই বিপদ! জেনে নিন কীভাবে খাবেন

ভূত চতুর্দশীতে চোদ্দ শাক ভাজা না খেলেই বিপদ! জেনে নিন কীভাবে খাবেন

কী কী শাক থাকে এই চোদ্দ শাকে ?

কী কী শাক থাকে এই চোদ্দ শাকে ?

কী কী শাক থাকে এই চোদ্দ শাকে ?

  • Share this:

    #কলকাতা: ভূত চতুর্দশী মানেই মর্ত্যে প্রেতদের আখড়া৷ এই দিন চোদ্দ পুরুষের আত্মারা নেমে আসেন পৃথিবীর মাটিতে৷ আর তাদের অতৃপ্ত আত্মাকে তৃপ্ত করতে চোদ্দশাক ভাজা খেতে হয় এদিন৷ না হলে অসন্তুষ্ট হন পূর্বপুরুষরা৷ ঘাড়ে চেপে বসতে পারে ভূত, জীবনে নেমে আসতে পারে নানা সমস্যা৷কী কী শাক থাকে এই চোদ্দ শাকে?

    ওল, কেঁউ, বেথুয়া, কালকাসুন্দি, নিম, সর্ষে, শালিঞ্চা, গুলঞ্চ, জয়ন্তী, পলতা বা পটল গাছের পাতা, ভাঁট বা ঘেঁটু, হিঞ্চে, শুষনি ও শুলফা শাক মিলে তৈরি হয় চোদ্দ শাক৷ এই চোদ্দ শাকের প্রতিটারই রয়েছে বিশেষ স্বাস্থ্যগুণ৷ শুলফা শাক যেমন বাচ্চাদের পেটের রোগ, জ্বর সারাতে উপকারি, তেমন মানসিক চাপ, উচ্চ রক্তচাপের কারণে যারা ঘুমের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য অব্যর্থ শুষনি শাক৷ আসলে ভূত চতুর্দশী অশুভ শক্তিকে দূর করার দিন৷ তাই চোদ্দ শাক খেয়ে শরীরের সব রোগভোগও এই সময় কাটিয়ে ফেলতে হয়৷ রোগভোগ থাকলেই বাসা বাঁধে অতৃপ্ত আত্মা, অশুভ চিন্তা৷

    আবার হাঁপানি, ডায়েরিয়ার মতো রোগ সারাতে সাহায্য করে হিঞ্চে, ঘেঁটু শাক৷ তেমনই আবার পটল পাতা খেলে দূরে থাকে লিভারের যে কোনও রোগ৷ ডায়াবেটিস, গনোরিয়া, সিফিলিসের মতো যৌনরোগের সমস্যায় গুলঞ্চ শাকের উপকারিতার কথা কারও অজানা নয়৷

    চোদ্দ শাকের প্রতিটারই রয়েছে এরকম নানা গুণ৷ তবে এই চোদ্দটি শাক এখন সব সময় পাওয়া যায় না৷ কিন্তু চোদ্দ শাক খাওয়ার রীতি বজায় রাখতে সহজে পাওয়া যায় এমন চোদ্দটি শাক দিয়েই আঁটি বানিয়ে বাজারে বিক্রি করা হয় চোদ্দ শাক৷ লাল শাক, পাট শাক, কুমড়ো শাক, গিমে শাক, নটে শাক, ধনে শাক, পুঁই শাক, লাউ শাক সবই এখন ঠাঁই পেয়েছে চোদ্দ শাকে৷

    চোদ্দ শাক বানানোরও নির্দিষ্ট কোনও ফোড়ন নেই৷ কালোজিরে-কাঁচালঙ্কা, রসুন-শুকনো লঙ্কা, পাঁচফোড়ন যেমন খুশি ফোড় দিয়ে শাক ভাজতে পারেন৷ ঠিক তেমনই আলু, বেগুনও দিতে পারেন শাক ভাজার সময়৷

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: