• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TEACHER SUICIDE ATTEMPT 5 TEACHERS FILED A CASE IN CALCUTTA HIGH COURT SANJ

Teacher Suicide Attempt : বিকাশ ভবনের সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা, এবার আদালতের দ্বারস্ত সেই পাঁচ শিক্ষিকা!

হাইকোর্টে মামলা দায়ের শিক্ষিকাদের

Teacher Suicide Attempt : দাবি, বদলির বিষয়ে লঙ্ঘন করা হয়েছে শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের কাজের রীতি।

  • Share this:

কলকাতা : কয়েকশো কিলোমিটার দূরে বদলির প্রতিবাদে বিকাশ ভবনের সামনে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা (Teachers attempted Suicide) করেছিলেন পাঁচ শিক্ষিকা। তাদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছিল কলকাতার এনআরএস (NRS Hospital) হাসপাতালে। এবার সেই প্রতিবাদরত শিক্ষিকারাই অন‍্যায় এবং আইন বিরুদ্ধভাবে তাঁদের বদলি করার অভিযোগ মামলা দায়ের করলেন কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court)। মামলা করেন ৫ এসএসকে শিক্ষিকা।

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বেঞ্চে দায়ের করা মামলার সম্ভবত শুনানি হবে আগামী সপ্তাহে। হাইকোর্টে (Calcutta High Court) মামলা দায়ের করেছেন শিক্ষিকা জ্যোৎস্না টুডু, শিখা দাস, পুতুল জানা মণ্ডল। তাদের দাবি, বদলির বিষয়ে লঙ্ঘন করা হয়েছে শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের কাজের রীতি। কোন আইনে তাদের কয়েকশো কিলোমিটার দূরে বদলি করা হয়েছে, তাও জানতে চান তারা। তাঁদের অভিযোগ, শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে কাজের রীতি ভেঙেছেন এসএসকে ডিরেক্টর। আর সেই প্রশ্ন তুলে মামলা দায়ের করা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। দাবি, বদলির সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। সূত্রের খবর, মামলা দায়ের করেছেন আরও বদলি হওয়া শিক্ষক-শিক্ষিকারাও।

জানা গিয়েছে, এই শিক্ষিকাদের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা থেকে সরাসরি উত্তরবঙ্গে কোচবিহারের দিনহাটায় বিভিন্ন স্কুলে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু কেন এভাবে তাদের বদলি করা হয়েছে, সেবিষয়ে কিছুই জানায়নি শিক্ষা দফতর। পূর্বেও শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের সদস্যরা বেতন বৃদ্ধির দাবিতে রাস্তায় প্রতিবাদী আন্দোলনে অংশ নিয়েছিল। আর তাদের মধ্যে থেকেই ৫ জনের বদলির খবর আসে। আর তারাই সেদিন বিকাশ ভবনের সামনে বিষপান করেন।

কেন তাদের বদলি করা হল, সেই উত্তর না পেলেও অবিলম্বে বদলির এই সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে এবার হাইকোর্টের দারস্থ হলেন শিক্ষিকারা। তাদের দাবি, এই বদলির নির্দেশ বাতিল করতে হবে। অন‍্যায় এবং আইন বিরুদ্ধভাবে তাঁদের বদলি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। এই পাঁচ শিক্ষিকা ছাড়াও আরও বেশ কিছু শিক্ষিকা এই একই অভিযোগে মামলা করেছে বলে জানা গিয়েছে। সম্ভবত আগামী সপ্তাহেই মামলার শুনানি।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: