Happy Eid ul Fitr 2021: ইদ হোক মিষ্টতায় পূর্ণ; ঘরেই বানিয়ে ফেলুন এই ৫ সাবেকি মিষ্টি

এবার ইদ-এর সুস্বাদু খাবার ও মিষ্টি বাড়িতে তৈরি করা ভাল। কারণ, বাইরের তৈরি খাবার কতটা স্বাস্থ্যকর তা এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।

এবার ইদ-এর সুস্বাদু খাবার ও মিষ্টি বাড়িতে তৈরি করা ভাল। কারণ, বাইরের তৈরি খাবার কতটা স্বাস্থ্যকর তা এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।

  • Share this:
    #কলকাতা: ইদ মানেই নানা রকমের খাওয়া-দাওয়া। আত্মীয়স্বজন, বন্ধু-বান্ধবদের আগমন। তবে এবারের ইদ একটু আলাদা ভাবেই কাটবে। কারণ ঘরে-বাইরের বাতাসে ছড়িয়ে রয়েছে করোনা বিষ। তাই ইদ-এর সুস্বাদু খাবার ও মিষ্টি বাড়িতে তৈরি করা ভালো। কারণ, বাইরের তৈরি খাবার কতটা স্বাস্থ্যকর তা এখন লাখ টাকার প্রশ্ন। নিচে কিছু ইদের মিষ্টি ঘরে কী ভাবে বানানো যাবে তার প্রণালী দেওয়া হল। প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক শীর খুরমা (Sheer Khurma) রান্নার পদ্ধতি ও উপকরণ: শীর খুরমা বা়ড়িতে বানানোর জন্য প্রথমে একটি পাত্রে ঘি গরম করে তাতে আমন্ড, কিসমিস, পেস্তা কুচি দিয়ে ভেজে নিতে হবে। এর পর গরম ঘিয়ে পরিমাণ মতো সিমাই ভেজে নিতে হবে। এবার অন্য পাত্রে দুধের মধ্যে চিনি দিয়ে অল্প আঁচে দুধ ঘন হওয়া পর্যন্ত ফুটিয়ে নিতে হবে। দুধ ঘন হয়ে এলে এর মধ্যে ভাজা সিমাই, পেস্তা-কিসমিস এবং কেশর দিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এর পরে এক চিমটি এলাচ গুঁড়ো দিয়ে অল্প আঁচে কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নিতে হবে। এবার ঠাণ্ডা করে খেজুর দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করা যেতে পারে। ডবল কা মিঠা বা শাহি টুকরা (Double Ka Meetha/Shahi Tukda): ইদের সকালে ঝটপট বানিয়ে নেওয়া যেতে পারে শাহি টুকরা। পাউরুটির চারপাশের বাদামি অংশ কেটে ফেলে, কোনাকুনি দু'ভাগ করে ভাগ করে নিতে হবে। একটি পাত্রে আধ-কাপ জলে গোলাপজল মিশিয়ে চিনির সিরা বানিয়ে নিতে হবে। অন্য পাত্রে দুধ ও কনডেন্সড মিল্ক মিশিয়ে ফুটিয়ে নিতে হবে। কিছুক্ষণ পর ১ চামচ কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে দুধ ঘন করতে হবে। এবার ফ্রাই প্যানে ঘি দিয়ে পাউরুটি বাদামি করে ভেজে চিনির শিরায় ৪/৫ সেকেন্ড ভিজিয়ে নিতে হবে। এর পর পাউরুটিগুলো একটি পাত্রে সাজিয়ে উপরে ঘন দুধ ঢেলে বাদাম কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করতে হবে। বাকলাভা (Baklava): ইদে নতুন মিষ্টি বানিয়ে আত্মীয়স্বজনদের চমকে দিতে চাইলে বানান যেতে পারে তুরস্কের লোভনীয়, মুচমুচে মিষ্টি বাকলাভা। চিনি, জল, দারচিনি, লেবুর রস মিলিয়ে ফুটিয়ে নিয়ে চিনির সিরা বানাতে হবে। ডিম, বেকিং পাউডার, অল্প লবণ, সাদা তেল, দুধ দিয়ে ময়দা ভালো করে মেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে। ময়দার মিশ্রণ থেকে লেচি বানিয়ে বেলে নিতে হবে। এবার অল্প ময়দা কর্নফ্লাওয়ার আর বাদাম মিলিয়ে ব্লেন্ডারে গুঁড়ো করতে হবে। এবার বেলে নেওয়া লেচি গুলোকে এক এক করে রেখে একটু করে ময়দা-কর্নফ্লাওয়ার-বাদামের মিশ্রণ দিয়ে ৪-৬টি লেয়ার বানিয়ে মাখন লাগিয়ে নিতে হবে। এবার মাইক্রোওভেনে টাইমার দিয়ে বেক করে নিতে হবে। হয়ে গেলে চৌকো করে কেটে চিনির সিরা ঢেলে ফ্রিজে রাখতে হবে। এর পর বাদাম কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করলেই হবে। ফিরনি (Phirni): ফিরনি হল পায়েস গোত্রের একটি মিষ্টান্ন। এটি ঘন দুধ, চাল বাটা, গোলাপজল, এলাচ, কেশর ইত্যাদি দিয়ে তৈরি করা হয়। প্রথমে চাল ভিজিয়ে জল ঝরিয়ে বেটে নিতে হবে। একটি পাত্রে দুধ ফুটিয়ে এতে বেটে রাখা চাল দিয়ে ক্রমাগত নাড়তে হবে। এবার এতে চিনি, ছোট এলাচ গুঁড়ো, কেশর, গোলাপজল দিয়ে মিশ্রণটি ঘন হলেই, মাটির পাত্রে করে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করতে হবে। জমে গেলে পরিবেশন করা যাবে। কুলফি ফালুদা (Kulfi Faluda): শেষ পাতের সব চেয়ে আকর্ষণীয় পদ হল কুলফি ফালুদা। এটা বানানো খুবই সহজ। তুলসী বীজ দু’ঘণ্টা জলে ভিজিয়ে, ছেঁকে তুলে নিয়ে কিছু সময় ফ্রিজারে রাখতে হবে। জলে অল্প গোলাপজল দিয়ে ফালুদা সেমাই সেদ্ধ করে, ফ্রিজারে রাখতে হবে। দুধ জাল দিয়ে রাবড়ি বানিয়ে ফ্রিজে রাখতে হবে। এবার লম্বা গ্লাসে প্রথমে কুচানো পাকা আম, তার উপর তুলসী বীজ, তার উপর অল্প গোলাপজল, ফালুদা সেমাই, রাবড়ি এবং ২ স্কুপ ভ্যানিলা আইসক্রিম দিয়ে সাজিয়ে নিয়ে, টুটিফ্রুটি ছড়িয়ে পরিবেশন করতে হবে।
    First published: