মাছ-ভাত ভালোবাসেন মাসাবা, অথচ ভুলে যান শার্টের বোতাম লাগাতে!

মাছ-ভাত ভালোবাসেন মাসাবা, অথচ ভুলে যান শার্টের বোতাম লাগাতে!

মৎসকন্যা মাসাবা photo- Instagram

সাদা শার্ট পরতে ভালোবাসেন মাসাবা গুপ্তা। তাঁর 'ওয়ার্ডরোবে' সাদা শার্টের অভাবও নেই কোনও। কিন্তু সমস্যা একটাই। শার্টের বোতাম আটকাতে খালি ভুলে যান নীনা-তনয়া।

  • Share this:

    #মুম্বাই : সাদা শার্ট পরতে ভালোবাসেন মাসাবা গুপ্তা। তাঁর 'ওয়ার্ডরোবে' সাদা শার্টের অভাবও নেই কোনও। কিন্তু সমস্যা একটাই। শার্টের বোতাম আটকাতে খালি ভুলে যান নীনা-তনয়া। আর সেই ভুলের কথা নিজেই ফলাও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন সাহসী, আত্মবিশ্বাসী ফ্যাশন ডিজাইনার। তাঁর সেই 'গার্ল হু ওয়ার্স টু মেনি হোয়াইট শার্ট এন্ড নেভার বাটনস দেম' লুক দেখে অবশ্য পুরোপুরি ক্লিন বোল্ড তাঁর অনুরাগীরা! শার্টের বোতাম লাগাতে ভুলে গেলে যদি কেউ এতটা উত্তাপ ছড়ায়, তবে ভুলে যাওয়ায় বোধহয় ভাল। তাই না? অন্তত মাসাবা ফ্যানেরা তাই বলবেন।

    শুধু কী সাদা শার্টের পাহাড়! মাসাবা সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করেছেন তাঁর আরেক প্রেমের গল্প। এই প্রেমে আবার রয়েছে তাঁর বাঙালি যোগ। কারণ, বাঙালিদের মতোই খাদ্য তালিকায় মাসাবারও প্রথম পছন্দ মাছ আর ভাত!  এই ছবিটি শেয়ার করে সেই কথাই তাঁর 'ইন্সটাফ্যামিলিকে' জানিয়েছেন ফ্যাশন ডিজাইনার।

    View this post on Instagram

    A post shared by Masaba (@masabagupta)

    ছবিতে তাঁর পরনে ছিল লিনেনের সি-থ্রু লম্বা সাদা শার্ট। আর সাদা শর্ট। চোখে ছিল কালো রোদচশমা। সব মিলিয়ে সূর্যস্নাত সুন্দরীকে দেখাচ্ছিল দারুণ। এই ছবি তিনি শেয়ার করার সঙ্গে সঙ্গে প্রশংসার বন্যা বইয়ে দেন মাসাবা-অনুরাগীরা। হাউস অব মাসাবার মালকিনের সাম্প্রতিক ভ্যাকেশনের এই সেক্সি লুক ঘিরে একের পর এক হার্ট ইমোজি  ভেসে আসে অনুরাগীদের কাছ থেকে।

    নীনা-কন্যা মাসাবাকে দিন কয়েক আগে দেখা গিয়েছে সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের তৈরি বিয়ের সাজে। একটি ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে। এক ডিজাইনার আর এক জন ফ্যাশন ডিজাইনারের মডেল হিসেবে দেখা দেওয়ায় সেই ছবি নিয়ে রীতিমতো উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল নেটাগরিকদের মধ্যে। সেই নেটাগরিকদেরই গ্রীষ্ম-ফ্যাশনের পরামর্শ দিলেন মাসাবা। আবারও মডেল হলেন ডিজাইনার। এবার নিজেরই ডিজাইনের পোশাকের মডেল হলেন মাসাবা, সানন্দে। কারণ সাদা শার্টে তাঁর দুর্বলতা ঠিক মাছ ভাতের মতোই যে !

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: