Early to rise: সকালে ঘুম থেকে উঠতে পারেন না ? সহজ এই নিয়মগুলো মানলেই মুশকিল আসান!

মর্নিং পার্সন হয়ে ওঠা সহজ নয়, তবে অসম্ভবও নয়, ফাইল ছবি

কয়েকটি পদ্ধতি মেনে চলুন। আর তাহলেই কিছু দিনের মধ্যে আপনিও হয়ে উঠবেন 'মনিং পার্সন'।

  • Share this:

আর্লি টু বেড অ্যান্ড আর্লি টু রাইজ’। ছেলেবেলায় এই উক্তি শুনলেও কতজন আর তা মেনে চলেন! কিন্তু সকালে ঘুম থেকে ওঠা যে স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী তা নিয়ে সন্দেহ নেই ৷ শারীরিক, মানসিক এবং সার্বিক ভাবে জীবনের উন্নতিতে ভোরে ঘুম থেকে ওঠা জরুরি বলে একমত বিজ্ঞান, আয়ুর্বেদ এবং ডাক্তাররাও। মনে রাখবেন, মর্নিং পার্সন হয়ে ওঠা সহজ নয়, তবে অসম্ভবও নয়। কিন্তু যতই অ্যালার্ম সেট করুন না কেন, সকালে বিছানা ছেড়ে ওঠা কি আপনার পক্ষে খুবই কষ্টকর হয়ে ওঠে? তাহলে শুধুমাত্র কয়েকটি পদ্ধতি মেনে চলুন। আর তাহলেই কিছু দিনের মধ্যে আপনিও হয়ে উঠবেন 'মনিং পার্সন'।

'মি টাইম' উপভোগ করুন

ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠলে আপনি সকালে এক অনাবিল শান্তি এবং নীরবতা খুঁজে পাবেন। এই সুবর্ণ সময়ই হল আপনার 'মি টাইম'। অর্থাৎ সকালের শান্ত পরিবেশে আপনি নিজের সঙ্গে সময় কাটাতে পারবেন৷ যখন আপনি সারা দিন কী করবেন তার ছক তৈরি করে রাখতে পারেন। আমরা বিশেষত কোভিড ১৯ আবহে যেভাবে জীবনযাপন করছি তাতে সকালের নির্জনতার এই নিস্তব্ধ মুহূর্তগুলি সত্যিই সমস্ত চাপ থেকে বিরতি দিতে পারে।

 মর্নিং  পার্সনের সঙ্গে থাকুন

যদি আপনি এমন মানুষের সঙ্গে থাকেন যাঁরা নিজেরা সকালে তাড়াতাড়ি উঠে পড়েন তাহলে আপনার পক্ষেও সহজ হবে। প্রথমত, আপনার ঘরের অন্যান্য সদস্যরা সকালে উঠলেই অনবরত আওয়াজ করতে থাকবেন। দ্বিতীয়ত, তাদের ভোরবেলা উঠে পড়া দেখে আপনিও উদ্ধুদ্ধ হবেন। তাই ভোরবেলা ঘুম থেকে ওঠার জন্য এর থেকে সহজ পদ্ধতি আর হয় না।

বলিউডের পার্টির গান আপনার অ্যালার্ম টোন করুন

সকালে কোনও লাউড গান শুনলে স্বাভাবিক ভাবেই আমরা নড়েচড়ে উঠি। তাই যদি আপনার অ্যালার্ম আপবিট বলিউড গান হয়, তাহলে তো কথাই নেই। যার সব চেয়ে বড় প্রমাণ হল বিগ বসের প্রতিযোগিরা। নিশ্চয়ই দেখেছেন ওই শো-এর প্রতিযোগীরা প্রত্যেকদিন সকালে কত খুশি এবং চনমনে থাকেন! তাই এই উপায়টি আপনিও নিজের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করতে পারেন।

 কুকুড় অথবা বিড়াল রাখুন

বাড়িতে কোনও পোষ্য রাখা মর্নিং পার্সন হওয়ার একটি নিশ্চিত পদ্ধতি। কারণ সকালে হয় আপনাকে পোষ্যকে নিয়ে বাইরে বেরোতে হবে অথবা পোষ্য নিজেই আপনাকে জাগিয়ে দেবে। শুধু তাই নয় যে কোনোওপোষ্য আপনাকে আরও হাসি-খুশি, আরও পরিপূর্ণ করে তোলে এবং আপনাকে অন্তহীন ভালোবাসায় ভরিয়ে দেয়। তাই ভোরে ওঠার জন্য এর চেয়ে ভালো উপায় আর কী হতে পারে!

ডিটক্সিফাইং নাইট রুটিন মেনে চলুন

ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠতে হলে রাত থেকেই প্রস্তুতি শুরু করতে হবে। অনেক মহিলারা বিশ্বাস করেন যে মর্নিং পার্সন হওয়ার জন্য রাতে ডিটক্স করা খুবই জরুরি। শুধু শরীর নয়, মনেরও পরিশোধন করতে হবে। নিয়মিত স্কিন কেয়ার রুটিন মেনে চলা যেমন রাতে শোয়ার আগে মুখ পরিষ্কার করে কোনও ক্রিম লাগানো আপনার ভালো ঘুম হতে এবং তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠতে সাহায্য করে। একই সঙ্গে প্রয়োজন ডিজিটাল ডিটক্সও। মর্নিং পার্সন হওয়ার জন্য রাতে শুতে যাওয়ার অন্তত এক ঘন্টা আগে আপনার গ্যাজেটগুলো বন্ধ করে দিন।

 ভোরে মেডিটেশন করুন

ভোরে উঠেই নিজেকে উজ্জীবিত করতে এক মুহুর্ত জোরে নিশ্বাস নিন। ৭ মিনিটের মেডিটেশন করুন যা আপনাকে একেবারে জাগিয়ে তুলতে এবং সারাদিনের জন্য প্রস্তুত করবে। আপনি চাইলেও আর ঘুমাতে পারবেন না। ভোরবেলা নিয়মিত ধ্যান করলে তা আপনাকে বিছানা ছেড়ে উঠতে প্রবলভাবে সাহায্য করে।

ভোরের ওয়ার্ক আউট ক্লাসে যান

সকালে আপনি যদি কোনও কিছুতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকেন, বিশেষত তার জন্য যদি টাকা দিয়ে থাকেন তাহলে আপনি আপনা-আপনি একজন মর্নিং পার্সন হয়ে উঠবেন। এছাড়া ভোরের ওয়ার্ক আউট ফিট থাকার জন্য সব চেয়ে ভালো উপায়। এক্ষেত্রে আপনি টোনড বডি নিয়ে মর্নিং পার্সন হয়ে উঠবেন।

পাজল অ্যালার্ম ক্লক ব্যবহার করুন

শুনতে অদ্ভুদ লাগলেও যে কোনও পাজল অ্যাপ ব্যবহার করলে অ্যালার্ম বন্ধ করার জন্য ধাঁধা সমাধান করতে হয়। যা ঘুম থেকে জেগে ওঠার জন্য খুব ভালো পদ্ধতি। একবার ঘুম থেকে উঠলে আপনি আর ঘুমিয়েও পড়তে পারবেন না। এটা ঠিক যে ঘুম ভেঙে ধাঁধা সমাধান করতে গিয়ে আপনি খুব বিরক্ত হবেন, এমনকি রেগে ফোনের ক্ষতিও করতে পারেন, কিন্তু অন্তত আপনি ভোরে উঠবেন তো!

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: