হোম /খবর /স্বাস্থ্য /
ধূমপান ছাড়তে চাইছেন অথচ পারছেন না? নানা সমস্যা এড়িয়ে কীভাবে সফল হবেন? জানুন

Quitting Smoking: ধূমপান ছাড়তে চাইছেন অথচ পারছেন না? নানা সমস্যা এড়িয়ে কীভাবে সফল হবেন? জানুন

ধূমপান ত্যাগ

ধূমপান ত্যাগ

Quitting Smoking: এই বিষয়ে বলছেন বেঙ্গালুরুর রিচমন্ড রোডের ফর্টিস হাসপাতালের মেডিকেল অঙ্কোলজি ও হেমাটো-অঙ্কোলজির সিনিয়র ডিরেক্টর ডা. নীতি রায়জাদা।

  • Share this:

বেঙ্গালুরু: ধূমপান অত্যন্ত ক্ষতিকর। এটা তো আমরা সকলেই জানি। নানা প্রাণঘাতী সমস্যার কারণ হয়ে উঠতে পারে এই অভ্যেস। ফলে তা ত্যাগ করার পরামর্শই দেওয়া হয়। কিন্তু এক দিনে বললেই তো আর ধূমপান ত্যাগ করা যায় না। বিষয়টা সহজ মনে হলেও আদতে কিন্তু তা নয়। এই ধূমপান ত্যাগ করাটা অত্যন্ত বড় একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। এমনটাই বলছেন বেঙ্গালুরুর রিচমন্ড রোডের ফর্টিস হাসপাতালের মেডিকেল অঙ্কোলজি ও হেমাটো-অঙ্কোলজির সিনিয়র ডিরেক্টর ডা. নীতি রায়জাদা। কিন্তু এই চ্যালেঞ্জ জয়ের কিছু উপায় বাতলে দিচ্ছেন খোদ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকই।

সময় বার করা:

আচমকা একেবারে ধূমপান ছাড়া যাবে না। তার পরিবর্তে বরং একটা সময় বেছে নিতে হবে। আর প্রতিদিন সকালে উঠে নিজের কাছে প্রতিজ্ঞা করতে হবে যে, ‘আমি আর কখনও ধূমপান করব না’। আর এই প্রতিজ্ঞাটা রাখার চেষ্টা করা উচিত। এভাবে প্রতিদিন বিষয়টার পুনরাবৃত্তি করা উচিত।

আরও পড়ুন: গরমে অসুস্থ হচ্ছে শিশুরা! সুরক্ষার কৌশল জানালেন চিকিৎসকরা, জানুন কী তাঁদের পরামর্শ

নিজের লক্ষ্য:

কেন ধূমপান ছাড়ব - এটা নিয়ে নিজেকে প্রশ্ন করতে হবে। বাথরুমের আয়নায় একটা নোট আটকাতে হবে কিংবা ফোনেও রিমাইন্ডার সেট করতে হবে। এতে নিজের লক্ষ্যে অবিচল থাকা যায়।

বেঙ্গালুরুর রিচমন্ড রোডের ফর্টিস হাসপাতালের মেডিকেল অঙ্কোলজি ও হেমাটো-অঙ্কোলজির সিনিয়র ডিরেক্টর ডা. নীতি রায়জাদা বেঙ্গালুরুর রিচমন্ড রোডের ফর্টিস হাসপাতালের মেডিকেল অঙ্কোলজি ও হেমাটো-অঙ্কোলজির সিনিয়র ডিরেক্টর ডা. নীতি রায়জাদা

ট্রিগার সনাক্তকরণ:

কিছু নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে ধূমপানের ইচ্ছে চাড়া দিয়ে উঠতে পারে। মানসিক চাপ, একঘেয়েমি এমনকী বন্ধুদের আড্ডা - এসব ক্ষেত্রেই সেই ইচ্ছেটা সাধারণ চাগাড় দেয়। এই ট্রিগারগুলিকে সনাক্ত করে তা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে।

সমর্থন:

ধূমপান ত্যাগের সিদ্ধান্তের কথা পরিবার ও বন্ধুদের জানাতে হবে। ফলে তাঁদের থেকেও সাহায্য চাওয়া যেতে পারে। এমনকী ডাক্তার অথবা কাউন্সিলরদেরও সাহায্য নেওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুন: বাধা-বিপত্তিহীন প্রেগন্যান্সির জন্য অ্যাসিড রিফ্লাক্স নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি; জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

ব্যস্ত:

ধূমপানের অভ্যেস ত্যাগ করার একটা উপায় হল হাত দু’টোকে নানা কাজে ব্যস্ত রাখা। এর জন্য স্ট্রেস বলে চাপ দেওয়া কিংবা কোনও বোর্ড গেমন খেলা যেতে পারে।

নিজেকে পুরস্কার:

ধূমপান ত্যাগ কিন্তু বড়সড় কৃতিত্বের বিষয়। আর এটা করতে পারলে নিজেকে বড় কোনও উপহার দেওয়া যেতে পারে। তবে মাথায় রাখতে হবে, এমন কিছু উপহার দেওয়া উচিত নয়, যা ধূমপান সম্বন্ধীয়।

হাল ছাড়লে হবে না:

ধূমপান ত্যাগ অনেকটা লম্বা সফরের মতো। নানা সমস্যাও আসতে পারে। অনেক সময় না চাইলেও অভ্যেসবশত সিগারেট খেয়ে ফেলেন অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে কিন্তু হাল ছাড়া চলবে না।

Published by:Teesta Barman
First published:

Tags: Health, Health Benefits, Smoking