• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SUVENDU ADHIKARIS STATEMENT ON MUKUL ROYS HEALTH CONDITION SB

Suvendu Adhikari on Mukul Roy: মুকুল রায় কি সত্যিই অসুস্থ? বিস্ফোরক দাবি শুভেন্দু অধিকারীর!

যুযুধান

Suvendu Adhikari on Mukul Roy: শুভেন্দু অধিকারী দাবি করলেন, 'মুকুল রায়কে অসুস্থ সাজিয়ে ঘরে বসিয়ে রাখা হয়েছে। পিএসি বৈঠকেও হাজির হচ্ছেন না।'

  • Share this:

    #কলকাতা: দলত্যাগ বিরোধী আইনের আওতায় দলীয় বিধায়ক মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজ করার আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই নিয়ে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে ইতিমধ্যেই শুনানি হয়েছে একাধিক বার। শুভেন্দু দুবার উপস্থিত থাকলেও অনুপস্থিত ছিলেন মুকুল রায়। যদিও মুকুল রায়কেও তলব করেছেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। এই পরিস্থিতিতে শুভেন্দু অধিকারী এদিন দাবি করলেন, 'মুকুল বাবুকে অসুস্থ সাজিয়ে ঘরে বসিয়ে রাখা হয়েছে। পিএসি বৈঠকেও হাজির হচ্ছেন না। খরচ আমরা করব, হিসেব আমরা রাখব, এটাই কাটমানি খ্যাত তৃণমূলের নীতি।'

    মুকুল রায় এখনও BJP-র বিধায়ক। অথচ তিনি 'ঘরে' ফিরে এসে যোগ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসে। এরপরই BJP দাবি তোলে, মুকুলকে বিধায়ক পথ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। কিন্তু তৃণমূল বিরোধী বিধায়ক হিসেবে মুকুলকেই পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি (PAC)-র চেয়ারম্যান করে। তা নিয়ে আদালতে পর্যন্ত গিয়েছে বিজেপি।

    এরই মধ্যে মুকুল রায়ের পথেই আরও দুই বিজেপি বিধায়কের ইতিমধ্যেই ঘরওয়াপসি ঘঠেছে। বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষ ও বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসের দলবদলের পরই এদিন বাঁকুড়া, বনগাঁর মতো সাংগঠনিক জেলার বিধায়কদের নিয়ে বিজেপির রাজ্য দফতরে বৈঠকে বসেন দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারীরা। সেই বৈঠক শেষে শুভেন্দু বলেন, 'তৃণমূল নেত্রী ও তাঁদের প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানির ২১৩ বিধায়কের পরও আরও বিধায়ক প্রয়োজন। সেই কারণে দলের সঙ্গে যোগাযোগহীন দুই বিধায়ককে যোগ দিইয়েছেন। যেহেতু মুখ্যমন্ত্রী নন এমএলএ, তাই পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিধানসভায় তৃণমূল দলের নেতা। দলত্যাগবিরোধী আইনকে তিনিই বুড়ো আঙুল দেখালেন। আইনকে অপমান করা হল।'

    আরও পড়ুন: উত্তরে বহু প্রশ্ন বিজেপির অন্দরে, শুভেন্দুর না যাওয়া ও ৫ বিধায়কের অনুপস্থিতি...

    যদিও শুভেন্দুর চ্যালেঞ্জ, 'বিজেপি মুকুল রায়ের বিষয়ে যেমন পদ্ধতি মেনে যেমন এগিয়েছি, পিএসি কমিটি ভাঙার জনস্বার্থ মামলা করেছি। তন্ময় ঘোষ ও বিশ্বজিৎ দাসের বিরুদ্ধেও আইন মেনেই নোটিশ পাঠিয়েছি। সাতদিনের মধ্যে অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে। যা করার হয়, করব।' রাজ্যের বিরোধী দলনেতার সংযোজন, 'রাজ্যসভার নির্বাচনেও একাধিক বিধায়ককেও যোগ দেওয়ানো হয়েছে। তখনকার বিরোধী দলের এ নিয়ে সদিচ্ছা ছিল বলে মনে হয় না। কিন্তু আমরা শেষ পর্যন্ত দেখব, এটা বলে রাখলাম।'

    মুকুলের ইস্যু নিয়ে দ্রুত নিষ্পত্তির দাবিতে আইনি পথেরও দ্বারস্থ হয়েছে গেরুয়া বিধায়করা। স্পিকারের কাছে তিনবার শুনানি হলেও একবারও অংশ নেননি বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়। তাঁকে অসুস্থ বলে জানিয়েছেন স্পিকার। এদিন সেই অসুস্থতা নিয়েও প্রশ্ন তুললেন শুভেন্দু অধিকারী।

    Published by:Suman Biswas
    First published: