Home /News /life-style /
Prostate Cancer Symptoms|| প্রস্রাবে বা প্রস্রাবের সময়ে কিছু লক্ষণ অবহেলার নয়, প্রস্টেট ক্যান্সারের আগাম লক্ষণ হতে পারে

Prostate Cancer Symptoms|| প্রস্রাবে বা প্রস্রাবের সময়ে কিছু লক্ষণ অবহেলার নয়, প্রস্টেট ক্যান্সারের আগাম লক্ষণ হতে পারে

প্রস্টেট ক্যান্সার। প্রতীকী ছবি।

প্রস্টেট ক্যান্সার। প্রতীকী ছবি।

Prostet Cancer Symptoms: ভারতে ৬৫ বছর এবং তার বেশি বয়সের পুরুষরাই সবচেয়ে বেশি প্রস্টেট ক্যানসারে আক্রান্ত হন।

  • Share this:

#কলকাতা: পুরুষরা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হন প্রস্টেট ক্যানসারে। অন্যান্য ক্যানসারের মতো এ ক্ষেত্রেও শুরুতেই রোগ নির্ণয় হলে সেরে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু লক্ষণগুলো অধিকাংশ সময়েই উপেক্ষা করা হয়। ফলে রোগ বাড়ে। ভারতে ৬৫ বছর এবং তার বেশি বয়সের পুরুষরাই সবচেয়ে বেশি প্রস্টেট ক্যানসারে আক্রান্ত হন।

প্রস্টেট ক্যানসার কী:

প্রস্টেটে একটা ছোট আখরোট আকৃতির গ্রন্থি থাকে। এটা সেমিনাল তরল তৈরি করতে সাহায্য করে। যা শুক্রাণুকে পুষ্ট করে এবং পরিবহণ করে। আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি অনুসারে, প্রস্টেট গ্রন্থির কোষগুলি নিয়ন্ত্রণের বাইরে বাড়তে শুরু করলে প্রস্টেট ক্যানসারে আক্রান্ত হয় মানুষ। প্রস্টেট ক্যানসারের প্রকারগুলো হল, ছোট কোষ কার্সিনোমাস, নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার (ছোট কোষের কার্সিনোমা ব্যতীত), ট্রানজিশনাল সেল কার্সিনোমাস, সারকোমাস, প্রস্টেট ক্যানসারের সর্বাধিক প্রচলিত রূপ হল অ্যাডেনোকার্সিনোমা।

আরও পড়ুন: ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যায় জেরবার? ব্যথা মেটাতে কাজে আসবে ঘরোয়া টোটকাই

প্রস্টেট ক্যানসারের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ:  

প্রস্টেট ক্যানসারের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ, অন্যান্য রোগের সঙ্গে গুলিয়ে যায়, প্রস্টেট গ্রন্থিটি মূত্রাশয় এবং মূত্রনালীর কাছাকাছি অবস্থিত। তাই প্রস্টেট ক্যানসারে আক্রান্ত হলে প্রস্রাবে সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। টিউমারের আকার এবং অবস্থানের উপরেই ক্যানসারের প্রাথমিক পর্যায় নির্ভর করে। এর সঙ্গে আরও কিছু লক্ষণ রয়েছে, প্রস্রাব করতে সমস্যা বা অসুবিধা, প্রস্রাবের সময় জ্বালা, ব্যথা বা অস্বস্তি, রাতে ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া, প্রস্রাবে রক্ত, বীর্যে রক্ত, মূত্রাশয়ের নিয়ন্ত্রণ না থাকা, ইরেক্টাইল ডিসফাংশন, বেদনাদায়ক বীর্যপাত।

প্রস্টেট গ্রন্থির বাইরে ক্যানসার ছড়িয়ে পড়লে কী হয়:

অনেক সময় দেরিতে রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসার কারণে ক্যানসার প্রোস্টেট গ্রন্থির বাইরে হাড় এবং লিম্ফ নোড সহ শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এতে জটিলতা আরও বাড়ে। মেটাস্ট্যাটিক প্রস্টেট ক্যান্সারের লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে: পা বা পেলভিক অঞ্চলে ফোলা, নিতম্ব, পা বা পায়ে অসাড়তা বা ব্যথা, হাড়ের ব্যথা যা কমে না উল্টে ফ্র্যাকচারের দিকে নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন: বেশি ঝক্কির দরকার নেই, খাওয়ার পর ক্যান্ডি মুখে দিলেই কমতে শুরু করবে ওজন

কাদের ঝুঁকি বেশি:

যখন প্রস্টেটের কোষের ডিএনএ-তে বদল ঘটে তখনই ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে। অস্বাভাবিক কোষগুলি একটি টিউমার তৈরি করে যা কাছাকাছি টিস্যুতে ছড়িয়ে পড়ে এবং আক্রমণ করে। কেন এমন হয় এর কারণ পুরোপুরি জানা না গেলেও কাদের প্রস্টেট ক্যানসারের ঝুঁকি বেশি, তা জানার কয়েকটি লক্ষণ রয়েছে। এর মধ্যে বার্ধক্য, ক্যানসারের পারিবারিক ইতিহাস এবং স্থূলতা অন্যতম। অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রাও এ ক্ষেত্রে অনেকটা দায়ী। ফল এবং শাকসবজি সমৃদ্ধ খাবার, নিয়মিত ব্যায়াম এবং ওজন কম রাখতে পারলে প্রস্টেট ক্যানসারের ঝুঁকি কমে।

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Prostate Cancer

পরবর্তী খবর