৩০ সেকেন্ডে শেষ গোটা দেওয়াল রং করা! অবাক নেটিজেন, দেখুন ভিডিও

৩০ সেকেন্ডে শেষ গোটা দেওয়াল রং করা! অবাক নেটিজেন, দেখুন ভিডিও
মাত্র ৩০ সেকেন্ড। রোলার দিয়ে গোটা দেওয়াল রং করা শেষ। TikTok-এ অ্যাঞ্জেলা নামের একটি প্রোফাইল থেকে এমন ভিডিও সম্প্রতি পোস্ট করা হয়। যা ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মাত্র ৩০ সেকেন্ড। রোলার দিয়ে গোটা দেওয়াল রং করা শেষ। TikTok-এ অ্যাঞ্জেলা নামের একটি প্রোফাইল থেকে এমন ভিডিও সম্প্রতি পোস্ট করা হয়। যা ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

  • Share this:

দেওয়াল রং করার শখ অনেকেরই থাকে। অনেকেই আবার দেওয়ালে বিভিন্ন ডিজাইন করতে পটু। কিন্তু কত তাড়াতাড়ি দেওয়াল রং করা যায়, তা বোধ হয় কাজের সূত্রে যাঁরা রং করেন, তাঁরা ছাড়া আর কেউ ভাবেন না। কিন্তু কেউ কি একটি গোটা দেওয়াল কয়েক সেকেন্ডে রং করে দিতে পারেন? বোধ হয় না। কিন্তু এই কাজই করে দেখালেন এক ব্যক্তি। সম্প্রতি TikTok-এ ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও থেকে এমনই জানা যায়।

মাত্র ৩০ সেকেন্ড। রোলার দিয়ে গোটা দেওয়াল রং করা শেষ। TikTok-এ অ্যাঞ্জেলা নামের একটি প্রোফাইল থেকে এমন ভিডিও সম্প্রতি পোস্ট করা হয়। যা ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওটিতে দেখা যায়, একটি রোলার হাতে দেওয়াল রং করতে শুরু করেন এর ব্যক্তি। এবং চোখের নিমেষে সেই রং করা শেষ হয়ে যায় তাঁর। দেখা যায়, জিগজ্যাগ করে দেওয়াল রং করার কাজ শেষ করেন তিনি।

ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়, কী ভাবে এটা সম্ভব হল? সবাই ভিডিওটির কমেন্টে লিখতে শুরু করেন, এমন আগে কখনও দেখেননি!


আসলে পেইন্টিং বা দেওয়াল রং করা এমন একটি শিল্প যা বাস্তবায়িত করতে অনেকটা সময় লাগে। দেওয়ালে ফিনিশিং টাচ দিতেই প্রচুর সময় লেগে যায়। যদি কেউ এই বিষয়টিতে খুব পটুও হন, তবুও দেওয়ালে রং করতে অনেকটা সময় লেগে যায়। কিন্তু এই ব্যক্তি, এই সবের উর্ধ্বে গিয়ে মাত্র ৩০ সেকেন্ডেই একটি দেওয়াল রং করে রীতিমতো সাড়া ফেলেছেন নেটদুনিয়ায়।

অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে তাঁর পরিচয় জানতে চেয়েছেন। অনেকেই আবার জানতে চেয়েছেন তিনি তাঁর বাড়ির দেওয়ালের রং করে দেবেন কি না। অনেকেই আবার সোজাসুজি তাঁকে কাজেরও আবেদন দিয়েছেন।

একজন আবার ভিডিওটি তাঁর স্বামীকে ট্যাগ করেন এবং এই দেওয়াল রঙের সঙ্গে তাঁর স্বামীর একটি গল্প শেয়ার করেন।

https://www.youtube.com/watch?v=1mJb49Zikzo&feature=emb_title

এমন অনেক ভিডিওই দিনে আমাদের সামনে আসে বা ভাইরাল হয়, যা আমরা আগে কখনও দেখিনি বা করিনি। এমন কাজ হতে পারে বলেও হয় তো ভেবে দেখিনি কখনও। সোশ্যাল মিডিয়ার ভালো দিকের মধ্যে এটাও কিন্তু একটা- বাড়ি বসে বিশ্বের কোন প্রান্তে কী হচ্ছে তার সব আপডেট থাকছে আমাদের কাছে। পাশাপাশি এর জন্যই আমরা এমন কিছু জানতে পারছি যা হয় তো এমনিতে সম্ভব হত না!

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

লেটেস্ট খবর