Home /News /life-style /
Health: চুল ও নখ কাটার পর যেখানে সেখানে ফেলে দেন? বিপদ ডেকে আনছেন নিজেই

Health: চুল ও নখ কাটার পর যেখানে সেখানে ফেলে দেন? বিপদ ডেকে আনছেন নিজেই

Health: যেখানে সেখানে নখ বা চুল কেটে ফেললে হতে আরে ভয়ঙ্কর ক্ষতি! জানুন

  • Share this:

    #কলকাতা: নখ এবং চুল (Health) কাটা নিয়ে অনেক নিয়ম আছে। আজকাল কার ব্যস্ত দিনে আমরা যখন সময় পাই টুক করে চলে যাই পার্লার। সেখানে গিয়ে চুলের স্পা থেকে কাটিং করিয়ে নিই ইচ্ছে মতো সময়ে। নখের ক্ষেত্রেও তাই। আগেকার দিনে কিন্তু দিদা-ঠাকুমারা যে কোনও দিন চুল নখ কাটতে দিতেন না। তাঁরা নির্দিষ্ট দিনেই কাটতেন। এমনকি রাতেও চুল নখ কাটতেন না। কিন্তু আজকাল এসব আর মানা হয় কই! মানুষের হাতে সময়ও কমছে বইকি!

    তবে জানেন কি চুল এবং নখ কাটার পর মাটিতে পুঁতে রাখতে বলেন অনেকেই। এটাকে অনেকে কুসংস্কার মনে করতেই পারেন। কিন্তু এর পিছনে সাইন্স ও রয়েছে কিন্তু। সবটাই নিছক ভয় দেখানো কথা নয়।

    প্রথমত নখ এবং চুলে অনেক জীবানু (Health)জমে থাকে। আমরা খোলা চুলে রাস্তা ঘাটে চলা ফেরা করি। যার জন্য অনেক ময়লা জমে। সেভাবেই হাত সারাদিন নানা কাজে লাগে। হাত ছাড়া কিছুই সম্ভব না। হাত সাবান দিয়ে ভাল করে ধুলেও নখে কিন্তু জমে থাকে ময়লা। এবার যখন তখন যেখানে সেখানে নখ কেটে ফেলে দিলে, হিতে বিপরীত হতে পারে। এই নখ হাওয়ায় উড়ে পড়তে পারে খাবারে। ঠিক তেমনটাই চুলের ক্ষেত্রেও। আর তা থেকে ছড়াতে পারে নানা অসুখ।

    আরও পড়ুন: সঙ্গী কি আপনার থেকে কিছু লুকিয়ে যাচ্ছে ! মিথ্যে বলছে মেসেজে? হাতে-নাতে ধরার উপায় জানুন

    এই কারণেই আগে কার দিনে নখ ও চুল কাটার (Health)পর মাটিতে পুঁতে দিতেন অনেকেই। যাতে জীবানু না ছড়ায়। এমনকি রান্না করার সময় বা খাবার পরিবেশন করার সময় চুল বেঁধে রাখা উচিত। স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই এই নিয়ম মানতেন অনেকে।

    তবে অনেকে আবার বলেন, যেখানে সেখানে চুল বা নখ ফেলতে (Health)নেই। তার কারণ হিসেবে একটু অন্যরকম কথা বলা হয় বটে। কালো জাদুর মতো শব্দ ব্যবহার করা হয়। তবে এর পিছনে আসল কারণ কিন্তু স্বাস্থ্য। জীবানু ছড়ানোর হাত থেকে বাঁচার জন্যই এসব বলা। এবং চুল বা নখ মাটিতে পুঁতে দিলে, তা মাটির সঙ্গে মিশে যায়। ফলে আর ভয় থাকে না।

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Health

    পরবর্তী খবর